kalerkantho


‘সেতু’র কাজ করছেন বিসিবি সভাপতি

১১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ক্রীড়া প্রতিবেদক : গত বছর জুলাইতে দেশের মাটিতে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ হারলেন মাশরাফি বিন মর্তুজারা আর পরদিনই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পুরো দলকে তলব করলেন। এমনকি টেকনিক্যাল কমিটির সদস্যদের ডেকেও নানা শলাপরামর্শ করলেন। দ্বিতীয় ওয়ানডের ঠিক আগে তাঁর এ ভূমিকা ব্যাপক সমালোচিত হলেও ওই ম্যাচটিই শুধু নয়, সিরিজও জিতেছিল বাংলাদেশ। সাধারণ্যে সেটি ‘ঝড়ে বক মরা’ বলে আসা হলেও দলের সঙ্গে নাজমুলের সব সময় জুড়ে থাকা থেমে নেই।

অবশ্য তিনি হস্তক্ষেপ করেন বলে যে প্রচার, তা নিয়ে তাঁর নিজেরও পাল্টা বক্তব্য আছে। গত পরশু সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে জিতে বাংলাদেশের সমতা ফেরানোর রাতে নাজমুল সংবাদমাধ্যমকে যা বললেন, তাতে বোঝা গেল বিষয়টি একতরফাও নয়, ‘জেতা ম্যাচ (প্রথম ওয়ানডে) হারার পর ওদের মন খারাপ থাকবে স্বাভাবিক। দেখেছি, আমি কথা বললে ওদের সাহস বাড়ে। ওরা চাঙ্গা হয়। গতকাল (শনিবার, দ্বিতীয় ওয়ানডের আগের দিন) দুপুরে হোটেলে গিয়ে ওদের সঙ্গে কথা বলে এলাম। বিকেলে ওরাই আবার ডেকে আমাকে হোটেলে নিয়ে গেল। ’ সেই সঙ্গে আরো বলেছেন, ‘টিম মিটিংয়ে অনেকের মাথায়ই অনেক ধরনের ভাবনা আসে।

যেগুলোর কথা ওরা বলতে না পারলে আমাকে দিয়ে বলায়। সবার কথা শুনে একটা ঐকমত্যে পৌঁছানোটা খুব জরুরি। সিদ্ধান্তটা ওরাই নেয়। আমি কেবল কোচ আর খেলোয়াড়দের মধ্যে সেতু হিসেবে কাজ করি। ’


মন্তব্য