kalerkantho


মুখোমুখি প্রতিদিন

খেলোয়াড়দের ইনজুরি নিয়েই আমি দুশ্চিন্তায় আছি

আবাহনী ক্লাবের সব সময়ের সঙ্গী অমলেশ সেন। বিদেশি কোচ আসে যায় কিন্তু তিনি ঠিক রয়ে যান। ফাঁকা সময়টায় তাঁর অধীনেই কাটায় আবাহনী। এবারের স্বাধীনতা কাপেও দায়িত্ব থাকছে তাঁর ওপর। দল এবং দলের প্রত্যাশা নিয়ে কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে কথা বলেছেন তিনি

৩১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



খেলোয়াড়দের ইনজুরি নিয়েই আমি দুশ্চিন্তায় আছি

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : শেখ জামালের একজন খেলোয়াড় তো আপনাদের, আদালতের নির্দেশনায় তাহলে তো খুব বেশি ঝামেলায় পড়তে হচ্ছে না আপনাদের?

অমলেশ সেন : ঝামেলার কী আছে? খেলোয়াড়রা যে দলের হয়ে নিবন্ধন ফরম জমা দেবে ফিফা এএফসির নিয়মে সে তাদেরই। শেখ জামালের কোর্টে যাওয়ার ব্যাপারটা আমার তাই বোধগম্য না।

ওদের তিনজন খেলোয়াড়ের সঙ্গে আমরা কথা বলে রেখেছিলাম তার মধ্যে দুজন কেষ্ট কুমার ও ইয়াসিন খান তো পরে ওদের ওখানেই থেকে গেল। এখন শুধু গোলরক্ষক সোহেল আমাদের সঙ্গে। ও আমাদের দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য।

প্রশ্ন : এবারের দল নিয়ে আপনি কতটা সন্তুষ্ট?

অমলেশ : দল ভালোই হয়েছে, কিন্তু ইনজুরিটাই আমাদের এখন ভোগাচ্ছে। হেমন্ত ভিনসেন্ট এখনো সেরে ওঠেনি। তার কত দিন লাগবে, সেটাও এখনো বোঝা যাচ্ছে না। ওদিকে মিডফিল্ডের ইমন বাবু ও আতিকুর রহমান জাতীয় দল থেকে ইনজুরি নিয়ে ফিরেছে। মিডফিল্ডটা নিয়ে তাই আমার এখন একটু দুশ্চিন্তা হচ্ছে।

প্রশ্ন : গত মৌসুমে আপনাদের ফরোয়ার্ড লাইনে সমস্যা ছিল, গোল পাচ্ছিলেন না।

এবার কেমন করবে আশা করছেন?

অমলেশ : এবার আশা করি ভালোই হবে। সানডে চিজোবা আছে, সঙ্গে ইংলিশ স্ট্রাইকার লি টাককে নেওয়া হয়েছে। ও খুব ভালো। ভুটানে কিংস কাপে খেলতে গিয়েই ওকে আমাদের পছন্দ হয়েছিল। ঢাকায় এসে অনুশীলনেও বেশ ভালো করছে।

প্রশ্ন : মিডফিল্ডে রোহান রিকেটসকে নেওয়ার তো সুযোগ আছে আপনাদের?

অমলেশ : হ্যাঁ, ওর স্কিল নিয়ে সন্দেহ নেই। তবে সেরা সময়টা ফেলে এসেছে অনেক দিন হলো। এখন ও কতটা কী করতে পারবে দেখার আছে। এর মধ্যে ব্রাজিল থেকেও একজনকে আনা হয়েছে। ট্রায়ালে ওকে দেখছি, দু-এক দিনের মধ্যেই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়ে নেব।

প্রশ্ন : গত মৌসুমের ফেডারেশন কাপে আপনি একা দল সামলেছেন, আবাহনী সে আসরের সেমিফাইনালেও উঠতে পারেনি। এবারের মৌসুম শুরুর টুর্নামেন্টে কী লক্ষ্য আপনাদের?

অমলেশ : আবাহনীর মতো দল কোনো টুর্নামেন্টে দ্বিতীয় হওয়া বা সেমিফাইনালে খেলার লক্ষ্য নিয়ে তো নামে না। সব সময় চ্যাম্পিয়ন হওয়াই আমাদের লক্ষ্য। এবারও সাধ্যমতো দল গোছানো হচ্ছে সেই লক্ষ্যেই। এখন টুর্নামেন্টে নামলে বোঝা যাবে আমরা কত দূর যেতে পারি।

প্রশ্ন : শেখ রাসেল, চট্টগ্রাম আবাহনীই কি মূল প্রতিপক্ষ?

অমলেশ : হ্যাঁ, তারা নিঃসন্দেহে ভালো দল করেছে। শেখ জামালকেও এখনো দুর্বল বলা যাবে না। আমাদের লড়তে হবে।


মন্তব্য