kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সোনার মেয়েদের প্রতি এ কেমন আচরণ

নিয়ামুল কবীর সজল, ময়মনসিংহ   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



সোনার মেয়েদের প্রতি এ কেমন আচরণ

দেশের জন্য খেলে গৌরব বয়ে আনে তারা। এরপর বাসে করে বাড়ি ফেরার পথে শিকার হয় বিড়ম্বনার।

এখানেই শেষ নয়। নিজ এলাকার স্কুলে ফিরে চরম অবমাননাকর পরিস্থিতিতে পড়ে ময়মনসিংহের কলসিন্দুর স্কুলে পড়া এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ বাছাই পর্বের গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ দলের ৯ সদস্য। খেলোয়াড়দের পাশাপাশি তাদের অভিভাবকদের সঙ্গেও স্কুলের শিক্ষকরা করেন চরম দুর্ব্যবহার। পাশাপাশি তাসলিমার বাবা সবুজ মিয়াকে (৪০) মারধরও করেছেন কলসিন্দুর হাই স্কুলের শরীরচর্চা শিক্ষক জোবেদ তালুকদার। গত পরশু বিকেল ও রাতে ঘটে এই দুই ঘটনা। তাতে ধোবাউড়ার কলসিন্দুর ও এলাকাবাসী এখন চরম ক্ষুব্ধ।

এ ঘটনায় হামলাকারী শিক্ষককে আসামি করে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ধোবাউড়া থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেপ্তারের জন্য চেষ্টা করছে বলে জানিয়েছে।

পরশু বিকেলে কলসিন্দুর হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষকরা তাদের স্কুলের শিক্ষার্থী অনূর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবল জাতীয় দলের ৯ খেলোয়াড় এবং তাদের অভিভাবকদের নিয়ে সভা করেন। মেয়েদের ৪৫তম গ্রীষ্মকালীন স্কুল ও মাদ্রাসা ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় নিজ স্কুলের হয়ে খেলার জন্য সানজিদা-মার্জিয়া-মারিয়াদের নির্দেশ দেওয়া হয়। এ জন্য আগামী ১৮ তারিখ কুমিল্লা যেতে হবে। কিন্তু অনূর্ধ্ব-১৬ দলের মেয়েরা জানায়, আগামী ১৭ তারিখ ঢাকায় একটি সংবর্ধনা রয়েছে। এ ছাড়া বাফুফে এখন অন্য খেলা খেলতে নিষেধ করেছে। তাই তাদের কুমিল্লা যাওয়া সম্ভব না। স্কুলের হয়ে খেলতে অপরাগতা প্রকাশ করায় উপস্থিত শিক্ষকরা সভাস্থলেই তাদের গালিগালাজ করা শুরু করেন। একপর্যায়ে টিসি দিয়ে স্কুল থেকে বের করে দেওয়ার হুমকি পর্যন্ত দেন।

বিকেলের এ ঘটনার পর রাতে কলসিন্দুর বাজারে কয়েকজন অভিভাবক এক দর্জির দোকানে বসে নিজেদের মাঝে কথা বলছিলেন। সেখানে শিক্ষক জোবেদ আলী তাসলিমার বাবা সবুজ মিয়াকে লাথি মেরে ফেলে দিয়ে কিল-ঘুষি মারেন।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে গতকাল বিকেলে কলসিন্দুর স্কুল অ্যান্ড কলেজে কলেজ কর্তৃপক্ষ ও এলাকাবাসীর সভা অনুষ্ঠিত হয়। ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি প্রিয়তোষ চন্দ্র বিশ্বাসের সভাপতিত্বে হওয়া সভা সম্পর্কে কলসিন্দুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ জালাল উদ্দিন জানান, ‘শরীরচর্চা শিক্ষক জোবেদ তালুকদারকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। সহকারী শিক্ষক রতন মিয়াকে আহবায়ক করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে। ’


মন্তব্য