kalerkantho


ম্যারাডোনা এখন ফিফার দূত

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ম্যারাডোনা এখন ফিফার দূত

একটা সময় ফিফা থেকে দূরেই থাকতেন ডিয়েগো ম্যারাডোনা। সেপ ব্ল্যাটারের কড়া সমালোচক ছিলেন, ফিফার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রিন্স আলীর উপদেষ্টা হয়ে ফিফা ভাইস প্রেসিডেন্ট হওয়ার ইচ্ছাও প্রকাশ করেছিলেন।

শেষ পর্যন্ত জিততে পারেননি আলী, তাই ভাইস প্রেসিডেন্ট হওয়া হয়নি এই কিংবদন্তির। তবে জিয়ানি ইনফান্তিনো প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর সেই বরফ কিছুটা গলেছে। ফিফার দ্য বেস্ট অ্যাওয়ার্ডেও এসেছিলেন ‘আর্জেন্টাইন ফুটবল ঈশ্বর’। এবার ফিফার দূত হলেন ’৮৬-র বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক। ‘স্বচ্ছ ও পরিচ্ছন্ন’ প্রশাসনের ফিফায় দূত হিসেবে ভূমিকা পালনে নিজের অবস্থান নিশ্চিত করেছেন ম্যারাডোনা।

ফেসবুকে নিজের পাতায় সুখবরটা নিশ্চিত করে ম্যারাডোনা জানিয়েছেন, ‘এটাই চূড়ান্ত। অবশেষে আমি আমার দীর্ঘদিনের একটা স্বপ্ন পূরণ করতে পেরেছি। কাজ করব স্বচ্ছ আর জঞ্জালমুক্ত ফিফায়। তাদের সঙ্গে যারা ফুটবলটা ভালোবাসে হৃদয় দিয়ে।

’ একটা সময় ফিফার সঙ্গে সম্পর্কটা তেতো হয়ে উঠেছিল ম্যারাডোনার। ফিফার সাবেক প্রধান সেপ ব্ল্যাটারের সমালোচনাও করেছেন একাধিকবার। যেতেন না ফিফা বর্ষসেরা পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানেও। ব্ল্যাটারের বিদায়ের পর ছবিটা বদলেছে। জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হওয়া এবারের ‘দ্য বেস্ট’ অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণই ছিলেন ম্যারাডোনা। বর্ষসেরা কোচের পুরস্কারটা তুলে দিয়েছিলেন তিনি।

ফিফার মতো ম্যারাডোনা চান আর্জেন্টাইন ফুটবল ফেডারেশনও যেন দুর্নীতিমুক্ত হয়ে ফুটবলের উন্নয়নে কাজ করে। এএফএ-র কাজে ভীষণ হতাশ ’৮৬ বিশ্বকাপজয়ী আর্জেন্টাইন অধিনায়ক, ‘এএফএ এখন আড্ডার জায়গা হয়ে উঠেছে। নেতারা আড্ডা দিয়ে সময় কাটায়। আর বাকি সময়টা খেয়ে। ওরা সভা-সমাবেশ করে ফেলেছে ৫০টির বেশি হোটেলে। এভাবে কাজ করলে দেশের ফুটবলের উন্নয়ন হবে কী করে। ’ ইউরোপিয়ান ক্লাবগুলোতে এখন আর্জেন্টাইন কোচদের দাপট। বেশ কয়েকটি জাতীয় দলের কোচও আর্জেন্টাইন। তবে তাঁদের মধ্যে সেভিয়া কোচ হোর্হে সাম্পাওলিকে এগিয়ে রাখছেন ম্যারাডোনা, ‘সিমিওনি অসাধারণ। তবে এই মুহূর্তে আমি এগিয়ে রাখব সাম্পাওলিকে। সেভিয়ার হয়ে দারুণ করছে ও। ’ এপি


মন্তব্য