kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

বিদেশিরাই ম্যাচ ঘুরাবে এবার

প্রায় দেড় মাস প্র্যাকটিসের পর শেখ রাসেল মুখিয়ে আছে স্বাধীনতা কাপ খেলার জন্য। দেশি-বিদেশি মিলিয়ে দলটা আবার পরাশক্তির চেহারায়। গত মৌসুম শেখ জামালে একাদশে সুযোগ না পাওয়া সাখাওয়াত হোসেন নতুন ক্লাবে এসে নতুন স্বপ্ন দেখছেন। নিজের প্রস্তুতি এবং দলের শক্তি-সম্ভাবনা নিয়ে এই স্ট্রাইকার কথা বলেছেন কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের সঙ্গে

১ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



বিদেশিরাই ম্যাচ ঘুরাবে এবার

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : খেলার সময় এসে গেল। পুরো দলের অবস্থা কী রকম?

সাখাওয়াত হোসেন : প্র্যাকটিসের দিক থেকে বললে দলের অবস্থা খুব ভালো। তবে আমিসহ কয়েকজনের সামান্য ইনজুরি আছে। ফিকরুও ইনজুরি কাটিয়ে প্র্যাকটিসে ফিরেছে। পারফর্ম করার জন্য দল তৈরি।

প্রশ্ন : ভারত মাতিয়ে আসা ফিকরু তেরেইফা কেমন?

সাখাওয়াত : খুব মিশুক স্বভাবের। প্র্যাকটিসে দারুণ সিরিয়াস কিন্তু অফ দ্য ফিল্ড টিমমেটদের সঙ্গে খুব মজা করে। তার খেলার গুরুত্বপূর্ণ দিক হলো, সব সময় গোলের চেষ্টা করে। ডিফেন্ডারদের খুব ব্যস্ত রাখে। এটা ফরোয়ার্ড লাইনের অন্য পার্টনারকে সুবিধা করে দেয়।

প্রশ্ন : ফরোয়ার্ড লাইনে তাঁর পার্টনার কে হবে? গত দুই মৌসুমে তো আপনি খেলার সুযোগ পাননি শেখ জামালে।

সাখাওয়াত : এবার খেলার সুযোগ পাব আশা করি। আমাদের ঘাটতি আছে সেন্ট্রাল ডিফেন্সে, বেলজিয়াম থেকে একজন স্টপার আসার কথা। এছাড়া ইকাঙ্গা আর ফিকরু খেলবে বিদেশি কোটায়। সুতরাং ফরোয়ার্ড লাইনে দেশি ফুটবলার লাগবেই। মারুফ ভাই আমাকে রাইট উইং এবং সামনেও খেলিয়েছেন প্র্যাকটিসে।

প্রশ্ন : কিন্তু দুটি প্র্যাকটিস ম্যাচেই তো শেখ রাসেল হেরেছে...

সাখাওয়াত : প্র্যাকটিসে ম্যাচে না পারলেও আমাদের স্বাধীনতা কাপে পারতে হবে। দেড় মাস প্র্যাকটিস হয়েছে, এর মধ্যে শুধু খেলার প্র্যাকটিস হয়নি, শুরু থেকে আমাদের মাথায় ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে টুর্নামেন্টের সবকটি শিরোপা জেতার জন্যই গড়া হয়েছে শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্র। পুরো মৌসুম ফিট থাকার জন্য মারুফ ভাই দুর্দান্ত প্র্যাকটিস করিয়েছেন আমাদের। দলটারও শিরোপা জেতার সামর্থ্য আছে। সেন্ট্রাল ডিফেন্স ছাড়া বাকি সব জায়গায় ভালো ফুটবলার আছে। বিদেশি এলে সেই দুর্বলতাও থাকবে না।

প্রশ্ন : কিন্তু এবার বেশ কয়েকটি দল শক্তিশালী হয়েছে। মনে হচ্ছে খুব লড়াই হবে।

সাখাওয়াত : স্থানীয় ফুটবলারদের দিয়ে বিচার করলে বড় দলগুলোর মধ্যে তেমন কোনো পার্থক্য নেই। পার্থক্য গড়ে দেবে বিদেশিরাই। অন্যান্য ক্লাবগুলোতেও ভালো বিদেশি আনা হয়েছে। তাদের পারফরম্যান্সে ম্যাচ ঘুরবে এবং দর্শকরা খেলা দেখে মজা পাবে।  

প্রশ্ন : শুরু হতে যাওয়া স্বাধীনতা কাপে লক্ষ্য কী?

সাখাওয়াত : লক্ষ্য অবশ্যই চ্যাম্পিয়ন। প্রস্তুতিতে বাকিদের চেয়ে আমরা এগিয়ে, টুর্নামেন্টে সেটা বোঝা যাবে। আমাদের পারফর্ম করে সেটা প্রমাণ করতে হবে।


মন্তব্য