kalerkantho


মাগুরা বঙ্গবন্ধু কাপ ফুটবল

শেখ রাসেল ফাইনালে

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



মাগুরা  প্রতিনিধি : মাগুরা বঙ্গবন্ধু কাপের ফাইনালে উঠেছে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। কাল সেমিফাইনালে প্রতিপক্ষ ঢাকা মোহামেডান দুজন অবৈধ খেলোয়াড় মাঠে নামানোয় বাইলজ অনুযায়ী জয়ী ঘোষণা করা হয়েছে শেখ রাসেলকে।

মোস্তফা ও সিও জুনাপিওকে কাল একাদশে রেখেছিল মোহামেডান। কিন্তু তাঁরা এর আগে এই টুর্নামেন্টেই আছাদুজ্জামান ফুটবল একাডেমির হয়ে অংশ নিয়েছিলেন। আছাদুজ্জামান একাডেমি বিদায় নেওয়ায় মোহামেডান এই দুই খেলোয়াড়কে দলে নেয় এবং কাল সেমিফাইনালে মাঠেও নামায়। খেলার মাঝপথে বিষয়টি লক্ষ করে তীব্র প্রতিবাদ করে শেখ রাসেল। পরে আয়োজক কমিটির অনুরোধে এবং দর্শকদের কথা চিন্তা করে রাসেল খেলা চালিয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন দলটির কোচ শফিকুল ইসলাম মানিক।

খেলার চতুর্থ মিনিটেই দাউদা সিসের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল শেখ রাসেল। ১৮ মিনিটে ব্যবধান বাড়ান নাসিরুল ইসলাম। প্রথমার্ধেই ২-০ গোলে এগিয়ে যায় মানিকের দল। দ্বিতীয়ার্ধে আমিনুর রহমান ও তৌহিদুল আলমের গোলে মোহামডান সমতায় ফিরলে ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে।

সেখানে সাডেন ডেথে জিতে যায় মোহামেডান। কিন্তু মানিক তখনো দাবি জানিয়ে রেখেছিলেন, বাইলজ অনুযায়ী যেন শেখ রাসেলকেই জয়ী ঘোষণা করা হয়। শেষ পর্যন্ত তা-ই হয়েছে। খেলা শেষে মাগুরা জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যালয়ে টুর্নামেন্ট কমিটির সভায় অবৈধ খেলোয়াড় মাঠে নামানোর দায়ে মোহামেডানের প্রতিপক্ষ শেখ রাসেলকেই জয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। টুর্নামেন্ট কমিটির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট জিল্লুর রহমান লাজুক তা নিশ্চিত করেছেন। এখন ফাইনালে আবাহনী বা বাংলাদেশ নৌবাহিনীর বিপক্ষে খেলবে শেখ রাসেল। আজ দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে এই দুটি দল।

উল্লেখ্য, বসুন্ধরা সিমেন্টের পৃষ্ঠপোষকতায় আছাদুজ্জামান ফুটবল একাডেমি এই টুর্নামেন্টের আয়োজন করেছে। যেখানে বিভিন্ন জেলা দল ও স্থানীয় ক্লাবের পাশাপাশি আবাহনী, মোহামেডান, শেখ রাসেলের মত দেশের শীর্ষ দলগুলো অংশ নিয়েছে। নৌবাহিনীর সঙ্গে এই তিনটি দলই ওঠে আসে সেমিফাইনালে।


মন্তব্য