kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মরগানকে ‘লাল কালির’ সতর্কতা পিটারসেনের

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



মরগানকে ‘লাল কালির’ সতর্কতা পিটারসেনের

টেস্ট অধিনায়ক, কোচ, সহকরী কোচ, বোর্ড পরিচালকসহ প্রায় সবাই আসতে চান বাংলাদেশে। এখনো সরাসরি ‘না’ বলেননি কোনো ইংলিশ ক্রিকেটার।

তার পরও ইংলিশ মিডিয়ার ধারণা, ওয়ানডে অধিনায়ক এউইন মরগান হয়তো আসবেন না বাংলাদেশ সফরে। এ জন্য চটেছেন ইংলিশ সাবেক অধিনায়ক কেভিন পিটারসেন। সত্যি সত্যি বাংলাদেশে না এলে তাঁর নামের পাশে ‘লাল কালি’ দিয়ে চিহ্নিত করে রাখা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন ‘দ্য টেলিগ্রাফ’-এ লেখা নিজের কলামে।

যাওয়া না যাওয়া নিয়ে বোর্ড স্বাধীনতা দিয়ে রাখায় ভারত সফরের দলে মরগান নেতৃত্ব দেবেন নিশ্চিতভাবে। তবে ভবিষ্যতের জন্য এটা যে তাঁর ক্যারিয়ারে খারাপ প্রভাব ফেলবে সেই সতর্কতা জানিয়ে রাখলেন পিটারসেন, ‘বাংলাদেশ সফরে যেতেই হবে মরগানকে। এ সফরে একজনের থাকা মানে সবার থাকা। এর পরও না গেলে মরগানের নামের পাশে লাল চিহ্ন দিয়ে রাখবেন বোর্ড কর্তারা। ভবিষ্যতে যখন ও ছন্দে থাকবে না বা দল হারবে, তখন এটা বিপক্ষে যাবে ওর। ’

কিছুদিন আগেই পিটারসেন জানিয়েছিলেন এই সময়ে যেতেন না বাংলাদেশে। তর পরও কেন যেতে বলছেন মরগানকে? এর ব্যাখ্যাটা দিলেন নিজেই, ‘নিজের ব্যক্তিগত বর্তমান অবস্থার জন্য এই সময়ে বাংলাদেশে না যাওয়ার কথা বলেছিলাম। কিন্তু যদি এখনো খেলতাম আর সতীর্থরা যেতে চাইত, তাহলে আমিও আসতাম বাংলাদেশে। কুকের টেস্ট দলের নেতৃত্ব দিতে চাওয়ার পর চাপ বেড়েছে মরগানের ওপর। অলিখিত বার্তা হচ্ছে, যখন সবাই যাওয়ার পক্ষে বলছে তখন নিজেকে অন্যদের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভাবার কারণ নেই। ’

বাংলাদেশ সফরে আসতে না চাওয়া কোনো ক্রিকেটারকে উপমহাদেশের কঠিন কন্ডিশনে মানিয়ে নেওয়ার আগে টেস্টে নামিয়ে দেওয়াটা ঝুঁকির। এ জন্য দুই সফরে একই দল চান ইংল্যান্ড কোচ ট্রেভর বেলিস, ‘আসলে দুটো আলাদা সফরের জন্য দুই রকম দল গড়াটা কঠিন হয়ে যাবে। সবাইকে স্বাধীনতা দেওয়া আছে বাংলাদেশ সফরে যাওয়া বা না যাওয়া নিয়ে। তার পরও আমি মনে করি দুই সফরে যাওয়া উচিত সেরা একই দল নিয়ে। ’ দ্য টেলিগ্রাফ


মন্তব্য