kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আর্সেনালের মাঠে চেলসি, নামছে বার্সা-রিয়ালও

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



আর্সেনালের মাঠে চেলসি, নামছে বার্সা-রিয়ালও

আর্সেনালের হয়ে আর্সেন ওয়েঙ্গারের ১০০০তম ম্যাচে ডাগ আউটে দাঁড়ানোর মাইলফলক চূর্ণ করে দিয়েছিল চেলসি তাদের ৬-০ গোলে হারিয়ে। আজ আরো একটি মাইলফলকের সামনে গানার বস।

আর্সেনালের কোচ হিসেবে ২০ বছর পূর্ণ হচ্ছে যে তাঁর। কাকতালীয়ভাবে এদিনও প্রতিপক্ষ চেলসি, এবার খেলা অবশ্য আর্সেনালের মাঠে।

তবে প্রিমিয়ার লিগের ষষ্ঠ রাউন্ডের আগে ওয়েঙ্গার-আন্তোনিও কোন্তের নতুন দ্বৈরথ নয়, ব্রিটিশ গণমাধ্যম সরগরম ওয়েঙ্গার ও হোসে মরিনহোর পুরনো বৈরিতা নিয়ে। নিজের জীবনী নিয়ে লেখা বইয়ে ওয়েঙ্গারের মুখে ঘুষি চালাতে চেয়েছিলেন—মন্তব্য করে ছাইচাপা আগুন উসকে দিয়েছেন মরিনহোই। তবে ওয়েঙ্গার যেমন চেলসি ম্যাচে মনোযোগ ধরে রেখে এ ব্যাপারে কথার লড়াই এড়িয়ে গেছেন, তেমনি মরিনহোকেও আজ পুরোপুরি মনোযোগী থাকতে হচ্ছে ঘরের মাঠে লিস্টারের বিপক্ষে দ্বৈরথে। গত মৌসুমে শেষবার লিস্টার যখন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে যায় তখন তারা শিরোপা জয়ের পথে, ড্র নিয়ে ফিরে সেই আশা ধরেও রেখেছিল ক্লাউদিও রানিয়েরির দল। এবারের মৌসুমের শুরুতে কমিউনিটি শিল্ডে অবশ্য মরিনহোর দলই জিতেছে। আজ তবু লিস্টারের বিপক্ষে স্বস্তিতে নেই রেড ডেভিলরা, কারণ পেছনে টানা তিন ম্যাচ হারার দগদগে স্মৃতি।

স্পেনে বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদের জন্যও এই শনিবারটা কঠিন। লিওনেল মেসিকে ছাড়া বার্সার নতুন মিশন শুরু হচ্ছে আজ স্পোর্তিং গিজনের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে। এই ম্যাচ নিয়ে টানা তিনটি অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলতে হবে তাদের দলের সেরা তারকাকে বাইরে রেখে। অ্যাওয়ে ম্যাচ রিয়ালেরও। তারা যাবে লাস পালমাসের মাঠে। মঙ্গলবার চ্যাম্পিয়নস লিগে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে কঠিন ম্যাচের আগে লিগের এ ম্যাচটায় তাদের ছন্দে ফেরার পরীক্ষা। ইনজুরির কারণে মার্সেলো ও কাসিমিরোকে তারা পাচ্ছে না। দানিলো লেফট ব্যাকে এবং টনি ক্রুস আরেকটু নিচে নেমে ক্যাসিমিরোর দায়িত্বটা নেবেন হয়তো, তাতে হামেস রোদ্রিগেসের সঙ্গেই সুযোগ হয়ে যেতে পারে লুকা মদরিচের। বার্সায় মেসির অভাব পূরণে আরদা তুরানকেই প্রথম বিকল্প ভাবা হচ্ছে। মৌসুমের শুরুতে নেইমার অভাব তিনি ভালোভাবেই পুষিয়ে দিয়েছিলেন। এবার নতুন দায়িত্ব। মেসিবিহীন তিন ম্যাচে নতুন খেলোয়াড় পাকো আলকাসারও নিশ্চিতভাবে ভাবনায় থাকবে লুই এনরিকের, সুযোগ আছে রাফিনহারও। লা লিগায় আগের ম্যাচেই সর্বোচ্চ অ্যাসিস্টের রেকর্ড গড়া আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা নতুন পরিস্থিতিতে দলীয় পারফরম্যান্সের ওপরই গুরুত্ব দিয়েছেন সবচেয়ে বেশি, ‘আমরা সব সময়ই মেসিকে চাই। সে থাকলে বার্সা আরো শক্তিশালী হয়ে ওঠে। কিন্তু এটাই বাস্তবতা ওকে ছাড়াও আমাদের খেলতে হবে। আর শেষ পর্যন্ত জয় বা ট্রফি আসে দলীয়ভাবেই, ব্যক্তি শুধু সাহায্য করে। ’ তার পরও প্রতিপক্ষ দলগুলোর জন্য মেসি না থাকাটাই বাড়তি স্বস্তি। খোদ রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদান যেমন বলেছেন, ‘মেসি মেসিই। আমরা সবাই জানি সে বার্সার কতটা। অবশ্যই মেসিকে তারা মিস করবে। ’

ম্যানচেস্টারে মরিনহো অবশ্য সবাইকে খেলিয়েও পথ পাচ্ছেন না। যদিও তিনি মনে করেন ৩ ম্যাচ হারেই সব কিছু শেষ হয়ে যায়নি, ‘ফুটবলে আইনস্টাইনের সংখ্যা অনেক বেড়ে গেছে। তারা আমার ১৬ বছরের ক্যারিয়ার মুছে দিচ্ছে একটা সপ্তাহের ফলে। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের এত সমৃদ্ধ অতীতও তারা ভুলে যাচ্ছে। ’ পয়েন্ট টেবিল বলছে, এর মধ্যেই নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে ৬ পয়েন্ট পিছিয়ে গেছে তারা, টানা আরেক ম্যাচ হারলে মরিনহোর শিরোপা স্বপ্নে সেটা প্রবল ধাক্কাই হবে। সিটি থেকে চেলসি ও আর্সেনাল দুই দলই পিছিয়ে ৫ পয়েন্ট। সমান ৩ জয়, ১ ড্র ও ১ হার। লিগ ও কাপ মিলিয়ে শেষ দুই ম্যাচে আর্সেনাল ৮ গোল দিয়েছে। চেলসি লিগে লিভারপুলের কাছে হারলেও কাপে লিস্টারকে ৪-২ গোলে হারিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে। এএফপি, গোলডটকম


মন্তব্য