kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শেষ ইনিংসটাও খেলে ফেললেন দিলশান

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



শেষ ইনিংসটাও খেলে ফেললেন দিলশান

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেই ওয়ানডের শেষ ম্যাচে সতীর্থদের কাছ থেকে গার্ড অব অনার পেয়েছিলেন, কাল পেলেন আরো একবার, কিন্তু এদিন শেষবারের মতো। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যে আর পা পড়বে না তিলকারত্নে দিলশানের।

টেস্টের পর ওয়ানডে এবং কাল টি-টোয়েন্টি দিয়ে ১৭ বছরের এক বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারের ইতি।   এদিনের ৩ বলে ১ রানের মিনিট কয়েকের ইনিংস সেই ক্যারিয়ারের মর্ম বোঝাবে সাধ্য কি!

এই টি-টোয়েন্টিতেই ১৫০০ রান পেরোনো শ্রীলঙ্কার প্রথম ব্যাটসম্যান তিনি। সবচেয়ে বেশি ২০০ বাউন্ডারি, চারটি ক্যালেন্ডার ইয়ারে ১০০০-এর বেশি রান প্রতিবার। ২০০৯ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত কোনো বছরই ৮০০-এর কম রান করেননি। রান যেন ফোয়ারার মতো ছুটেছে দিলশানের ব্যাট থেকে। শেষ দিনে মাঠে নামা তো স্রেফ আনুষ্ঠানিকতা! ফেরার সময়ও বাউন্ডারির কাছে গিয়ে মাটিতে চুমু খেয়েছেন আরেকবার। ব্যাট উঁচিয়ে প্রেমাদাসার দর্শকদের ভালোবাসার জবাব দিয়েছেন। লঙ্কান কিংবদন্তিদের সাম্প্রতিকদের মধ্যে মাহেলা জয়াবর্ধনে, কুমার সাঙ্গাকারার পর দিলশানেরও বিদায়ে একটা যুগের যেন শেষ হলো।

ব্যাটিং অর্ডারের ৬, ৭ নম্বরে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন, কিন্তু ওপেনিংয়েই ওয়ানডেতে করা ২২টি সেঞ্চুরির ২১টি তাঁর, টেস্ট (১৬) আর টি-টোয়েন্টির (১) সবগুলোই। অধিনায়ক হিসেবে খুব সফল ছিলেন না। আবার অধিনায়ক হিসেবেই তিন ফরম্যাটে সেঞ্চুরি করার রেকর্ডটিও এখনো তাঁর দখলে। কাল শুরুতেই তাঁকে হারানোর পর লঙ্কান ব্যাটিং লাইনআপও হুড়মুড়িয়ে ভেঙে গেছে। ৯ উইকেটে ১২৮ রান (ধনঞ্জয় ৬২) তোলে তারা, গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের (৬৬) দ্রুততম অর্ধশতকে (অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ১৮ বলে) ৪ উইকেট হাতে রেখেই তা পেরিয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়া। ক্রিকইনফো


মন্তব্য