kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

ব্যাটে-বলে হয়েও যেতে পারে!

৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ব্যাটে-বলে হয়েও যেতে পারে!

বসুন্ধরা বাংলাদেশ ওপেনের সেই প্রথম আসর থেকে সিদ্দিকুর  রহমানকে ঘিরে স্বাগতিকদের শিরোপা স্বপ্ন। প্রথম দুই আসরে একেবারেই হতাশ করেছেন। কিন্তু এবারের টুর্নামেন্টের শেষ রাউন্ড পর্যন্ত আশার আলোটা জ্বালিয়ে রেখেছেন তিনি। কালও একটা ভালো দিন কাটিয়ে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছেন দেশসেরা এই গলফার

 

প্রশ্ন : আজ শেষটা তো ভালোই ছিল, শুরুটাও এমন হলে তো আরো ভালো অবস্থানে থাকতেন...

সিদ্দিকুর রহমান : এটাই খেলা। শুরুটা খারাপ বলব না। হয়তো ওই খেলাটাই পরে আমাকে আরো ভালো করতে তাড়না দিয়েছে। শুরুর ওই হিসেবে আমি খুব ভালো কামব্যাক করেছি। তো এখনো একটি দিন হাতে আছে। আমি এই শেষ রাউন্ডটার জন্য সত্যি মুখিয়ে আছি।

প্রশ্ন : শীর্ষে থাকা জ্যাজ ৫ শটে এগিয়ে আছেন, তিনি খুব ধারাবাহিকও...

সিদ্দিক : ওইদিকে খেয়াল না করলেই বেশি ভালো হবে। আমি যদি আমার খেলার ওপর মনোযোগটা রাখি তাহলেই যেকোনো একটা কিছু হতে পারে ।

প্রশ্ন : শেষ দিনটা লিডার গ্রুপে খেলবেন, সেটি কি চাপ হবে?

সিদ্দিক : স্বাভাবিকভাবেই চাপটা আসতে পারে। তবে আমি তা নিতে চাইছি না। আজ তো লিডার গ্রুপের চেয়ে আমার গ্রুপেই বেশি দর্শক ছিল। তাঁদের প্রতি সে জন্য আমার কৃতজ্ঞতাও। তো এই দর্শক, উৎসাহ আমাকে বরং অনুপ্রাণিত করবে—এটাই আমি আশা করি।

প্রশ্ন : আজ (গতকাল) যে লক্ষ্য নিয়ে দিন শুরু করেছিলেন তার কতটা পূরণ হয়েছে?

সিদ্দিক : আমার লক্ষ্য আসলে ওরকম ছিল না। আমার লক্ষ্য ছিল আমার পুরো গেমটার ওপর। প্রতিটি শটের ওপর মনোযোগ ছিল, সেটা নিয়েই ভেবেছি। প্রথম কয়েকটি হোলে খেলা অতটা ভালো হয়নি কিন্তু শেষ দিকে বেশ ভালো হয়েছে। দিন শেষে বলতে গেলে আমার সব শট নিয়েই আমি খুশি।

প্রশ্ন : তো শেষ দিন ৫ শটের ব্যবধান কি ঘোচানো সম্ভব?

সিদ্দিক : যেকোনো কিছুই আসলে হতে পারে। কাল (আজ) আমাকে ‘এক্সেপশনালি’ ভালো খেলতে হবে। তা না হলে হবে না। কারণ তারাও তো খেলবে। আমাদের সবারই এখন মাঠ চেনা হয়ে গেছে। আমার মনে হয় যে আগামীকাল যে একটা এক্সপেশনাল রাউন্ড খেলতে পারবে, তারই একটা ভালো সুযোগ শিরোপা জেতার।

প্রশ্ন : আপনার সামনে নিশ্চয় ‘ডু অর ডাই’ চ্যালেঞ্জ?

সিদ্দিক : কাল খেলাটা আসলে ধরা যাবে প্রথম কয়েকটা হোলের পরই। গেমটা পুরোটাই নির্ভর করে ‘রিদমের’ ওপর। খেলোয়াড়রা শরীরের রিদমটা বুঝতে পারে। তখন যদি দেখা যায় যে শরীর, সুইং সব কিছুই পজিটিভ এবং চলছে তাহলে শেষ চেষ্টা করতে দোষ কী! ব্যাটে-বলে হয়েও যেতে পারে আজ।


মন্তব্য