kalerkantho


নিউজিল্যান্ডে ধরাশায়ী অস্ট্রেলিয়াও

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



নিউজিল্যান্ডে ধরাশায়ী অস্ট্রেলিয়াও

দেশের মাটিতে অজেয় হয়ে উঠেছে নিউজিল্যান্ড। টানা তিন বছর কোনো ওয়ানডে সিরিজ হারেনি তারা। হারল না অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে চ্যাপেল-হ্যাডলি সিরিজও। গতকাল শেষ ওয়ানডেতে রোমাঞ্চ ছড়িয়ে অস্ট্রেলিয়াকে ২৪ রানে হারিয়েছে কেন উইলিয়ামসনের দল। হ্যামিল্টনে নিউজিল্যান্ডের ২৮১ রানের জবাবে ৩ ওভার আগে ২৫৭-তে গুটিয়ে যায় সফরকারীরা। তাতে তিন ম্যাচের সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতে নেয় নিউজিল্যান্ড। এ নিয়ে ২০১৫ সালের জানুয়ারি থেকে দেশের মাটিতে টানা অষ্টম ওয়ানডে সিরিজ জিতল তারা। এর মধ্যে অস্ট্রেলিয়াকেই হারিয়েছে তিনবার। দেশের মাটিতে ২০০২ থেকে ২০০৯ পর্যন্ত টানা ১৭ সিরিজ জেতার রেকর্ডটা অবশ্য দক্ষিণ আফ্রিকার।

এবারের চ্যাপেল-হ্যাডলি সিরিজের প্রথম ম্যাচ ৬ রানে জেতার পর দ্বিতীয় ওয়ানডে ভেসে গিয়েছিল বৃষ্টিতে। গতকাল সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে রস টেলরের ঐতিহাসিক সেঞ্চুরিতে নিউজিল্যান্ড ৯ উইকেটে করেছিল ২৮১ রান।

১০১ বলে ১৩ বাউন্ডারিতে ১০৭ করা টেলরের ওয়ানডেতে এটা ১৬তম সেঞ্চুরি, যা কিউই ব্যাটসম্যানদের মধ্যে যৌথ সর্বোচ্চ। তাঁর সমান ১৬টি সেঞ্চুরি আছে নাথান অ্যাস্টেলেরও। তিন বছর পর জাতীয় দলে ফেরা ডিন ব্রাউনিল করেছিলেন ৭৮ বলে ৬৩। সমান ৩টি করে উইকেট মিচেল স্টার্ক ও জেমস ফকনারের।

জবাবে অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চের ফিফটির পরও ১৭৪ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিল অস্ট্রেলিয়া। তবে সাধ্যমতো লড়ছিলেন টেল এন্ডাররা। প্রথম ওয়ানডের সেঞ্চুরিয়ান মার্কাস স্টয়নিস করেছিলেন ৪৮ বলে ৪২। একটা সময় ৫৪ বলে অস্ট্রেলিয়ার দরকার ছিল ৭৫ রান। নিজের শেষ দুই ওভারে মিচেল স্যান্টনার দেন ৩০ রান। তাতে লক্ষ্য কমে দাঁড়ায় ৩৬ বলে ৩৫, হাতে তখনো ৩ উইকেট। প্যাট কামিন্স ২৭ আর মিচেল স্টার্ক করেছিলেন ২৯*। কিন্তু নাটক জমতে জমতেও জমেনি ট্রেন্ট বোল্টের কারণে। নিজের করা ৮ বলের ব্যবধানে শেষ ৩ উইকেট নিয়ে কিউইদের ২৪ রানের জয় এনে দেন এই পেসার। ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে ৩৩ রানে ৬ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরার পুরস্কারটাও পেয়েছেন বোল্ট। ক্রিকইনফো

নিউজিল্যান্ড : ৫০ ওভারে ২৮১/৯ (টেলর ১০৭, ব্রাউনলি ৬৩, সান্টনার ৩৮*, উইলিয়ামসন ৩৭; স্টার্ক ৩/৬৩, ফকনার ৩/৫৯)।

অস্ট্রেলিয়া : ৪৭ ওভারে ২৫৭ (ফিঞ্চ ৫৬, হেড ৫৩, স্টয়নিস ৪২, স্টার্ক ২৯*; বোল্ট ৬/৩৩, স্যান্টনার ২/৫০)।

ফল : নিউজিল্যান্ড ২৪ রানে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : ট্রেন্ট বোল্ট।

সিরিজ : নিউজিল্যান্ড ২-০ ব্যবধানে জয়ী।


মন্তব্য