kalerkantho


অধিনায়কত্ব ছাড়লেন কুক

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



অধিনায়কত্ব ছাড়লেন কুক

ইংল্যান্ডের সবচেয়ে সফল না হলেও অন্যতম সফল অধিনায়ক তো তাঁকে বলাই যায়। আর সব অধিনায়কের চেয়ে অ্যালিস্টার কুকই থ্রি লায়ন্সকে নেতৃত্ব দিয়েছেন সবচেয়ে বেশি ম্যাচ—৫৯টি।

তবু ভারতে দুঃসহ একটা সিরিজ কাটিয়ে ফেরার পর সেই কুকই নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন গত পরশু। ‘আমার কাছে মনে হয়েছে অধিনায়কত্ব বদলের এটাই সঠিক সময়। তবে আমি খেলা চালিয়ে যেতে চাই’—ইসিবি চেয়ারম্যান কলিন গ্রেভসের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়ে বলেছেন কুক। তাঁর সহ-অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করা জো রুটের হাতেই ব্যাটন উঠছে নতুন নেতৃত্বের।

২০১২ সালে অধিনায়ক হওয়ার পর ২০১৩ ও ২০১৫তে ঘরের মাঠে টানা দুটি অ্যাশেজ জয়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন কুক। শেষবার এক টেস্ট হাতে রেখেই ইংলিশদের সিরিজ জয়ে তো অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটে রীতিমতো ঝড়ই বয়ে গেছে। সে আসরেও কুক-রুট সমান তালে রান তুলেছেন। গতবছর এবং ২০১৩ সালেও আইসিসির সেরা টেস্ট অধিনায়কের পুরস্কার জিতেছেন এই ইংলিশ ক্রিকেটার। ২০১২-তে উইজডেনের সেরা পাঁচ ক্রিকেটারের তালিকায়ও ছিলেন।

টেস্টে ১১ হাজারের ওপর রান করা কুকের ব্যাটিং দেখার সুযোগ থাকছেই, খেলা তো আর এখনই ছাড়ছেন না তিনি। পরবর্তী অধিনায়ককে নিজের সেরাটা দিয়ে সাহায্য করার প্রতিশ্রুতিও তাঁর, ‘ইংল্যান্ডের হয়ে খেলাটা সব সময়ই বড় পাওয়া। আমি আমার ক্যারিয়ারটা আরো এগিয়ে নিতে চাই। দলকে, পরবর্তী অধিনায়ককে সাহায্য করাটাই হবে মূল লক্ষ্য। ’

সাড়ে চার বছর অধিনায়কত্ব করার পর দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর সময়টা সহজ নয়, তবে কুক বিদায় বলেছেন তৃপ্তি নিয়েই, ‘গত পাঁচ বছর ইংল্যান্ডকে নেতৃত্ব দেওয়াটা ছিল দারুণ সম্মানের। বিদায় বলাটা তাই সহজ না, আমার জন্য সত্যিই এটা কষ্টের একটা দিন। তবু আমি ধন্যবাদ দিতে চাই আমার সতীর্থদের, এই সময়ে কোচ হিসেবে যাঁরা ছিলেন এবং সমর্থকদেরও। দেশ এবং দেশের বাইরে তাদের সমর্থনই ছিল সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরণা। ’

অ্যালিস্টার কুকের নেতৃত্বে ৫৯টি ম্যাচের ২৫টি জিতেছে ইংল্যান্ড। অ্যাশেজ জয়ের পাশাপাশি সিরিজ জয় আছে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ভারতের বিপক্ষেও। তবে ভারতের মাটিতে সর্বশেষ সিরিজটি হারতে হয়েছে ৪-০তে। দায়িত্ব ছাড়ার ভাবনা তাঁর এর পরপরই। কাল ইসিবি থেকে জানানো হয়েছে, কুকের পর নেতৃত্ব কার হাতে যাবে তা চূড়ান্ত করার প্রক্রিয়া এরই মধ্যে শুরু করেছেন তাঁরা। তাতে রুটের নামটাই আসছে সবার আগে। ক্রিকইনফো


মন্তব্য