kalerkantho

সোমবার। ২৩ জানুয়ারি ২০১৭ । ১০ মাঘ ১৪২৩। ২৪ রবিউস সানি ১৪৩৮।


আট ফুটবলারকে জামালেই থাকার নির্দেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

২৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



মামুনুল ইসলাম, জামাল ভূঁইয়া, নাসির চৌধুরীরা যাঁর যাঁর ‘নতুন ক্লাব’-এর হয়ে অনুশীলনে মগ্ন। ওদিকে ক্লাবে-ফেডারেশনে তাঁদের নিয়েই অদৃশ্য রশি টানাটানি চলছেই।

শেখ জামাল এই তিনজনসহ গত মৌসুমের আট খেলোয়াড়কে এখনো নিজেদের দাবি করে আদালত পর্যন্ত গেছে। কাল বিচারপতি কামরুল ইসলাম সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন হাই কোর্ট বেঞ্চ ওই আট খেলোয়াড়কে অন্য কোনো ক্লাবে খেলার অনুমতি না দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনকে নির্দেশ দেওয়ার পাশাপাশি রুল জারি করেন। তাতে ওই আট খেলোয়াড়কে শেখ জামালে ফেরত না দেওয়া কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চাওয়া হয়েছে। ক্রীড়া সচিব, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি ও সেক্রেটারিসহ আট ফুটবলারকে চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। এ রুলের নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত অন্তর্বর্তীকালীন নির্দেশনা বলবৎ থাকবে।

আট খেলোয়াড়ের মধ্যে মামুনুল, নাসির, সোহেল রানা, রায়হান হাসান ও ইয়ামিন মুন্না এই মুহূর্তে চট্টগ্রাম আবাহনীর ক্যাম্পে, শেখ রাসেলে আছেন জামাল ও আলমগীর রানা এবং আবাহনীতে গোলরক্ষক শহীদুল আলম। গত বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের সেমিফাইনাল থেকে বিদায়ের পরদিনই শেখ জামাল কর্মকর্তারা এই খেলোয়াড়দের ক্লাবে নিতে জাতীয় দলের হোটেলে চলে এসেছিলেন। শেখ রাসেল, আবাহনী ও ফেডারেশনের কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপে তা হয়নি। পরে ফেডারেশন থেকেই এই খেলোয়াড়রা নিজেদের নতুন ক্লাবে চলে যান। কিন্তু শেখ জামাল তাদের দাবি ছাড়েনি। দলবদলের শেষ দিনে ১৯ জন স্থানীয় খেলোয়াড়ের নিবন্ধন ফরম জমা দেওয়ার আগেই ওই আট খেলোয়াড়ের নাম উল্লেখ করে তারা আপত্তি জানিয়ে রাখে ফেডারেশনে। তাঁদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা ফেডারেশনের প্লেয়ার্স স্ট্যাটাস কমিটির।


মন্তব্য