kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সমস্যাটা কোথায় বুঝতে পারছেন না সৌম্য

১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ক্রীড়া প্রতিবেদক : একই শহরের দুই মাঠ। কিন্তু এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের সঙ্গে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের কত পার্থক্য!

চট্টগ্রামের দুই মাঠের মধ্যে এমএ আজিজ স্টেডিয়াম এগিয়ে ঐতিহ্যে; জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম আধুনিকতায়।

যে কারণে টানা তিন দিনের ঝুম বৃষ্টির পরও বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড তৃতীয় ওয়ানডে হয়ে যায় পরের মাঠে। অথচ প্রথমটিতে কাল শুরু হতে পারে না ইংল্যান্ডের সঙ্গে বিসিবি একাদশের দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ। যদিও কাল চট্টগ্রামে বৃষ্টি হয়নি কোনো। তবে আগের বৃষ্টিতে আউটফিল্ডের এমন জেরবার অবস্থা যে, সাত সকালেই পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয় দিনের খেলা। আজ দুই দলের ৪৫ ওভারের যে প্রস্তুতি ম্যাচের পরিবর্তিত সূচি, সামান্য বৃষ্টির বাগড়াতেই ভেস্তে যেতে পারে তা।

মাঠের দুরবস্থায় খেলা হয়নি কাল। নিজেদের দুরবস্থা কাটানোর পথে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ তাই পেলেন না সৌম্য সরকার। এই চট্টগ্রামেই গত বছর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ নির্ধারণী ওয়ানডেতে খেলেছিলেন ৯০ রানের দুর্দান্ত ইনিংসটি। কিন্তু এরপর প্রথমে ইনজুরি, পরে ফর্মের লুকোচুরিতে জায়গা হারিয়ে ফেলেন একাদশ থেকে। তাঁর বদলি হিসেবে নেমে ওয়ানডেতে দুর্দান্ত খেলেছেন ইমরুল কায়েস। টেস্ট স্কোয়াডে তো ওই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানের জায়গা আগে থেকেই পাকা। কাল প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিন পরিত্যক্ত হওয়ায় তাই খেলতে না পারার হাপিত্যেশ সৌম্যের কণ্ঠে, ‘আমাদের একটি ম্যাচ খেলার সুযোগ ছিল। কাল (আজ) যদি ব্যাটিংয়ের সুযোগ পাই, ভালো হবে। ’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাঁর শুরুটা চোখ ধাঁধানো। এখন দিক হারানো সৌম্য প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে না পারার আক্ষেপে পোড়েন। জাতীয় দলটা যে এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের কাছে দূরের দিগন্ত হয়ে গেছে, তা তো জানেন তিনি। বিশেষত ওয়ানডেতে ইমরুলের সাফল্যের পর। তা মেনে নিয়েও নিজের সঙ্গে লড়াইয়ের প্রত্যয় কাল খেলে যায় সৌম্যর কণ্ঠে, ‘আমার বাজে সময় গেছে। আর এখন তো ইমরুল ভাই ভালো ব্যাটিং করছেন। তবে আমার সব সময়ের চ্যালেঞ্জ নিজের সঙ্গে। যেখানে আগের চেয়ে ভালো খেলতে চাই। ওভাবেই নিজেকে প্রস্তুত করি সব সময়। ’ কিন্তু তাতে তো ইদানীং লাভ হচ্ছে না। আরো আশঙ্কা হলো, নিজের সমস্যাটাই ধরছে পারছেন না সৌম্য। কাল তা নিজেই স্বীকার করেন, ‘আসলে সমস্যা যে কোথায় নিজেও জানি না। সব সময়ই চেষ্টা করছি বাজে সময় থেকে বের হওয়ার জন্য। আসলে সবার ক্যারিয়ারে এমন সময় আসে। কে কত দ্রুত বের হতে পারে, সেটাই হচ্ছে বিষয়। ভালো হয়েছে আমার ক্যারিয়ারের শুরুতেই এটা আসছে। যদি এটা কাটিয়ে উঠতে পারি, খুব ভালো হবে। ’

সৌম্য ফর্ম খুঁজে ফিরছেন, ওদিকে দারুণ ফর্ম দেখিয়ে গ্যারেথ ব্যাটি জায়গা করে নেন ইংল্যান্ড টেস্ট স্কোয়াডে। পরশু যাঁর ছিল ৩৯তম জন্মদিন। ‘ক্যারিয়ারের শেষ বেলায় এটি দারুণ সুযোগ’—কাল উচ্ছ্বাসের সঙ্গে বলছিলেন এই অফ স্পিনার। বাংলাদেশের প্রবল প্রশংসাও করেন ব্যাটি, ‘বাংলাদেশ অনেক এগিয়েছে। ওদের বিপক্ষে খেলা হবে বড় চ্যালেঞ্জ। ’

 


মন্তব্য