kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পাঁচ ধাপ এগোল ব্রাজিল শীর্ষে আর্জেন্টিনা

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



পাঁচ ধাপ এগোল ব্রাজিল শীর্ষে আর্জেন্টিনা

ইকুয়েডরকে তাদের মাঠে হারানোর পর কলম্বিয়ার বিপক্ষেও জয়। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে অসাধারণ এ পারফরম্যান্সের পুরস্কারও পেল ব্রাজিল।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে দুই জয়ে ১৬৭ পয়েন্ট যোগ করে এক লাফে পাঁচ ধাপ এগিয়ে র্যাংকিংয়ে কলম্বিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে চার নম্বরে এখন পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। বাংলাদেশ যথারীতি পিছিয়েছে আরো। সবশেষ র্যাংকিংয়ে দুই ধাপ নেমে গিয়ে টম সেইন্টফিটের দলের অবস্থান এখন ১৮৫তম স্থানে।

বিশ্বকাপ বাছাই এবং মহাদেশীয় টুর্নামেন্টের বাছাই মিলিয়ে ১২৬টি ম্যাচ হয়েছে গত কয়েক সপ্তাহে। এর প্রভাবে সর্বশেষ প্রকাশিত ফিফা র্যাংকিংয়েও হয়েছে বেশ ওলটপালট। শীর্ষ দুটি স্থানে অবশ্য কোনো পরিবর্তন হয়নি। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে সর্বশেষ ম্যাচে ভেনিজুয়েলার সঙ্গে ড্র করেও শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে আর্জেন্টিনা। আর দুইয়ে বেলজিয়াম। এক ধাপ এগিয়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানি এখন তিনে। তবে ব্রাজিলের বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে হেরে যাওয়া কলম্বিয়া নেমে গেছে চারে।

অবনমন ঘটেছে কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন চিলি এবং ইউরোর শিরোপাজয়ী পর্তুগালেরও। এক ধাপ করে পিছিয়ে দেশ দুটির অবস্থান যথাক্রমে ছয় এবং সাতে। ইউরো-২০১৬ এর আরেক ফাইনালিস্ট ফ্রান্সও পিছিয়েছে এক ধাপ (আট)। তবে তিন ধাপ উন্নতি হয়েছে উরুগুয়ের। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে হারলেও প্যারাগুয়ের বিপক্ষে জিতে ৯ নম্বরে উঠে এসেছে অস্কার তাবারেজের দল। সবশেষ র্যাংকিংয়ে সেরা দশে ফিরেছে ওয়েলশও (দশ)। তবে শীর্ষ দশ থেকে ছিটকে পড়েছে স্পেন। প্রীতি ম্যাচে বেলজিয়ামের বিপক্ষে ২-০ গোলের জয়ের পর বিশ্বকাপ বাছাইয়ে লিচেনস্টেইনকে গোলবন্যায় ভাসালেও তিন ধাপ পিছিয়ে এখন ১১ নম্বরে ২০১০ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

উন্নতি হয়েছে ইংল্যান্ডেরও। এক ধাপ এগিয়ে তারা এখন ১২ তম স্থানে। তবে সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইতালি পিছিয়েছে তিন ধাপ। আজ্জুরিরা এখন ১৩ নম্বরে। তবে বড় ধরনের একটা লাফ দিয়েছে প্রথমবার বিশ্বকাপ বাছাইয়ে অংশ নেওয়া কসোভো। মাত্র দুটি ম্যাচ খেলেই ২২ ধাপ এগিয়ে ১৬৮তম স্থানে উঠে এসেছে তারা।

সবচেয়ে বড় লাফটা অবশ্য দিয়েছে বলিভিয়া, এক লাফে ৩৫ ধাপ এগিয়ে দক্ষিণ আমেরিকার এই দেশ ওঠে এসেছে ৭৫তম স্থানে। এগিয়েছে স্কটল্যান্ড, গ্রিস, অস্ট্রেলিয়া, উজবেকিস্তানও। ফিফা ডটকম


মন্তব্য