kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আমিই বিশ্বসেরা

দাবি রোনালদোর

১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



আমিই বিশ্বসেরা

বছরে আয় ৮৮ মিলিয়ন ডলারের কাছাকাছি, ফোর্বসের হিসাবে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোই ক্রীড়াবিদদের মধ্যে সবচেয়ে ধনী। ফেসবুকে রোনালদোর পাতা পছন্দ করেছেন, অর্থাৎ রোনালদোর পাতায় লাইক দিয়ে সংযুক্ত আছেন ১০ লাখ মানুষ! অ্যাকাউন্ট সব দিকেই ফুলে-ফেঁপে উঠছে সিআর সেভেনের।

মাঠের সময়টাও কাটছে দারুণ, এ বছরেই তো জিতেছেন ইউরোপের সেরা দুটি আসর; চ্যাম্পিয়নস লিগ ও ইউরোর শিরোপা। বৃহস্পতিবার আরো একটা সম্মাননা পেলেন ‘পর্তুগিজ যুবরাজ’। স্প্যানিশ ক্রীড়াদৈনিক মার্কা ও ইতালিয়ান ক্রীড়াদৈনিক গ্যাজেত্তা দেল্লো স্পোর্তোর যৌথ উদ্যোগে, এই দুই পত্রিকার পাঠক জরিপে চ্যাম্পিয়নস লিগের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন রোনালদো। আসরে সর্বোচ্চ ১৬ গোল করার পাশাপাশি ফাইনালে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ পঞ্চম পেনাল্টি কিকে গোল করে রিয়ালের ‘উন-দেসিমা’ নিশ্চিত করেছিলেন তিনি। পুরস্কারপ্রাপ্তির পর দেওয়া সাক্ষাৎকারে রোনালদো দাবি করেছেন, তিনিই বিশ্বের সেরা ফুটবলার।

‘আমার কাছে আমিই বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়, আর আমি প্রতিনিয়তই নিজেকে আরো ছাপিয়ে যাওয়ার উচ্চাকাঙ্ক্ষা নিয়ে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছি। এরপর আমাকে মূল্যায়ন করাটা অন্যদের ব্যাপার’, মিলানে পুরস্কারপ্রাপ্তির পর গ্যাজেত্তা দেল্লো স্পোর্তোকে এমনটাই বলেছেন রোনালদো। ইউরোর ফাইনালে পাওয়া চোট কাটিয়ে এখন সেরা ফর্মেই ফিরেছেন বলে জানিয়েছেন সেখানে, ‘একটা চোট পেয়েছিলাম, আড়াই মাস মাঠের বাইরে ছিলাম, এখন একদম ঠিক আছি। ’ আরো বলেছেন সাফল্যের পেছনে অন্তহীন ছুটে চলার প্রেরণার কথাও, ‘মাঠে আমার সাফল্যের পেছনে বড় কারণ আমি মনে করি আমার এই প্রতিনিয়ত নিজেকে ছাড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা আর আত্মতুষ্টিতে না ভোগাটা। আমি সব সময়ই অনুপ্রাণিত থাকি। ’ কথায় কথায় জানালেন, ইতালিয়ান লিগেও খেলার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল তাঁর, ‘জুভেন্টাস ও ইন্টার মিলান ২০০৩ সালের দিকে আমাকে নিতে চেয়েছিল, কিন্তু আমার স্বপ্ন ছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে খেলা। ’ সেই ম্যানইউ ছেড়ে রোনালদো এখন রিয়াল মাদ্রিদের ঘরের ছেলেই হয়ে গেছেন। জানালেন লস ব্লাংকোসদের হয়েই খেলতে চান আরো অনেক বছর, ‘এই ক্লাবকে আমি ভালোবাসি, আরো অনেক বছর রিয়ালেই খেলতে চাই। ’ কোচ জিনেদিন জিদানের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়েও মুখ খুললেন রোনালদো, ‘তিনি রিয়ালকে অনেক ভালো জানেন, যেটা একটা বাড়তি সুবিধা। তবে তাঁর সবচেয়ে বড় যে গুণ সেটা হলো তিনি অন্যদের কথাও শোনেন, যেটা একটা বড় সুবিধা। ’

ইউরোপের বড় দুটি পত্রিকার পাঠকেরা ভোট দিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের সেরা খেলোয়াড় বেছে নিয়েছেন রোনালদোকে। একই বছর চ্যাম্পিয়নস লিগ ও ইউরো— দুটিই জেতা রোনালদোর ভাগ্যে কি তাহলে নাচছে ব্যালন ডি’অরও? মার্কা, গোল


মন্তব্য