kalerkantho

25th march banner

কোটি ডলারের গেইল

নোমান মোহাম্মদ   

৩ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



কোটি ডলারের গেইল

হোসে মরিনহো নিজেকে ঘোষণা করেছিলেন ‘স্পেশাল ওয়ান’ হিসেবে। আর ক্রিস গেইল স্বঘোষিত ‘মহাবিশ্বের বস’। আজ বিশ্ব টি-টোয়েন্টির ফাইনালে ওই ক্যারিবীয় দানবের কাছ থেকে আরেকটি দানবীয় পারফরম্যান্সের প্রত্যাশা তাই বাড়াবাড়ি নয় মোটেও।

প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড বলে পক্ষ ও নিরপেক্ষ দর্শকদের প্রত্যাশা আরো বেশি। চলতি টুর্নামেন্টের গ্রুপ পর্বে এই ইংলিশদের বিপক্ষেই তো গেইলের সেই ৪৭ বলের বিস্ফোরক সেঞ্চুরি। ইংল্যান্ডের ১৮২ রানও তাতে হয়ে যায় মামুলি। আর ম্যাচ শেষে জ্যামাইকান ব্যাটসম্যানের ওই অহংকারী উচ্চারণ, ‘বিশ্ব যখন দেখছে, মহাবিশ্বের বসকে তো তখনই জ্বলে উঠতে হয়। আজ সে ঠিক তা-ই করেছে। ইংল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়েছে গেইল ফোর্স। ’ আজকের ইডেন গার্ডেনসের ফাইনালে কি দেখা যাবে ‘গেইল ফোর্স : পার্ট টু’?

এমনিতে তিনি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন। ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে সবার প্রথম পছন্দ ডাকাবুকো ব্যাটিংয়ের কারণে। এখন পর্যন্ত ৯টি দেশ মিলিয়ে ১৪টি ফ্র্যাঞ্চাইজি দলে খেলেছেন। তাঁর ক্রিকেটীয় মূল্য ১০.৫ মিলিয়ন ডলার। শুধু গত বছরই গেইলের আয় ছিল ৫.৩ মিলিয়ন ডলার। এর মধ্যে ৩.২ মিলিয়ন ডলার এসেছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু, সমারসেট, জ্যামাইকা তালাওয়াহর মতো ফ্র্যাঞ্চাইজিতে খেলার সুবাদে। বাকি ২.১ মিলিয়ন ডলার এনডোর্সমেন্ট থেকে। ম্যাচের বাকি সব ফ্যাক্টর ছাপিয়ে দলকে এককভাবে জেতানোর ক্ষমতা রয়েছে বলেই এ জ্যামাইকানের ওপর এত আস্থা। আজকের ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজও তাই খুব করে চেয়ে আছে গেইলের ব্যাটের দিকে।

ক্যারিবিয়ানরা জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে গেইল-ঝড়ে। এরপর দলকে ফাইনালে তোলার পথে আর অবদান নেই তেমন। ইনজুরি ভোগাচ্ছে খুব। দক্ষিণ আফ্রিকা (৪) ও ভারতের (৫) বিপক্ষে আরো যে দুই ম্যাচে খেলেন, করতে পারেননি তেমন কিছু। তবু চলতি টুর্নামেন্টে সবচেয়ে বেশি স্ট্রাইকরেট (১৯৪.৬৪) গেইলের। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের অপরাজিত ১০০ কোনো টেস্ট খেলুড়ে দেশের বিপক্ষে টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ স্কোর। তিনি একমাত্র ক্রিকেটার যাঁর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দুটি সেঞ্চুরি রয়েছে। আর সবচেয়ে বেশি ছক্কাও। তাঁর ৬০ ছক্কার পর দ্বিতীয়তে যুবরাজ সিং, মাত্র ৩৩ ওভার বাউন্ডারিতে। আজকের ফাইনালে ৩৬ বছরের এ ব্যাটসম্যানের আরেক প্রেরণা হতে পারেন মাহেলা জয়াবর্ধনে। ওই শ্রীলঙ্কানকে টপকে বিশ্ব টি-টোয়েন্টিতে সর্বকালের সর্বোচ্চ স্কোরার হতে গেইলের চাই আর ১০১ রান। সেটি আজ করতে পারলে ইংল্যান্ডের শিরোপা-সম্ভাবনা ধুলোয় মিলে যাওয়ারই কথা।

তা হোক। ইংল্যান্ড তবু কেবল গেইলের ওপর সব মনোযোগ ঢেলে দিতে নারাজ। গ্রুপ পর্বে তাঁর দানবীয় ইনিংসের স্মৃতিটা ঝাপসা না হলেও অধিনায়ক এউইন মরগান মনোযোগ ছড়িয়ে দিতে চান সব ক্যারিবিয়ানের ওপর, ‘ক্রিস গেইল মানেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ নয়—ওদের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের খেলার আগেও এ কথাটি বলেছিলাম। এখনো আমরা মনে করি তাই। ভালো দলের বিপক্ষে খেলার সময় কেবল এক-দুজন ক্রিকেটারের ওপর মনোযোগ দিলে চলে না। সবার প্রতি লক্ষ রাখতে হয়, কেননা যে কেউ আঘাত হানতে পারে। আমার মনে হয়, ভারত সেটি ভালোভাবে বুঝেছে। ’

ভারত বুঝেছে বটে। মাঠে ও ড্রেসিংরুমে ক্যারিবিয়ানদের বুনো উদ্যাপন শেল হয়ে বিঁধেছে তাদের বুকে। হোটেলে ফেরার পর ডোয়াইন ব্রাভো ও ড্যারেন সামির সঙ্গে চ্যাম্পিয়ন ডান্সেও ছিলেন গেইল। অন্তর্জালের মাধ্যমে সেটিও এখন বিশ্ব ক্রিকেটের জানা।

ইডেনে আজ ‘মহাবিশ্বের বস’-এর আরেকটি বুনো ইনিংসই আরেক দফা অমন উদ্দাম নাচের মঞ্চটা প্রস্তুত করে দিতে পারে। পারবে না গেইল ফোর্স?


মন্তব্য