kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সিনিয়রদের দিকে সভাপতির তীর

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ক্রীড়া প্রতিবেদক : দীর্ঘ বিরতির পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছে বাংলাদেশ। তাতে অনভ্যস্ততার ছাপ মাঠের ক্রিকেটে পড়াটা স্বাভাবিক।

তাই বলে টানা দুই ম্যাচে ব্যাটিং ব্যর্থতার জেরে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে আফগানিস্তানের কাছে হারে ভাবনার কারণ আছে। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানের কাছে সবশেষ ম্যাচে মাশরাফি বিন মর্তুজাদের ২ উইকেটের হার প্রত্যাশিত নয়। গতকাল অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়া কাপ হকির ম্যাচ শেষে অপ্রত্যাশিত এ ফলের পেছনে সিনিয়র ক্রিকেটারদের ব্যর্থতাকে কাঠগড়ায় তুলেছেন তিনি।

বাংলাদেশ-চাইনিজ তাইপে ম্যাচ দেখতে মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে গিয়েছিলেন নাজমুল হাসান। আগের রাতে মিরপুরে আফগানদের কাছে বাংলাদেশের হারের প্রসঙ্গও তাই উঠল। ‘হার কখনোই কাম্য নয়’, বলে ওয়ানডে র্যাংকিং নিয়ে যারা চিন্তিত তাদের আশ্বস্ত করেছেন, ‘তবে এই হারে র্যাংকিংয়ে কোনো প্রভাব পড়বে না। ’ যদিও র্যাংকিং পয়েন্ট কমবে বাংলাদেশের, আর সে ক্ষেত্রে অদূর ভবিষ্যতে র্যাংকিংয়েও প্রভাব পড়ার কথা।

সিরিজ শুরুর আগে থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অনভ্যস্ততার বিষয়টি জোরেশোরে উঠেছিল। তবে কোনো অজুহাতেই আফগানদের সঙ্গে একই সমতায় বাংলাদেশের অবস্থান মানতে রাজি নন বিসিবি সভাপতি, ‘যেকোনো বিচারে আফগানিস্তানের কাছে হার মেনে নেওয়া যায় না। একসময় তো ২০০-র নিচে অলআউট হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছিল! মোসাদ্দেক (হোসেন) দেখিয়ে দিল কিভাবে খেলতে হয়। ’

নবাগতের প্রশংসায় সিনিয়রদের প্রতি পরোক্ষে কটাক্ষ নাজমুল হাসানের। ম্যাচ হারের প্রধান কারণ চিহ্নিত করার সময় আর রাখঢাক করেননি তিনি, ‘যাদের ওপর সবচেয়ে বেশি দায়িত্ব ছিল, সেই সিনিয়ররাই ব্যর্থ হয়েছে। তারাই হতাশ করেছে। ’ উল্লেখ্য, সেই সিনিয়রদের সঙ্গেই সিরিজ শুরুর ঠিক আগে সভা করেছিলেন বিসিবির ঊর্ধ্বতন। সে সভার প্রধান আলোচ্যসূচি অবশ্য ছিল বিপিএলে সিনিয়রদের পারিশ্রমিক। যত দূর জানা গেছে ওই আলোচনা ‘ফলপ্রসূ’ হওয়ার পরই ‘এ-প্লাস’ ক্যাটাগরির ক্রিকেটারদের পছন্দের দল বেছে নেওয়ার অধিকার দেওয়া হয়। তাতে আফগান সিরিজ ভাবনায় বিপিএল ‘টেনশন’ জুড়ে যাওয়া অস্বাভাবিক নয়!


মন্তব্য