kalerkantho


শেখ রাসেলের হার, মোহামেডানের প্রথম জয়

১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



শেখ রাসেলের হার, মোহামেডানের প্রথম জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক : জয়ের মুখ দেখার পরপরই শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্র আবার হারের কবলে। ঠিক জাতীয় দলের মতো তাদের অবস্থা।

গোল করার লোকের বড় অভাব দলে। অনেক সুযোগ নষ্ট করে তারা ১-০ গোলে হেরেছে আরামবাগ ক্রীড়াসংঘের কাছে। সুবাদে আরামবাগ ১০ খেলায় ১৪ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম স্থানে আর শেখ রাসেল ৫ পয়েন্ট নিয়ে ১২ দলের মধ্যে একাদশ স্থানে। দিনের অন্য ম্যাচে মোহামেডান বড় অঘটন ঘটিয়ে ১-০ গোলে চ্যাম্পিয়ন শেখ জামালকে হারিয়ে প্রথম জয়ের স্বাদ পেয়েছে। ১০ ম্যাচে মোহামেডানের সংগ্রহ ৯ পয়েন্ট এবং জামালের ১৯ পয়েন্ট।

তবে ম্যাচের গতি-প্রকৃতি যেমন ছিল তাতে শেখ রাসেলের হার পাওনা ছিল না। গোল খেয়ে দ্বিতীয়ার্ধে তারা একচেটিয়া খেলেও ম্যাচে ফিরতে পারেনি। সাখাওয়াত হোসেন-জাহিদ হাসানের পায়ে যেন কিছুই আর অবশিষ্ট নেই। কদিন আগে ভুটানের ম্যাচে লাল-সবুজ জার্সিতে যেমন ছিলেন দুই স্ট্রাইকার ঠিক সেভাবেই কাল তাঁরা ব্যর্থ। তার মধ্যে আবার ক্যামেরুনের ফরোয়ার্ড পল এমিলি ইনজ্যুরড হয়ে মাঠ ছাড়েন ম্যাচ শুরু হতে না হতেই। ৯ মিনিটে তিনি উঠে গেলে শেখ রাসেল খেলেছে এক বিদেশি নিয়ে।

ম্যাচের ১৮ মিনিট দুর্দান্ত সুযোগ পেয়েছিলেন শেখ রাসেলের সাখাওয়াত হোসেন, কিন্তু কর্নার থেকে তাঁর হেড গেছে ক্রসবার ঘেঁষে বাইরে। ৩৭ মিনিটের দুর্ভাগ্যে তারা পিছিয়ে পড়ে গোল খেয়ে। আবদুল্লাহর পাস আয়ত্তে নিয়ে টাইসন ঘুরতে থাকেন রাসেলের বক্সের ওপর। সামনে চার ডিফেন্ডার থাকলেও শট নেওয়া ঠেকাতে পারেননি। আরো দুর্ভাগ্য, এই ব্রাজিলিয়ানের শট মোনায়েম খানের কাঁধে লেগে দিক বদলে গোলরক্ষক জিয়াকে হতবাক করে পৌঁছে যায় রাসেলের জালে। শুরু হয় পিছিয়ে পড়া রাসেলের ম্যাচে ফেরার মরিয়া চেষ্টা। দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণের বন্যা বইয়ে দিয়েও তারা আরামবাগের ডিফেন্স ভাঙতে পারেনি। ৫৭ মিনিটে পোস্টের সামনে থেকে সাখাওয়াত হোসেন মেরেছেন বাইরে। তারপর জামাল ভূঁইয়া একবার গোলের কাছাকাছি গিয়েও পারেননি, তাঁর পেনাল্টির আবেদন নাকচ করে তাঁকে হলুদ কার্ড দেখিয়েছেন রেফারি আজাদ রহমান। এরপর সাখাওয়াত হোসেনের দারুণ এক শট ঠেকিয়ে দিয়েছেন আরামবাগ গোলরক্ষক। ৭৮ মিনিটে ক্যামেরুনের ইকাঙ্গাও চমৎকার এক সুযোগ নষ্ট করেছেন বাইরে মেরে। শেখ রাসেলের গোল মিসের পুরনো রোগ যখন হাজির তখন ম্যাচ জেতা কঠিন।

দিনের অন্য ম্যাচে বড় অঘটন ঘটিয়েছে মোহামেডান ১-০ গোলে শেখ জামালকে হারিয়ে। জামাল যেভাবে খেলছিল তাতে কোচহীন ঢাকা মোহামেডানের উড়ে যাওয়ার কথা। কিন্তু ৪৮ মিনিটে হয়ে গেল বড় অঘটন, গোল করে বসেন সাদা-কালোর তৌহিদুল আলম সবুজ। গোলের ঠিক আগে জামাল গোলরক্ষককে এগিয়ে থাকতে দেখে সবুজ দূর থেকে পোস্টে শট নেন। গোলরক্ষক মাজহারুল ইসলাম কর্নারের বিনিময়ে কোনো রকমে সে যাত্রায় রক্ষা করলেও পরে সেই কর্নারেই হয়েছে সর্বনাশ। প্যাট্রিকের কর্নারে শাহেদের হেড মাটিতে পড়তেই ওই সবুজের প্লেসিং খুঁজে নেয় জামালের জাল। এই গোল কতক্ষণ ধরে রাখতে পারবে, সেটাই ছিল বড় প্রশ্ন। কারণ শেখ জামালের বিদেশি ফরোয়ার্ড ত্রয়ীর সামনে কোনো ডিফেন্সই সুরক্ষিত নয়। তারা বাকি ৪২ মিনিট আক্রমণের ঝড় বইয়ে দিয়েও পারেনি সাদা-কালো ডিফেন্সের সঙ্গে। এর মধ্যে কয়েকটি গোলের সুযোগ তৈরি হলেও ৬৫ মিনিটে সহজতম সুযোগটি নষ্ট হয়েছে নাইজেরিয়ান এমেকার পায়ে। তাদের ব্যর্থতায় ম্যানেজার আমিরুল ইসলামের  কোচিংয়ে (!) মোহামেডান পেয়েছে প্রথম জয়।  


মন্তব্য