kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিসিবি কর্মচারীর ধৃষ্টতা

৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ক্রীড়া প্রতিবেদক : গতকাল ফতুল্লা স্টেডিয়ামে বিসিবি একাদশ বনাম ইংল্যান্ডের মধ্যকার প্রস্তুতি ম্যাচ চলাকালে জাতীয় একটি দৈনিকের একজন সাংবাদিককে নাজেহাল করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) এক কর্মচারী। বিনা উসকানিতে তাঁর এ আচরণের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে ক্রীড়া সাংবাদিকদের সংগঠন।

অভিযুক্ত কর্মচারীর বরখাস্তের দাবি জানিয়ে বিসিবি বরাবর প্রতিবাদলিপি পাঠিয়েছেন ফতুল্লায় কর্মরত ক্রীড়া সাংবাদিকরা। আর তাদের এই দাবিকে সর্বাত্মক সমর্থন করেছে সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ ক্রীড়া লেখক সমিতি (বিএসপিএ), বাংলাদেশ স্পোর্টস জার্নালিস্টস অ্যাসোসিয়েশন (বিএসজেএ) এবং বাংলাদেশ স্পোর্টস জার্নালিস্টস কমিউনিটি (বিএসজেসি)।

ঘটনার সূত্রপাত বাংলাদেশ-আফগানিস্তান সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডে চলাকালে মাঠে দর্শক ঢুকে পড়া নিয়ে। নিরাপত্তা বেষ্টনী ভেদ করে মাঠে দর্শক ঢুকে পড়ার ঘটনার দায় স্বভাবতই নিরাপত্তাব্যবস্থার গাফিলতিই। এ বিষয় নিয়ে দেশের সব মিডিয়ায় সমালোচনা হওয়ার পর থেকেই ‘সংক্ষুব্ধ’ বিসিবির নিয়োগকৃত ‘প্রাইভেট’ নিরাপত্তাকর্মীরা। যাঁদের আদতে কোনো নিরাপত্তাসংক্রান্ত প্রোটকলই জানা নেই। তাঁদের ‘শিরোমণি’ মোহাম্মদ আলীই গতকালের ঘটনার খলনায়ক।

নিরাপত্তাব্যবস্থার অপর্যাপ্ততার প্রামাণ্য প্রতিবেদন ইংরেজি দৈনিক ‘দ্য নিউ এজ’ পত্রিকায় প্রকাশের কারণে প্রতিবেদক আতিফ আজমের ওপর গতকাল চড়াও হয়েছেন মোহাম্মদ আলী। সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদকের ব্যাপারে বিসিবির এ নিরাপত্তা সমন্বয়কারীর আপত্তির জায়গা হলো কেন তাঁদের অক্ষমতার কথা তুলে ধরা হয়েছে প্রতিবেদনে। উল্লেখ্য, মোহাম্মদ আলী সাবেক ক্রিকেটার। তবে কখনো সামরিক কিংবা আধাসামরিক প্রশিক্ষণ নেননি। তাহলে তিনি কী করে নিরাপত্তা সমন্বয়কারী হন?

অবশ্য যে পদে মোহাম্মদ আলী আসীন, সেটিই বাহুল্য মাত্র। কথিত আছে, ঊর্ধ্বতনদের নিরবচ্ছিন্নভাবে তোষামোদ করে চাকরির পথ তৈরি করেছেন তিনি। এমনকি মোহাম্মদ আলীকে চাকরি দেওয়ার আগে বিসিবির নিরাপত্তা বিভাগে নিরাপত্তা সমন্বয়কারীর পদই ছিল না!

সহকর্মীকে হেনস্তার ঘটনায় ক্ষুব্ধ বিএসপিএর বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘অভিযুক্ত মোহাম্মদ আলীকে অপসারণ না করলে কঠোর পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হব আমরা। কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান সাংবাদিকদের পেশাগত দায়িত্ব পালনে বাধা দিলে তা মেনে নেবে না বাংলাদেশ ক্রীড়া লেখক সমিতি। ’ ঘটনার প্রতিবাদে বিএসজেএ জানিয়েছে, ‘মোহাম্মদ আলীর অপকর্মের তীব্র নিন্দা জানিয়ে বিএসজেএ ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাঁর বরখাস্ত দাবি করছে। ’ বিএসজেসির বিবৃতি, ‘এমন আচরণ স্বাধীন সাংবাদিকতায় বাধা প্রদানের শামিল এবং একই সঙ্গে আইসিসির নীতিরও পরিপন্থী। ’


মন্তব্য