kalerkantho


নিউজিল্যান্ডের প্রস্তুতি অস্ট্রেলিয়ায়

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



নিউজিল্যান্ডের প্রস্তুতি অস্ট্রেলিয়ায়

ক্রীড়া প্রতিবেদক : এক যুগ পেরিয়ে গেলেও অস্ট্রেলিয়ায় আরেকটি টেস্ট সফরের জন্য বাংলাদেশের কাক প্রতীক্ষা ফুরোয়নি। সেই ২০০৩ সালেই প্রথম এবং শেষবার।

এরপর ভবিষ্যৎ সফরসূচিতে (এফটিপি) উল্লিখিত প্রাপ্য আতিথ্যও যে অস্ট্রেলিয়ায় পায়নি বাংলাদেশ, সেখানেই তারা খুব সহসা যাচ্ছে। যাচ্ছে, তবে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলতে অবশ্যই নয়। সব শেষ ২০০৮ সালে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলে আসার পর বাংলাদেশের অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে খেলা বলতে ২০১৫ বিশ্বকাপের ম্যাচগুলোই। সামনে সেখানে যাওয়ার যে সূচি, তাতে অবশ্য আন্তর্জাতিক ম্যাচ নেই কোনো। আগামী ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে নির্ধারিত নিউজিল্যান্ড সফরের প্রস্তুতি নিতেই আসলে অস্ট্রেলিয়ায় যাচ্ছেন মাশরাফি বিন মর্তুজারা।

যে প্রস্তুতি সফরের উদ্যোক্তা বাংলাদেশ দলের হেড কোচ চন্দিকা হাতুরাসিংহে। অস্ট্রেলিয়ায় থিতু হওয়া এ শ্রীলঙ্কান কোচ কিছুদিন আগে ছুটিতে গিয়েই সিডনির দুটো দলের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার আলোচনা সেরে আসেন। নিউজিল্যান্ড যাওয়ার আগে সিডনিতে দুটো প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার যে প্রস্তাব তিনি দেন, তাতে সম্মত হয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কর্তাব্যক্তিরাও। তাতে আসছে ডিসেম্বরে নিউজিল্যান্ড সফর সামনে রেখে একটু আগেভাগেই ঘর ছাড়তে হচ্ছে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের। তবে এ প্রস্তুতি সফর ঘরের খুব কাছাকাছিই থাকার সুযোগ করে দেবে হাতুরাসিংহেকে। তিনি যে সিডনির শহরতলি ব্ল্যাক টাউনের বাসিন্দা!

ঠিক হয়েছে সিডনিতে একটি করে এক দিনের এবং টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। যে ম্যাচ দুটোতে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়ার ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি আসর বিগ ব্যাশ লিগে (বিবিএল) সিডনির দুই ফ্র্যাঞ্চাইজি সিডনি থান্ডার্স এবং সিডনি সিক্সার্স। অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশের একমাত্র এক দিনের প্রস্তুতি ম্যাচটি বিবিএলের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন সিডনি থান্ডার্সের সঙ্গে ১৪ ডিসেম্বর। এ ম্যাচটি হবে থান্ডার্সের হোম গ্রাউন্ড সিডনি শো গ্রাউন্ড স্টেডিয়ামে। তবে ১৬ ডিসেম্বর বিবিএলের প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন সিডনি সিক্সার্সের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি প্রস্তুতি ম্যাচটি তাঁদের হোম গ্রাউন্ড এসসিজিতে (সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ড) হবে কি না, তা এখনো নিশ্চিত নয়। অস্ট্রেলিয়ায় এ প্রস্তুতি ম্যাচ দুটো খেলে বাংলাদেশ দলের নিউজিল্যান্ডে পা রাখার কথা ১৮ ডিসেম্বর। এর আগে ৯ ডিসেম্বর অস্ট্রেলিয়ার পথে ঢাকা ছাড়বে টাইগাররা। আর লম্বা নিউজিল্যান্ড সফর শেষ হওয়ার কথা ২৪ জানুয়ারি। অর্থাৎ অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড মিলিয়ে প্রায় ৫০ দিনের দীর্ঘ সফরেই যেতে হচ্ছে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের।


মন্তব্য