kalerkantho


বার্লিনে ইংলিশরাজ

২৮ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বার্লিনে ইংলিশরাজ

ফিফা র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থানটা যদিও এখন জার্মানির দখলে নেই, তাই বলে ২০১৪ বিশ্বকাপ জয়ের সুবাদে তারাই যে বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন—এই সত্যটাও তো অস্বীকারের উপায় নেই। প্রীতি ম্যাচ হলেও জার্মানদের তাদেরই মাটিতে ৩-২ গোলে হারানো, তাও ২-০তে পিছিয়ে থাকার পর, ইংল্যান্ডের এমন সাফল্য ব্রিটিশ মিডিয়ায় তো সাফল্যের স্তুতিগাথা চলবেই, চলছেও। এমনকি ইংল্যান্ডের কোচ রয় হজসনও বলে দিয়েছেন, ‘থ্রি লায়ন্স কোচ হিসেবে এটাই আমার সেরা মুহূর্ত। ’

সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্বকাপ কিংবা ইউরো, বৈশ্বিক বড় কোনো আসরেই বলার মতো কোনো সাফল্য নেই ইংল্যান্ডের। যদিও ইউরো বাছাই পর্বে তারা জিতেছে ১০ ম্যাচের সবগুলোতেই, অবশ্য বাছাই গ্রুপে সুইজারল্যান্ডই ছিল সবচেয়ে শক্তিশালী (!) প্রতিপক্ষ। ইউরোর মূল আসর মাঠে গড়ানোর আগে জার্মানদের বিপক্ষে এই জয় নিঃসন্দেহে মানসিকভাবে অনেক এগিয়ে দেবে ইংল্যান্ডকে। ওয়েইন রুনি ছিলেন না চোটের কারণে, লিস্টার সিটির রূপকথার নায়ক জেমি ভার্ডি তো ছিলেন। অথচ তাঁকে কিনা মূল একাদশেই রাখেননি হজসন, খেলিয়েছেন ড্যানি ওয়েলবেককে। সেই জ্বালা জুড়াতেই মাঠে নেমে মিনিট তিনেকের মাথাতেই গোল করেছেন ভার্ডি, দলকে ফিরিয়েছেন সমতায়। তার আগে অবশ্য একতরফা প্রাধান্য ছিল জার্মানদেরই। টোনি ক্রোস (৪৩ মিনিট) ও মারিও গোমেজের (৬৭ মিনিট) গোলে এগিয়ে যাওয়া জার্মানির সঙ্গে ইংল্যান্ড ব্যবধান কমায় হ্যারি কেইনের গোলে। প্রিমিয়ার লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা কেইন ও দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা ভার্ডির গোলে সমতা ফেরায় ইংল্যান্ড আর ইনজুরি সময়ে জর্ডান হেন্ডারসনের ক্রসে এরিক ডায়ারের হেড থেকে করা গোলে বার্লিনের অলিম্পিক স্টেডিয়ামে বিজয় নিশান ওড়ায় ইংল্যান্ডই।

পরশু ইউরোপের অন্য প্রীতি ম্যাচগুলোর মধ্যে পোল্যান্ড ৫-০ গোলে হারিয়েছে ফিনল্যান্ডকে, তবে স্কোরশিটে নাম তুলতে পারেননি রবার্ট লেভানদোস্কি। অস্ট্রিয়া ২-১ গোলে হারিয়েছে আলবেনিয়াকে আর রাশিয়া ৩-০ গোলে হারিয়েছে লিথুয়ানিয়াকে। বিবিসি


মন্তব্য