kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বক্স অফিসেও সেই ধোনি

২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



বক্স অফিসেও সেই ধোনি

বয়স আর টানা খেলে যাওয়ার ক্লান্তি ৩৫ বছরেই খানিকটা বুড়োটে করে ফেলেছে মহেন্দ্র সিং ধোনিকে। জুলফির কাছে চুলে পাক ধরেছে, চুলের ছাঁটেও একটা মাঝবয়সী ভারিক্কি ব্যাপার।

খেলাতেও সংযত, ছক্কা হাঁকানোর চেয়ে মনোযোগ সিঙ্গেলে। এই ‘এমএসডি’কে দেখে আসলে বোঝার উপায় নেই বছর দশেক আগে কতটা ‘অ্যাংরি ইয়ংম্যান’ ছিলেন ধোনি! লালচে রং করা লম্বা অবাধ্য চুলগুলো উড়ত হাওয়ায়, সঙ্গে ব্যাটিংটাও ছিল মারকাটারি। বিশাখাপত্তনমে পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৪৮ কিংবা শ্রীলঙ্কার সঙ্গে জয়পুরে অপরাজিত ১৮৩ রানের সেসব ইনিংসকে পেছনে ফেলে সময়ের প্রয়োজনে ধোনি হয়েছেন সংযত আর হিসেবি। ধোনির তারুণ্যের সেই দিনগুলোই ফের সামনে এনেছেন নীরজ পাণ্ডে।

‘স্পেশাল ২৬’, ‘বেবি’র জন্য প্রশংসিত এই পরিচালকই বানিয়েছেন ধোনির বায়োপিক ‘এম এস ধোনি, দ্য আনটোল্ড স্টোরি’। সেলুলয়েডে ধোনির ভূমিকায় সুশান্ত সিং রাজপুত। ২০১১-র এপ্রিলে কুলাসেকারার বলে মারা ছক্কাটার মতোই বক্স অফিসেও ধোনির ‘মাস্টারস্ট্রোক’। মুক্তির প্রথম দিনেই ২১ কোটি ৩০ লাখ রুপি ব্যবসা করেছে ধোনির বায়োপিক, চলতি বছরে সবচেয়ে ব্যবসাসফল ছবি সালমান খানের ‘সুলতান’ও নাকি পেছনে পড়ে যেতে পারে ধোনির হেলিকপ্টার শটে!

ঝাড়খণ্ডের সাধারণ কিশোর থেকে ভারতের সফলতম অধিনায়ক হয়ে ওঠার গল্পটা প্রায় সবারই জানা। অজানা এই যাত্রায় মুখোমুখি হওয়া সব প্রতিকূলতার কথা। পরিচালক ছবির পোস্টারেও তাই লিখেছেন ‘এই মানুষটিকে আপনারা জানেন, জানেন না উঠে আসার গল্পটা। ’ সেই গল্প বলতে ধোনির জীবনের সঙ্গে জড়িয়ে থাকা সব জায়গা; রাঁচি, খড়গপুর এসব জায়গায় শুটিং করেছেন নীরজ। সুশান্ত ধোনির হাঁটাচলা অনুকরণ করতে ছায়াসঙ্গী হয়েছেন এমএসডির। রেলের চাকরিতে আটকে না থেকে ক্রিকেট খেলেই জীবনে এগিয়ে যাওয়ার পথ খুঁজে নেওয়া তরুণ ধোনিকে পরিবার থেকে কী কী প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হতে হয়েছিল ছবিতে এসেছে সেই গল্পও।

মুক্তির দিন থেকেই প্রশংসায় ভাসছে ধোনির বায়োপিক। শীর্ষ সংবাদপত্র ও ম্যাগাজিনে পেয়েছে ভালো রেটিং। ক্রিকেটার, সিনেতারকাসহ অনেকেই প্রশংসা করছেন ধোনির ভূমিকায় অভিনয় করা সুশান্তের। কিছুদিন আগেই ভারতের আরেক ক্রিকেটার ও সাবেক অধিনায়ক আজহারউদ্দিনের বায়োপিক ‘আজহার’কে অনেকেই বলেছেন বাস্তববিবর্জিত ও বিতর্কিত। বক্স অফিসেও সুবিধা করতে পারেনি ইমরান হাশমির আজহার। সেখানে ‘এম এস ধোনি, দ্য আনটোল্ড স্টোরি’র শুরুটাই হয়েছে ছক্কা হাঁকিয়ে! ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস


মন্তব্য