kalerkantho


চার পেসার নিয়ে ভারত সফরে বাংলাদেশ

২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



চার পেসার নিয়ে ভারত সফরে বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ডাবল সেঞ্চুরির দেখাটা তাহলে মোক্ষম সময়েই পেয়েছিলেন লিটন কুমার দাশ! বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টিতে আগেরবারের চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের এবারের ভরাডুবিতে অনেকটা দায় আছে তাঁরও, বিপিএলটা যে ভুলে যাওয়ার মতোই কেটেছিল তাঁর। এরপর জাতীয় ক্রিকেট লিগে ৩ ম্যাচের ৬ ইনিংসে দুটি হাফসেঞ্চুরি থাকলেও তা ঠিক লিটনের নামের সঙ্গে মানানসই ছিল না। এরপর নানা কারণে পিছিয়ে মাঠে গড়ানো বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) প্রথম ম্যাচেই ডাবল সেঞ্চুরি! তাও আবার সেটি ভারত সফরের দল ঘোষণার ঠিক আগে। দলের ৩৬৭ রানের মধ্যে লিটনের একারই ২১৯ রান। পুরস্কারটাও তাই হাতেনাতেই পেয়ে গেলেন তিনি। ভারতে প্রথমবারের মতো টেস্ট খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ, ঐতিহাসিক এই সফরের অংশ হতে আজ সকালে নভো এয়ারের বিমানে চড়ছেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানও। একই ফ্লাইটে লিটনের সঙ্গী শফিউল ইসলামও। বিপিএলটা দারুণ কাটিয়ে শেষ দিকে এসে চোট পেয়ে নিউজিল্যান্ডের ফ্লাইট মিস করা এই পেসার ফিরেছেন টেস্ট দলে। তবে ঘোষিত ১৫ জনের দলে নেই মুস্তাফিজুর রহমানের নাম। কারণ ব্যাটসম্যানদের কাছে তাঁর বল যেমন রহস্য, তেমনি তাঁর ফিটনেস ঘিরেও যে রহস্যের মেঘ! ফিজিও বলছেন ব্যথা নেই, তবু মনের ভয়েই খেলতে চাইছেন না কাটারমাস্টার। তাই তো নির্বাচকরাও ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে, ভারত সফরের দলে মুস্তাফিজকে না রেখে পাঠাতে চাইছেন বিসিএল খেলতে।

নিউজিল্যান্ড সফরের শেষ দিকে এসে চোটের থাবায় ক্রমেই সংক্ষিপ্ত হতে থাকা বাংলাদেশ দলের এমন অবস্থা হয় যে স্রেফ অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য নিউজিল্যান্ড যাওয়া নাজমুল হোসেনেরও (শান্ত) টেস্ট অভিষেক হয়ে যায়! তাই খুব স্বাভাবিকভাবেই ক্রাইস্টচার্চ টেস্টের দলের সঙ্গে ভারত সফরের দলে বেশ পার্থক্য। চোট কাটিয়ে ফিরেছেন ইমরুল কায়েস, মমিনুল হক ও মুশফিকুর রহিম। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীনের ভাষায় ‘উইকেটের পেছনে অধিনায়কই অটোমেটিক চয়েজ। ’ সঙ্গে মুশফিকের ব্যাটিংটাও দলের বড় ভরসা। এই ‘ডাবল রোল’ ভালো সামলানোর দক্ষতায় দলে ঢুকে গেছেন  লিটন  দাশও।   এই সমীকরণেই বাদ পড়েছেন নুরুল হাসান, অথচ শুধু উইকেটকিপিং দক্ষতা আমলে নিলে নুরুল হাসান যে দেশের সেরা, সেটি সংবাদ সম্মেলনে নিজেই বলেছেন প্রধান নির্বাচক।

নিউজিল্যান্ডে একটি ম্যাচও না খেলা বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলামের সঙ্গে মেহেদী হাসান মিরাজ তো আছেনই, সঙ্গে সাকিব আল হাসানের স্পিন বোলিং যোগ করলে স্কোয়াডে ঘূর্ণি বোলার তিনজন। অথচ ভারত সফরের ১৫ জনের দলে পেসার রাখা হয়েছে চারজন! রুবেলের জায়গায় এসেছেন শফিউল; সঙ্গে তাসকিন আহমেদ, শুভাশীষ রায় ও কামরুল ইসলাম রাব্বিসহ চার পেসার নিয়ে ভারত যাচ্ছে বাংলাদেশ। শুধু তা-ই নয়, একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে পেসারদের বিশ্রাম দেওয়ারও পরিকল্পনা আছে টিম ম্যানেজমেন্টের।

সংবাদ সম্মেলনেই নির্বাচকরা জানিয়েছেন, প্রস্তুতি ম্যাচে বিশ্রামে থাকবেন তাসকিন, এমনকি এই একটি মাত্র প্রস্তুতি ম্যাচের জন্য স্কোয়াডের বাইরের একজন পেসারকেও ভারতে নিয়ে যাওয়া হবে, যাঁর নাম তাঁরা পরে জানাবেন। অথচ হায়দরাবাদে এই একমাত্র টেস্টের জন্য ঘোষণা করা দলে চারজন সিপনার রেখেছে স্বাগতিক ভারত; দুজন অফস্পিনারের সঙ্গে একজন বাঁহাতি স্পিনার ও একজন লেগ স্পিনার। ভারত বাংলাদেশের এক দিন আগেই ঘোষণা করেছে দল, মিনহাজুল বলেছেন ভারতের দল দেখেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁরা। যদিও কোচ ও নির্বাচক চন্দিকা হাতুরাসিংহের কথায় সে আভাস নেই। তিনি বললেন, ‘আমরা জানি না কন্ডিশন কেমন হবে। তাই পেস ও স্পিন সব বিভাগকেই শক্তিশালী করা হয়েছে। ’ মুশফিক, ইমরুল ও মমিনুলের ফেরায় মধুর সমস্যায় বাংলাদেশ। কারণ ইমরুলের অবর্তমানে টেস্ট ওপেনার বনে গিয়ে ক্রাইস্টচার্চে ৮৪ ও ৩৬ রানের দুটো ইনিংস খেলে যে একাদশে জায়গা ধরে রাখার জোরালো দাবি জানিয়ে রেখেছেন সৌম্য সরকারও।


মন্তব্য