kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মুখোমুখি প্রতিদিন

এই গরমে স্পিনারদেরই বেশি বোলিং করতে হবে

দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে খেলা মাঠে গড়াতে পেরেছে এবং তাতে অল্পবিস্তর বোলিং করেই এখানকার কন্ডিশনের চ্যালেঞ্জটা টের পেয়েছেন স্টুয়ার্ট ব্রড। ইংল্যান্ডের এই ফাস্ট বোলার সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তাই টেস্টে স্পিনারদের ওপরই বেশি নির্ভরতার কথাও জানিয়ে রাখলেন

১৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



এই গরমে স্পিনারদেরই বেশি বোলিং করতে হবে

প্রশ্ন : অবশেষে তো মাঠে নামা হলো...।

 

স্টুয়ার্ট ব্রড : হ্যাঁ, আজ সকালে মাঠে আসার সময়ও নিশ্চিত ছিলাম না যে খেলাটা আদৌ শুরু করা যাবে কিনা।

কারণ গত চার দিনে তো প্রচুর বৃষ্টি হয়েছে। যাক, অবশেষে কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার প্রস্তুতি তো কিছুটা হলো।

প্রশ্ন : এই মাঠে (এমএ আজিজ স্টেডিয়াম) খেলার অভিজ্ঞতা কেমন?

ব্রড : এটা আসলে ফুটবলের মাঠ। কাজেই আউটফিল্ড মোটেও ক্রিকেটের জন্য আদর্শ ছিল না। তা ছাড়া মাটিও ভেজা ছিল। আমরা তো ম্যাচটি এই ভেবেই খেলছিলাম যে পুরো ৪৫ ওভারই বোধ হয় স্পিনারদের দিয়ে করাতে হবে। পুরো রানআপের জায়গাটা ভেজা থাকায় পেসারদের নিয়ে ঝুঁকিও ছিল। তার পরও পেসাররা কয়েক ওভার করে বোলিং করে প্রস্তুতি কিছুটা সেরে নেওয়ার চেষ্টা করেছে।

প্রশ্ন : আপনার জন্য মাঠে নামার ব্যাপারটি অন্য রকমই হওয়ার কথা।

ব্রড : ঠিক বলেছেন, গত তিন সপ্তাহ আমার ইনডোরেই কেটেছে বলতে পারেন। তাই মাঠে নামাটা আমার জন্য দারুণ ব্যাপারই ছিল। ম্যাচ খেলার আগে মাঠে পর্যাপ্ত সময় পার করা খুব দরকারও।

প্রশ্ন : এখানকার আবহাওয়ায় বোলিং করা কতটা কঠিন হবে বলে মনে করেন?

ব্রড : আজ তো প্রচণ্ড গরম পড়েছে। বোলিংয়ের জন্য যা বেশ কঠিন কন্ডিশনও। বিশেষ করে অন্য প্রান্তে স্পিনাররা বোলিংয়ে থাকায় পেসারের পালাও খুব দ্রুতই এসে যাচ্ছিল।

প্রশ্ন : এই কন্ডিশনে তাহলে ইংলিশ পেসারদের লম্বা স্পেলে দেখা যাওয়ার সম্ভাবনা কম?

ব্রড : অভিজ্ঞতা থেকে জানি, এই কন্ডিশনে সাত কিংবা আট ওভারের স্পেলে বোলিং করার চেষ্টার কোনো অর্থই হয় না। কারণ এতে আপনি দ্রুত ক্লান্ত হয়ে পড়বেন। জো (রুট) আজ আমাদের চার ওভার করে ব্যবহার করেছে। যেটি বেশ ভালোই মনে হয়েছে আমার। আগামী কয়েক দিনে হয়তো আমি একেক স্পেলে পাঁচ কিংবা ছয় ওভার করে বোলিংয়ের চেষ্টা করব। তবে এই শীতে ভারতীয় উপমহাদেশ সফরে আমাদের পেসারদের অবশ্যই ১০ ওভারের স্পেল করতে দেখবেন না। কারণ কন্ডিশন সেটিকে অনুমোদনই করবে না। কাজেই আমরা সম্ভবত স্পিনারদেরই বেশি ব্যবহার করব।

প্রশ্ন : টেস্ট অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুকের কী খবর?

ব্রড : আমি যত দূর জানি, ও টেস্টের আগেই ফিরছে। আজও ওর সঙ্গে কিছুক্ষণ কথা হলো। ফিরে আসার বিষয়ে তো বেশ আত্মবিশ্বাসীই শোনাল ওকে। অবশ্যই পরিবার সবার আগে এবং আমি নিশ্চিত যে অন্য রকম কিছু ঘটে গেলে সে তার স্ত্রীর পাশে থেকেই সব কিছু দেখভাল করার চেষ্টা করবে। তবে আমরা আশাবাদী যে ওকে টেস্টে পাচ্ছি।


মন্তব্য