kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।

তিন নতুন মুখ

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



তিন নতুন মুখ

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজটি মাত্র দুই টেস্টের। সে জন্য কিনা ১৭ সদস্যের স্কোয়াড ইংল্যান্ডের! প্রশ্ন জাগতে পারে তাই।

কিন্তু যখন জানবেন, বাংলাদেশ সফরের পর পর পাঁচ টেস্টের সিরিজ খেলতে ভারত যাবে তারা, তখন মিলে যাবে সে প্রশ্নের উত্তর। উপমহাদেশের কন্ডিশনে মানিয়ে নেওয়ার জন্যই তো এত বড় বহর ইংল্যান্ডের!

কাল ঘোষিত ১৭ সদস্যের স্কোয়াডে নতুন মুখ তিনজন। ওপেনার হাসিব হামিদ ও বেন ডাকেট; সঙ্গে বাঁহাতি স্পিনিং অলরাউন্ডার জাফর আনসারি। নিরাপত্তাহীনতায় বাংলাদেশ সফরে অ্যালেক্স হেলস না আসায় কপাল খুলে গেছে দুই ওপেনারের। অবশ্য সাম্প্রতিক সময়ের তুখোড় ফর্ম বলবে, এ সুযোগ তাঁদের প্রাপ্য। আর বাঁহাতি স্পিনার আনসারির ফর্মও দারুণ। উপমহাদেশের স্পিন সহায়ক কন্ডিশন বিবেচনা সাহায্য করেছে তাঁর ডাক পাওয়ায়। এই ত্রয়ীর মধ্যে বেন ডাকেট সুযোগ পান দুই ফরম্যাটেই।

কাল দল ঘোষণার সময় ইংল্যান্ডের নির্বাচক জেমস হুইটেকারের কণ্ঠে প্রশংসা ঝরেছে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা তিন তরুণের। ১৯ বছরের হাসিব কাউন্টি চ্যাম্পিয়শিপে ল্যাংকাশায়ারের হয়ে দুর্দান্ত খেলছেন। জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়াটা তাঁর প্রাপ্য বলে জানান হুইটেকার, ‘তরুণ বয়সে ও রান করেছে ধারাবাহিকভাবে। দেশসেরা বোলারদের বিপক্ষে কাউন্টিতে চার সেঞ্চুরি করে পরিচয় দিয়েছে অসাধারণ টেম্পারামেন্ট ও মনোভাবের। ও টেস্ট স্কোয়াডের টপ অর্ডারে জায়গা পাওয়ার লড়াইয়ে নামার মতো যোগ্য বলে আমাদের মনে হয়েছে। ’ টেস্ট-ওয়ানডে দুই ফরম্যাটের দলে থাকা ডাকেটের অগ্রগতি দেখার অপেক্ষায় থাকার কথা জানান এই নির্বাচক, ‘কাউন্টিতে এবং ইংল্যান্ড লায়ন্সের হয়ে আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান হিসেবে নিজের সামর্থ্য দেখিয়েছে ডাকেট। মৌসুমজুড়ে নটিংহামশায়ারের হয়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে করেছে প্রচুর রান। এর মধ্যে রয়েছে দুটি ডাবল সেঞ্চুরি। আর গ্রীষ্মের শুরুর দিকে ইংল্যান্ড লায়ন্সের হয়ে শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের বিপক্ষে ৫০ ওভারের ম্যাচে ওর অপরাজিত ২২০ রানের ইনিংসটি ছিল খুব বিশেষ কিছু। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ পর্যায়ের দুই ফরম্যাটে বেনের অগ্রগতি দেখার অপেক্ষায় আছি আমরা। ’

তিনজনের আরেকজন জাফর আনসারি ব্যাটিং খারাপ করেন না। তবে তাঁর মূল পরিচয় বাঁহাতি স্পিনার। ইংল্যান্ড দলে আদিল রশিদ, মঈন আলী, গ্যারেথ ব্যাটিদের সঙ্গে চতুর্থ স্পিনার হিসেবে রয়েছেন আনসারি। উপমহাদেশের কন্ডিশনে এই চতুষ্টয়ে ইংল্যান্ডের অধিনায়ক-কোচের অনেক বিকল্প থাকবে বলে দাবি হুইটেকারের, ‘ব্যাটিং-বোলিং দুই বিভাগেই জাফরের দারুণ প্রতিভা। টেস্ট স্কোয়াডে চার স্পিনার থাকায় আমাদের কোচ ও অধিনায়কের সামনে থাকবে অনেক বিকল্প। মঈন আলী ও আদিল রশিদের পাশাপাশি জাফর আনসারি ও গ্যারেথ ব্যাটির সামর্থ্যে আমরা রোমাঞ্চিত। ’ এএফপি


মন্তব্য