kalerkantho


চলে গেলেন ‘ডলি আপা’

৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



চলে গেলেন ‘ডলি আপা’

ক্রীড়া প্রতিবেদক : কোন খেলাটা পারতেন না ‘ডলি আপা’, এটা বড় ধাঁধা হতে পারে। অ্যাথলেটিকস, সাইক্লিং, হকি, ব্যাডমিন্টন, কাবাডি, ভলিবল, হ্যান্ডবল, সাঁতার, ক্রিকেটসহ ক্রীড়াঙ্গনের সব শাখায় ছিল তাঁর সদর্প বিচরণ।

প্রথমে খেলোয়াড় এবং পরে সংগঠক হিসেবে। আর আজ হয়ে গেছেন স্মৃতির মানুষ! প্রিয় ক্রীড়াঙ্গনকে পেছনে ফেলে ধরাধামের মায়া ত্যাগ করে ডলি ক্যাথরিন ক্রুজ গতকাল ভোর ৬টায় পাড়ি জমিয়েছেন অন্যলোকে।

১৯৫৬ সাল থেকে তাঁর ক্রীড়াঙ্গনের ক্যারিয়ার শুরু। অ্যাথলেটিকসই ছিল তাঁর আসল জায়গা। শটপুট ও ডিসকাস থ্রো-ই ছিল তাঁর মূল খেলা, দুই ইভেন্টে দীর্ঘদিন শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখার জন্য ডলি ক্যাথরিন ক্রুজকে ১৯৮২ সালে জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কারে ভূষিত করা হয়। অ্যাথলেটিকস এবং অন্যান্য খেলায় বিভিন্ন প্রাদেশিক প্রতিযোগিতায় ৫০টিরও বেশি সোনার পদক জেতেন এই সব্যসাচী ক্রীড়াবিদ। ৭২ বছরের পুরো জীবনই কেটেছে তাঁর ক্রীড়াঙ্গনে, বিয়ে-সংসার এসব নিয়ে ভাবারও যেন সময় পাননি। খেলা ছাড়ার পর জাতীয় মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সঙ্গে জড়িত ছিলেন তিনি, সহসভাপতির দায়িত্বও পালন করেছিলেন। মৃত্যুর পর তাই কৃতী ক্রীড়াবিদকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল ধানমণ্ডির সুলতানা কামাল মহিলা ক্রীড়া সংস্থার চত্বরে।

ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি রাফিয়া আক্তার ডলি, সাধারণ সম্পাদক কামরুন নাহার ডানা, শামীমা সাত্তার মিমুসহ অন্য সদস্যরা ফুলেল শ্রদ্ধায় বিদায় দিয়েছেন কীর্তিময়ী নারীকে। তেজগাঁও চার্চের কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হয়েছেন তিনি।

 


মন্তব্য