kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মেসি-গার্দিওলা আবার...

১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



মেসি-গার্দিওলা আবার...

আগামীকাল চ্যাম্পিয়নস লিগে এই রাউন্ডের সবচেয়ে আকর্ষণীয় দ্বৈরথে মুখোমুখি হচ্ছে বার্সেলোনা-ম্যানচেস্টার সিটি। যে ম্যাচের আগে বার্সা কোচ লুই এনরিকে যথেষ্টই আত্মবিশ্বাসী।

দেপোর্তিভো লা করুনার বিপক্ষে ৪-০ গোলে জেতা ম্যাচে লিওনেল মেসি শুধু ইনজুরি কাটিয়েই ফেরেননি, ফর্মেও ফিরেছেন। সিটি কোচের কাছে সেই বার্তাও পৌঁছে দিয়েছেন কাতালান কোচ, ‘মেসি যেন নতুন হয়ে ফিরেছে। সে এখন ফর্মের চূড়ায়। ’

ইনফর্ম মেসিকে সামলানো কতটা কঠিন তা নিশ্চয় বলে দিতে হবে না গার্দিওলাকে। গত পরশুই কাতালান জার্সি গায়ে এক যুগ পূরণ হলো তাঁর। তার আগের দিন লা করুনার বিপক্ষে ইনজুরি থেকে ফিরে সেই উপলক্ষটা কি দারুণভাবেই না উদ্‌যাপন করেছেন মেসি। মাঠে নামার তৃতীয় মিনিটেই করেছেন অসাধারণ এক গোল। ন্যু ক্যাম্পে তাঁর ৩০ মিনিটের উপস্থিতিতে আর সব আলো যেন ছাপিয়ে গেছে। তাঁর প্রতিটা ড্রিবল, মুভমেন্টে নিশ্চয় শিহরণ বয়ে গেছে ম্যানচেস্টার সিটির সমর্থকদের মধ্যেও।

২০০৪ সালের ১৬ অক্টোবর ১৭ বছর বয়সে এস্পানিওলের বিপক্ষে মেসির অভিষেক বার্সার জার্সি গায়ে। এর পর থেকে ফুটবলটাই যেন বদলে গেছে। বার্সায় সেই সময় থেকে চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেন তিনজন কোচ, চারজন জিতেছেন লা লিগা। আর মেসি? পাঁচটি ফিফা ব্যালন ডি’অর, চারটি চ্যাম্পিয়নস লিগ, আটটি লা লিগা সঙ্গে আরো ডজনখানেক অন্যান্য ট্রফি ও গোলের অসংখ্য রেকর্ডের অনন্য ডালি সাজিয়েছেন তিনি। মেসি নিজেই পৌঁছেছেন অনন্য এক উচ্চতায়। কাল গার্দিওলা পারবেন সেই মেসিকে ফেরাতে? ২০১২ সালে তিনি বার্সেলোনা ছাড়ার পর একটি মৌসুমেই মুখোমুখি হয়েছিলেন মেসির। ২০১৪-১৫ মৌসুমের সেই সেমিফাইনালে খুদে জাদুকরের জোড়া গোলেই ন্যু ক্যাম্পে ৩-০ গোলে হেরে চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে ছিটকে পড়েছিল গার্দিওলার বায়ার্ন মিউনিখ, ট্রেবল জেতে বার্সা। গার্দিওলার এবারের ম্যান সিটিও মেসির কারণেই বার্সার চেয়ে পিছিয়ে। তবে এটা বলতেই হবে মেসি আজ যে অবস্থানে সে জন্য আর্জেন্টাইন তারকা তাঁর এই সাবেক কোচের কাছে কৃতজ্ঞ না থেকে পারেন না। রোনালদিনহোময় বার্সা যুগ শেষে তাঁর হাত ধরেই তো শুরু মেসি যুগের। তিনিই প্রথম বার্সা তারকাকে উইং থেকে সেন্ট্রাল পজিশনে খেলিয়ে আরো ধারালো করে তোলেন। সেই শিষ্যের মুখোমুখি হওয়াটা এখন তাঁর জন্যও আর সহজ না। দ্য সান


মন্তব্য