kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

আত্মমর্যাদা বিসর্জন দিয়ে কাজ করব না

দুই ম্যাচ ধরে মোহামেডান কোচহীন। খেলোয়াড় তালিকায় জসিম উদ্দিন জোসির নাম থাকলেও তাঁর উপস্থিতি নেই। এর মধ্যে তারা যেমন শেখ জামালকে হারিয়ে প্রথম জয় পেয়েছে, তেমনি হেরেছেও তলানির দল উত্তর বারিধারার সঙ্গে। এসব নিয়েই কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়েছেন জোসি

১৯ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



আত্মমর্যাদা বিসর্জন দিয়ে কাজ করব না

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : দুই ম্যাচ ধরে মোহামেডানের ডাগ আউটে নেই কোচ জসিম উদ্দিন জোসি। এর কারণ কী?

 

জসিম উদ্দিন জোসি : সিলেট পর্ব শেষ করে ফেরার পর আমি ক্লাবে গিয়েছিলাম নিয়মানুযায়ী প্র্যাকটিস করাতে। কিন্তু ক্লাবের পরিবেশ-পরিস্থিতি দেখে আমার ভালো লাগেনি, এর পর থেকে আমি আর যাচ্ছি না। আমাকেও তারা ডাকেনি। আমি কেন নেই, ক্লাব ম্যানেজমেন্টই এর ভালো ব্যাখ্যা দিতে পারবে।

প্রশ্ন : সরে দাঁড়ানোর ব্যাখ্যাটা যদি আপনার মুখে শুনতে পেতাম...

জসিম উদ্দিন : আমি কম্প্রোমাইজ করে থাকতে রাজি নই। যেখানে আমি ভালোবাসা দিয়ে কাজ করি, সেখানে যদি আত্মমর্যাদা বিসর্জন দিতে হয়...। এর বেশি কিছু আমি বলতে পারব না।

প্রশ্ন : কিন্তু আপনাকে ছাড়া মোহামেডান প্রথম জয় পেয়েছে শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাবকে হারিয়ে।

জসিম উদ্দিন : মোহামেডান জিতেছে, আমি খুশি। তারা আরো জিতুক, সেটাই কামনা করি। তবে আমি মাঠের খেলার বিষয়ে অভিজ্ঞ। আমি বুঝি শুধু মাঠের খেলা, এর জন্য সাধনা করতে হয়, লেখাপড়া করতে হয়। ফুটবল খেলাটা আমার কাছে পবিত্র জিনিস। মাঠের বাইরের খেলা আমি বুঝি না, বুঝতেও চাই না।

প্রশ্ন : গতবার আপনার অধীনেই মোহামেডান তৃতীয় হয়েছিল লিগে। এবার শুরু থেকেই খারাপ করছে কেন?

জসিম উদ্দিন : সেবারও যে খুব ভালো খেলোয়াড় ছিল, তা নয়। এবার মোহামেডানে কারা খেলছে, আপনারা জানেন। এর পরও আমি সাধ্যমতো চেষ্টা করেছি এই দলটাকে নিয়ে ভালো করতে। তাদের মাঠের খেলা কিন্তু অত খারাপ নয়, খেলার ধারা ধরলে অনেক ম্যাচে আমরা পয়েন্ট পাইনি। আমি যখন ছিলাম, তখন মোহামেডানের ৯ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট। মধ্যবর্তী দলবদলে কয়েকজন নতুন খেলোয়াড় নিয়ে ভালো দলটাকে আরো শক্তিশালী করার কথা ভাবছিলাম।

প্রশ্ন : মোহামেডানের মতো ঐতিহ্যবাহী দল শক্তিশালী দল গঠন করে না। এটাও কি আমাদের ফুটবল পেছানোর অন্যতম কারণ?

জসিম উদ্দিন : এটা বিশ্লেষকরা দেখবেন। আমি মোহামেডানের সদস্য হিসেবে যেটা বুঝি, এ দলটি সব সময় একটা নির্দিষ্ট মান বজায় রেখে দল গঠন করবে। শিরোপার জন্য লড়াই করবে। আমাদের সময়ে এবং তার পরেও জাতীয় দলের ছয়-সাতজন খেলোয়াড় ছাড়া কখনো দল হয়নি, যে দলকে সব সময় সমীহ করত আবাহনী। সেই ধারাটা নষ্ট হয়ে গেছে।

প্রশ্ন : সাবেক ফুটবলার হিসেবে মোহামেডানের এ অবস্থা আপনাকে কষ্ট দেয় না?

জসিম উদ্দিন : অবশ্যই দেয়। মনপ্রাণজুড়ে আমার মোহামেডান, যে অবস্থায়ই থাকি সব সময় তার জন্য শুভ কামনা করি।


মন্তব্য