kalerkantho

26th march banner

শিষ্যদের খুঁটিয়ে দেখছেন ইয়োসেফ

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

৩০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



শিষ্যদের খুঁটিয়ে দেখছেন ইয়োসেফ

ভালো দল গড়েও কোচ নিয়ে বেশ বিপাকে পড়েছিল চট্টগ্রাম আবাহনী লিমিটেড। এ বিপত্তি থেকে মুক্তি দেওয়ার মানুষ এসে গেছেন, নতুন কোচ ইয়োসেফ পাবলিক। দুটি প্র্যাকটিস সেশনে অচেনা জায়গার অচেনা ফুটবলকে কেবল আত্মস্থ করার চেষ্টা করেছেন স্লোভাকিয়ার এই ফুটবল কোচ।

গত শনিবার ঢাকায় আসা এ কোচের জন্য বাংলাদেশের সংস্কৃতি এবং ফুটবল সবই নতুন। ‘এখানকার ফুটবল বুঝতে আমার কিছু সময় লাগবে। স্থানীয় লিগ ও ক্লাব সম্পর্কে আমি কিছু ভালো কথা শুনেছি। শুধু বাংলাদেশে নয়, লিগ সব জায়গায় কঠিন। আমি এখানকার ক্লাব দল এবং খেলোয়াড়দের শ্রদ্ধা করি। চট্টগ্রাম আবাহনীর দায়িত্ব পেয়ে আমি খুশি’, গতকাল বাফুফে ভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে নতুন দায়িত্বের চ্যালেঞ্জের কথা বলেছেন ইয়োসেফ পাবলিক। উয়েফা লাইসেন্সধারী এ কোচ স্লোভাকিয়া প্রিমিয়ার লিগে কাজ করেছেন দীর্ঘদিন। এ ছাড়া গ্রিস ও লিবিয়ার লিগে কাজ করা এই কোচকে নিয়ে ভীষণ আশাবাদী চট্টগ্রাম আবাহনীর পরিচালক ও ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যান রুহুল আমিন তরফদার, ‘তাঁর প্রোফাইল দেখে আমার পছন্দ হয়েছে। আশা করি আমাদের এ দলকে তিনি একটা পর্যায়ে তুলে নিতে পারবেন। ’

চট্টগ্রাম আবাহনীর কোচ ছিলেন শফিকুল ইসলাম মানিক। গত অক্টোবরে চট্টগ্রামে এ ক্লাবের আয়োজনে অনুষ্ঠিত শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে শিরোপা উপহার দেওয়া এ দেশি কোচ গত মাসে হঠাৎ শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাবে যোগ দেন। তাঁর দাবি অনুযায়ী ক্লাবের কোনো এক কর্মকর্তার সঙ্গে মনোমালিন্যই ছেড়ে যাওয়ার কারণ। তখন অন্যান্য ক্লাব থেকে ভালো ফুটবলার সংগ্রহ করেও প্র্যাকটিস নিয়ে সমস্যায় পড়ে আবাহনী। মুশকিল আসানের লক্ষ্যে হাজির হয়ে ৪২ বছর বয়সী স্লোভাক কোচ বলছেন, ‘দুটো প্র্যাকটিস সেশনে আমি খেলোয়াড়দের দেখেছি তারা কতটা প্রস্তুত আছে এবং সামনে তাদের নিয়ে কী করতে হবে। কিছু ভালো ফুটবলার দেখেছি, এ দলের সামর্থ্যও আমি বুঝতে পারছি। আমি ভেতরে ভেতরে উত্তেজনা অনুভব করছি। আমাদের হয়তো বা ফুটবল নিয়ে নতুন করে ভাবতে হবে, নতুন কিছু করতে হবে। ’


মন্তব্য