kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিশ্ব ঘুরে হোয়াটমোর আবার বাংলাদেশে

৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



বিশ্ব ঘুরে হোয়াটমোর আবার বাংলাদেশে

ক্রীড়া প্রতিবেদক : বিশ্ব ঘুরে আবার বাংলাদেশে ফিরছেন ডেভ হোয়াটমোর। ‘বিশ্ব ঘোরা’ই কারণ আন্তর্জাতিক কোচ হিসেবে ভারতীয় উপমহাদেশ চষে ফেলা এ অস্ট্রেলিয়ান কোচের শেষ কর্মস্থল ছিল আফ্রিকাও।

বেশ কিছুদিন হেড কোচ হিসেবে দেখে এসেছেন জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটের ঘোর দুঃসময়ও। এক যুগেরও বেশি সময় আগে বাংলাদেশ ক্রিকেটের দুঃসময়েও হাল ধরতে এসেছিলেন তিনি। এবার সেই বাংলাদেশেই ফিরছেন শ্রীলঙ্কায় জন্ম নেওয়া এই অস্ট্রেলিয়ান। ফিরছেন তিনি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) ফ্র্যাঞ্চাইজি বরিশাল বুলসের হেড কোচ হয়েই।

কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি যদি জেমি সিডন্সকেও কোচ করে আনে, তাহলে আগামী ৪ নভেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া বিপিএলে রীতিমতো বাংলাদেশের অস্ট্রেলিয়ান সাবেক কোচদের মিলনমেলাই বসে যেতে পারে। কারণ বাংলাদেশের আরেক সাবেক কোচ স্টুয়ার্ট ল’কে কোচ করে আনছে বিপিএলের নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি খুলনা টাইটানসও। এবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) পরিচালক ও বরিশাল বুলসের অন্যতম মালিক আব্দুল আউয়াল চৌধুরীও জানালেন, ‘আমরা হেড কোচ করে আনছি ডেভ হোয়াটমোরকে। ’ বিপিএলের গত আসরে অবশ্য বুলসের কোচ ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার গ্রাহাম ফোর্ড। সেবারের রানার্স-আপ এবার হোয়াটমোরকে কেন্দ্রে রেখেই চূড়ান্ত সাফল্যের পথ খুঁজবে। ২০০৩ সালে বাংলাদেশের কোচ হওয়ার আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শুধু শ্রীলঙ্কাকেই কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা ছিল তাঁর। ১৯৯৬ সালে লঙ্কানদের বিশ্বজয়ের মধ্য দিয়ে হাই প্রোফাইল কোচ বনে যাওয়া এ অস্ট্রেলিয়ান ২০০৭ বিশ্বকাপে বাংলাদেশকেও তুলেছিলেন সুপার এইটে। এরপর দায়িত্বে থাকতে থাকতেই ভারতীয় দলের কোচ হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে বিতর্কিত হলেও প্রত্যাশিত দায়িত্ব পাননি। শেষ পর্যন্ত ভারতের ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমির কাজ জুটেছিল, পরে কোচ হয়েছিলেন আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি কলকাতা নাইট রাইডার্সেরও। দুই বছর পাকিস্তান দলের হেড কোচও ছিলেন।


মন্তব্য