kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিপিএলে নতুন মোড়কে খুলনা ও রাজশাহী

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



বিপিএলে নতুন মোড়কে খুলনা ও রাজশাহী

ক্রীড়া প্রতিবেদক : তৃতীয় আসরে প্রত্যাশিত সাড়া না মিললেও এবার মিলেছে। তাই আগামী ৪ নভেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) চতুর্থ আসরে দল সংখ্যাও বাড়ছে।

গতবার না থাকা খুলনা ও রাজশাহীর ফ্র্যাঞ্চাইজি এবার যুক্ত হচ্ছে বলে গতকাল বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের এক সভা শেষে জানিয়েছেন সদস্যসচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক। অবশ্য দল দুটি প্রথম দুই আসরে ছিল, তবে ভিন্ন নাম আর মালিকানায়।

 

তাতে গতবার ছয় দলের আসর এবার আট দলের হওয়ার কথা। কিন্তু টুর্নামেন্ট হচ্ছে আসলে সাত দলকে নিয়ে। কারণ গতবারের অন্যতম দল সিলেট সুপারস্টারস এবার থাকছে না। এই দলটির মালিকের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ ছিল। সেই সঙ্গে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পাওনা পরিশোধে গড়িমসি করায় দলটির বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার কথাও বেশ কিছুদিন আগে বলেছিলেন বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান। যদিও এর আর প্রয়োজন হয়নি বলে জানালেন বিপিএল সদস্যসচিব, ‘আমরা ব্যাংক গ্যারান্টি ভাঙিয়ে পাওনা টাকা আদায় করে নিয়েছি। কাজেই সিলেট সুপারস্টারসের কাছে আমাদের কোনো পাওনা নেই। তার পরও এই দলটি নেই কারণ ওরা নিজেরাই থাকতে চায়নি। ’

তাঁদের জায়গায় সিলেটের ফ্র্যাঞ্চাইজি কিনতে আগ্রহী প্রতিষ্ঠান থাকলেও না নেওয়ার কারণ ব্যাখ্যায় মল্লিক বলছিলেন, ‘আপনারা জানেন নিউজিল্যান্ড সফরে যাওয়ার আগে অস্ট্রেলিয়ায় দিন দশেকের একটি অনুশীলন শিবির করবে বাংলাদেশ। সে জন্য এর আগেই টুর্নামেন্ট শেষ করার তাড়া আছে আমাদের। আটটি দল হলে ম্যাচ সংখ্যা বেড়ে যায় বলে আমরা সাতটি দলকে নিয়েই চতুর্থ আসরটি করছি। ’ তাই ঢাকা ডায়নামাইটস, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স, বরিশাল বুলস, চিটাগাং ভাইকিংস এবং রংপুর রাইডার্সের সঙ্গে এবার যুক্ত হচ্ছে নতুন দুই ফ্র্যাঞ্চাইজি খুলনা ও রাজশাহী। এর মধ্যে খুলনা কিনেছে জেমকন গ্রুপ। আর রাজশাহীর মালিক রেনেসাঁ গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান ম্যাংগো এন্টারটেইনমেন্ট। ৪ নভেম্বর শুরু হওয়া আসর ৭-৮ ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ করার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের প্রধান আফজালুর রহমান সিনহা। এর আগে শেষ করা জরুরিও, কারণ অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে বাংলাদেশ দল দেশ ছাড়বে ৯ ডিসেম্বর।

টুর্নামেন্ট শুরুর জন্য নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহকে বেছে নেওয়া হলেও বিপিএলের দামামা বেজে উঠবে ৩০ সেপ্টেম্বর। সেদিনই ঢাকায় পা রাখবে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলও। একই দিনে ঢাকার এক পাঁচ তারকা হোটেলে হবে নিলাম অনুষ্ঠান। স্থানীয় শীর্ষ ক্রিকেটারদের জন্য গতকাল এক সুখবরও দিয়েছেন বিপিএল সদস্য সচিব। বাড়তে চলেছে তাঁদের পারিশ্রমিকের অঙ্ক, ‘বিদেশিদের সঙ্গে স্থানীয় শীর্ষ ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিকের পার্থক্যটা গতবার অনেকের কাছেই বেশি মনে হয়েছে। তাই এবার ওদের পারিশ্রমিক পুনর্নির্ধারণ করা হতে পারে। ’ গতবারের মতো এবারও খেলা হবে দুই ভেন্যুতে। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম এবং মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে।


মন্তব্য