kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মুখোমুখি প্রতিদিন

বাসার সামনে টেনিস বলেও ভালো খেলতে চাই

১০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



বাসার সামনে টেনিস বলেও ভালো খেলতে চাই

কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জাতীয় লিগের ম্যাচ খেলছেন নুরুল হাসান। কাল দ্বিতীয় দিনে খুলনার হয়ে সেঞ্চুরিও করেছেন।

আর দিনের খেলা শেষে ছুটে এসে বসেছেন টেলিভিশনের সামনে; বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ওয়ানডে দেখার জন্য। বাংলাদেশের ব্যাটিং ইনিংস শেষে কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন নুরুল। সেখানে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নিজ দেশের জয়ের আশাবাদ ছাড়াও নিজেকে নিয়ে কথা বলেন তিনি

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : আপনার নিজের তো খেলা ছিল। বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড ম্যাচ দেখছেন কোন অবস্থা থেকে?

নুরুল হাসান : বাংলাদেশের শেষ সাত-আট ওভার দেখেছি। মাশরাফি ভাইয়ের ব্যাটিং দেখেছি প্রায় পুরোটাই। দারুণ খেলেছেন।

প্রশ্ন : ৮ উইকেটে ২৩৮ রান করেছে বাংলাদেশ। এ রান নিয়ে জিততে পারবে?

নুরুল : অবশ্যই জেতার সুযোগ আছে। আরো ১৫-২০ রান বেশি হলে ভালো হতো। তবে এর চেয়ে আরো অনেক কম রানও তো হতে পারত, যদি না মাশরাফি ভাই শেষ দিকে অমন ব্যাটিং করতেন। আর খেয়াল করে দেখবেন, আজকের উইকেট কিন্তু প্রথম ওয়ানডের মতো না। এখানে সহজে রান তোলা যাবে না। সে কারণে আমাদের বোলাররা যদি ঠিক লাইন-লেন্থে বোলিং করতে পারে, তাহলে ২৩৮ করেও জেতা সম্ভব।

প্রশ্ন : আপনি নিজে আজ সেঞ্চুরি করেছেন। ওখানকার উইকেট কেমন?

নুরুল : খুব ভালো না। অসম বাউন্স হয়। যে কারণে ব্যাটিং করা বেশ কঠিন। আমি তো আগের দিনই ফিফটি করে অপরাজিত ছিলাম। আজ চেয়েছি দলের প্রয়োজন অনুযায়ী ব্যাটিং করতে। আমার দরকার ছিল উইকেটে পড়ে থাকা। সেভাবে থেকেই সেঞ্চুরি পেয়েছি।

প্রশ্ন : ৮ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর শতরানে পৌঁছেছেন। শেষ দিকে কি মনে হচ্ছিল সঙ্গীর অভাবে সেঞ্চুরি বোধ হয় পাওয়া হবে না?

নুরুল : না, এমনটা মনে হয়নি। রাজ্জাক ভাই (আবদুর রাজ্জাক) দারুণ সঙ্গ দেন। ওনার সঙ্গে বড় এক জুটি হয় আমার। উনি ফিফটির কাছাকাছি গিয়ে (৪৫ রান) রান আউট হয়ে যান। আর তা কিন্তু আমাকে সেঞ্চুরি পাওয়ানোর জন্য। আমি তখন নব্বইয়ের ঘরে। এর পরও আমার বিশ্বাস ছিল সেঞ্চুরি পাব। তা হওয়ায় ভালো লাগছে।

প্রশ্ন : জাতীয় দলে যে নেই, খারাপ লাগে নিশ্চয়ই?

নুরুল : তা তো লাগেই। কিন্তু তা নিয়ে ভেবে চুপচাপ বসে থাকতে চাই না। সত্যি বলতে কী, এই মুহূর্তে জাতীয় দল আলাদা করে আমার ভাবনায় নেই। আমি সব সময় ভালো খেলতে চাই। তা বাসার সামনে টেনিস বলে খেলা হলেও। এখন জাতীয় দলে নেই বলে ভালো খেলার বাড়তি চেষ্টা আছে, তা নয়। আমি আমার মতো চেষ্টা করে যাচ্ছি। পারফর্ম করছি। বাকিটা নির্বাচক ও টিম ম্যানেজমেন্টের ব্যাপার।


মন্তব্য