kalerkantho


বাজিতে হেরে ডেটিংয়ে

৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



বাজিতে হেরে ডেটিংয়ে

এনএফএল ফাইনালে আটলান্টা ফ্যালকনের বিপক্ষে তখন ২১-০ পয়েন্টে পিছিয়ে নিউ ইংল্যান্ড প্যাট্রিয়ট। টম ব্র্যাডির মতো কিংবদন্তি কোয়ার্টারব্যাক থাকলেও প্যাট্রিয়ট ধীরে ধীরে হারিয়ে যাচ্ছিল ম্যাচ থেকে।

হিউস্টনের এনআরজি স্টেডিয়ামে শিরোপা জয়ের আগাম উত্সবও করছিল ফ্যালকন সমর্থকরা। শতভাগ নিশ্চিত হয়েই গ্ল্যামারার্স টেনিস তারকা ইউজিনি বুশার্ড টুইট করলেন, ‘আমি নিশ্চিত আটলান্টা জিততে যাচ্ছে। ’ কিছুক্ষণ পর আরেকটি টুইট করে জানালেন, ‘কেবল মাত্র ভবিষ্যদ্বাণী করলাম। ’

মানতে না পেরে এক মার্কিন ফুটবল লিগ ভক্তের টুইট, ‘প্যাট্রিয়ট জিতলে আমার সঙ্গে ডেটিংয়ে যাবে?’ ব্র্যাডির দল তখন আরো পিছিয়ে ২৮-৩ পয়েন্টে। স্কোর দেখে খেলার ছলে রাজি হয়ে যান বুশার্ড। এরপর একটু করে ম্যাচে ফিরতে থাকে প্যাট্রিয়ট। তাদের এগোতে দেখে বুশার্ডকে কটাক্ষও করেন কজন। একজন জানতে চান, ‘স্নায়ুর চাপে নাকি!’ জবাবে বুশার্ড বলেন, ‘কিছুটা তো বটেই। ’ অবিশ্বাস্যভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে প্যাট্রিয়ট সুপার বোল ফাইনালটা জিতে যায় ৩৪-২৮ পয়েন্টে।

আর মার্কিন ফুটবল লিগে একমাত্র কোয়ার্টারব্যাক হিসেবে টম ব্র্যাডি ইতিহাসে নাম লেখান পাঁচটি সুপার বোল জিতে।

বাজিতে হেরে অপরিচিত সেই টুইটার ব্যবহারকারীর সঙ্গে অভিসারে যেতে রাজি হন বুশার্ড, ‘হ্যাঁ, আমি ডেটে যাব। কথা দিলে সেটা রাখতেও জানি। ’ সম্মতি পেয়ে বুশার্ডকে সেই টুইটার ব্যবহারকারীর আমন্ত্রণ, ‘শিকাগোয় থাকি। এখানকার মিসৌরি স্কুলে চলে এসো। এরপর তোমার যেখানে খুশি দুজন মিলে সেখানেই যাব। ’ এমন বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়ে বুশার্ডের শিক্ষা, ‘খুব শিক্ষা হলো। আর কখনো টম ব্র্যাডির দলের বিপক্ষে বাজি ধরব না। ’

অপরিচিত সেই টুইটার ব্যবহারকারীর পরিচয় জানা গেছে অবশেষে। তাঁর নাম জন গোর্কে। ২০ বছর বয়সী গোর্কে মিসৌরি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ছেন মার্কেটিংয়ে। ২২ বছর বয়সী কানাডিয়ান তারকা বুশার্ড ক্যারিয়ারে সেরা র্যাংকিংয়ে পৌঁছেছিলেন ৫ নম্বরে। ২০১৪ সালে অস্ট্রেলিয়ান ও ফ্রেঞ্চ ওপেনের সেমিফাইনাল খেলাই তাঁর সেরা অর্জন। এপি


মন্তব্য