kalerkantho


অভিষেকেই আফিফের সেঞ্চুরি

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



অভিষেকেই আফিফের সেঞ্চুরি

গতকাল বিকেএসপিতে ২৪ ওভারে ৪টি মেডেনসহ ৯১ রানে শুভাগত হোম নিয়েছেন ৬ উইকেট।

ক্রীড়া প্রতিবেদক : গতকাল বিকেএসপিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) ম্যাচে প্রাইম ব্যাংক  দক্ষিণাঞ্চলের বিপক্ষে ৬ উইকেট নিয়েছেন মধ্যাঞ্চলের হয়ে খেলা শুভাগত হোম, তাতে ২৬০ রানেই অলআউট আব্দুর রাজ্জাকের দল। ফতুল্লায় অভিষিক্ত আফিফ হোসেনের সেঞ্চুরিতে প্রথম দিনে ৩ উইকেটে ২৯৩ রান করেছে পূর্বাঞ্চল।

টস জিতে বোলিং নিয়েছিলেন মধ্যাঞ্চলের অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুব। ভালো শুরুর আশা জাগিয়েছিলেন  দক্ষিণাঞ্চলের দুই ওপেনার, কিন্তু পারেননি আশাটা বাঁচিয়ে রাখতে। ফজলে মাহমুদ ও শাহরিয়ার নাফীস, দুজনেই শুভাগতর শিকার। ওয়ানডাউন এনামুল হকও উইকেট দিয়েছেন শুভাগতকে। পরে আল আমিন, জিয়াউর রহমান ও রাজ্জাকের উইকেট নিয়েছেন তিনি। সব মিলিয়ে ২৪ ওভারে ৪টি মেডেনসহ ৯১ রানে শুভাগত নিয়েছেন ৬ উইকেট। এর ফলে ভালো দেখাচ্ছে না দক্ষিণাঞ্চলের স্কোরকার্ডটাও। সর্বোচ্চ ৮২ রান তুষার ইমরানের, সোহাগ গাজী ৪৩ আর মোহাম্মদ মিথুন করেন ৪২ রান। দিনের বাকি ৪ ওভারে ব্যাট করতে নেমে মধ্যাঞ্চলের সংগ্রহ বিনা উইকেটে ৪ রান।

বিপিএলে বোলিং দিয়ে আলোচনায় এলেও আফিফ হোসেন আদতে ব্যাটসম্যান। বিসিএলে সেই পরিচয়ই এলো সামনে। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেকেই সেঞ্চুরি করেছেন যুব দলের সহ-অধিনায়ক। তরুণ আফিফের ১০৫ রানের সঙ্গে অভিজ্ঞ ইমতিয়াজ হোসেনের ৮১ রান, দুজনের ১৯৭ রানের উদ্বোধনী জুটিতে বড় সংগ্রহের ভিত পেয়েছে পূর্বাঞ্চল। প্রথম দিন শেষে উত্তরাঞ্চলের বিপক্ষে তাদের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ২৯৩ রান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

পূর্বাঞ্চল-উত্তরাঞ্চল : পূর্বাঞ্চল : ২৯৩/৩ (আফিফ ১০৫, ইমতিয়াজ ৮১, জাকির ব্যাটিং ৪৮; ইয়াসিন আরাফাত ২/৩৪)।

দক্ষিণাঞ্চল-মধ্যাঞ্চল : দক্ষিণাঞ্চল : ২৬০ (তুষার ইমরান ৮১, সোহাগ গাজী ৪৩, মিথুন ৪২; শুভাগত ৯১/৬)।

মধ্যাঞ্চল : ৪ ওভারে ৪/০ (শাদমান ব্যাটিং ৩, মজিদ ব্যাটিং ০)


মন্তব্য