kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কাবাডি বিশ্বকাপে লক্ষ্য ব্রোঞ্জ

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ক্রীড়া প্রতিবেদক : পুরুষ কাবাডি দল হৃত গৌরব ফিরে পেতে চায়। আগামী ৭ থেকে ২২ অক্টোবর আহমেদাবাদে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপ কাবাডির জন্য তৈরি হচ্ছে বাংলাদেশ।

একসময় ভারতের পর বাংলাদেশকে দ্বিতীয় সেরা হিসেবে গণ্য করা হলেও ব্যাপারটা এখন আর সেই জায়গায় নেই। বাস্তবে ব্রোঞ্জ পদকই কঠিন হয়ে গেছে বাংলাদেশের জন্য। তবে অবস্থান ফিরে পেতে গত ২৬ আগস্ট থেকে বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শুরু হয়েছে কাবাডি দলের।

কোচ সুবিমল চন্দ্র সেন উন্মুক্ত ট্রায়ালের মাধ্যমে ৪৫ জন থেকে ২০ জনকে বেছে নিয়েছেন কাবাডি বিশ্বকাপের জন্য। এই কোচের প্রথম চাওয়া ব্রোঞ্জ, ‘ব্রোঞ্জ জিতলে আমি খুশি হব। ’ ২০০৪ ও ২০০৭ সালে বিশ্বকাপের প্রথম দুই আসরে বাংলাদেশ ব্রোঞ্জই জিতেছিল। ৯ বছর পর তৃতীয় আসরেও একই লক্ষ্যে প্র্যাকটিস শুরু করেছে বাংলাদেশ। সাম্প্রতিককালে প্রো-কাবাডি লিগের সুবাদে ভারতীয় কাবাডিতে এমন সংস্কার হয়েছে, প্রথম হওয়ার দৌড়ে তাদের চ্যালেঞ্জ জানানোর কেউ নেই। দ্বিতীয় সেরা হিসেবে সুবিমল পাকিস্তানকে ফেভারিট মানেন, ‘বিশ্ব কাবাডিতে এখন দ্বিতীয় স্থানে পাকিস্তান। এ ছাড়া ইরান, কোরিয়া ও থাইল্যান্ড অনেক উন্নতি করেছে গত এক দশকে। তাই আমার কাছে ব্রোঞ্জ জেতাটাই কঠিন মনে হচ্ছে। ’ এই খেলায় অন্যরা নিজেদের দক্ষতা বাড়ালেও দিনে দিনে আধমরা হয়েছে বাংলাদেশের কাবাডি। খেলাটির মানোন্নয়নের জন্য কিছুই করেনি কাবাডি ফেডারেশন। তাই কঠিন বাস্তবের মুখে দাঁড়িয়ে ব্রোঞ্জ জয়ই কঠিন মনে করছেন কোচ।  

২০ জন নিয়ে ট্রেনিং শুরু করলেও তিনি মনে মনে দল সাজিয়ে ফেলেছেন। এ বছর দক্ষিণ এশীয় গেমসে অংশ নেওয়া আট তরুণ খেলোয়াড়ের সঙ্গে এশিয়ান গেমসে খেলা ছয় অভিজ্ঞকে জায়গা দেবেন দলে। কোচ বলেছেন, ‘টুর্নামেন্টের ১০ দিন আগে আমরা আহমেদাবাদে পৌঁছাব স্থানীয় কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে। তা ছাড়া প্রত্যেক দলকে একজন করে উপদেষ্টা কোচ দেবে বিশ্বকাপ সংগঠনের পক্ষ থেকে। ’


মন্তব্য