kalerkantho

25th march banner

শ্রীলঙ্কার সঙ্গে দ. আফ্রিকারও বিদায়

২৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



শ্রীলঙ্কার সঙ্গে দ. আফ্রিকারও বিদায়

নায়ক হতে পারতেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ। ১৫ রানে ৪ উইকেট হারানো দলটাকে শেষ ওভার পর্যন্ত টেনে নিয়ে গিয়েছিলেন শুধু নয়, তখনো জয়ের সম্ভাবনাও ধরে রেখেছিলেন। কিন্তু শেষটায় আর পারলেন না। ৬ বলে ১১ রানের লড়াইটা জেতা হলো না তাঁর। চ্যাম্পিয়নদের এবার তাই সেমিফাইনালের আগেই বিদায় নিতে হচ্ছে। ১০ রানের জয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পর গ্রুপ ওয়ান থেকে ইংল্যান্ডই শেষ চারে। এই ম্যাচের ভাগ্য দক্ষিণ আফ্রিকানদের ভাগ্যটাও লেখা হয়ে গেছে। এখন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শেষ ম্যাচ তাদের স্রেফ আনুষ্ঠানিকতার।

জিতলেই সেমিফাইনাল—এমন সমীকরণের মুখে শুরুতে ব্যাট করে ১৭১ রানের লড়াকু সংগ্রহই গড়ে ইংল্যান্ড। জস বাটলারের অপরাজিত ৬৬ রানের ইনিংসে ভর করে ৪ উইকেট হারিয়েই তারা এই রান তুলে ফেলে। দ্বিতীয় ওভারেই অ্যালেক্স হেলসকে হারানোটা তাদের জন্য ছিল অবশ্য বড় ধাক্কা।

দলীয় ৪ রানের সময় এই ওপেনার রানের খাতা খোলার আগেই এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে পড়েন রঙ্গনা হেরাথের বলে। কিন্তু ইংলিশদের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান জো রুটকে নিয়ে প্রাথমিক চাপটা ভালোমতো সামলে ওঠেন আরেক ওপেনার জেসন রয়। দ্বিতীয় উইকেটে তাঁরা যোগ করেন ৬১ রান। রুট আউট হওয়ার পর শুরু হয় বাটলার-ঝড়। ইংলিশ এই উইকেটরক্ষক খেলেছেন হার না মানা ৬৬ রানের ঝোড়ো ইনিংস। ৩৭ বলের ইনিংসটি তিনি সাজিয়েছিলেন ৮ চার ও ২ ছক্কায়। রয় আউট হন ৪২ রান করে। অধিনায়ক মরগান রান আউট হওয়ার আগে যোগ করেন গুরুত্বপূর্ণ ২২ রান। শ্রীলঙ্কার হয়ে ২৬ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন জেফরি ভানদেরসে।

জবাবে লঙ্কানদের ইনিংসের প্রথম ওভারেই ডেভিড উইলির আঘাত। মাত্র ২ রানে ফেরত পাঠান তিনি অভিজ্ঞ তিলকারত্নে দিলশানকে। দ্বিতীয় ওভারে এসে ক্রিস জর্ডান তুলে নেন আরেক ওপেনার দিনেশ চান্দিমালকে (১)। উইলি পরের ওভারে ফিরে আবারও সফল, বোল্ড করেন ওয়ানডাউনে নামা মিলিন্দা শ্রীবর্ধনেকে। একের পর এক উইকেট হারিয়ে লঙ্কানরা তখন দিশাহারা। এর মধ্যেই লঙ্কানদের স্কোর ১৫/৪ বানিয়ে লাহিরু থিরিমান্নের ফিরে যাওয়া রান আউট হয়ে। চামারা কাপুগেদেরাকে নিয়ে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজের লড়াইটা শুরু এর পরই। পঞ্চম উইকেটে দুজনের ৮০ রানের জুটি। ১৩তম ওভারে কাপুগেদেরাকে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন লিয়াম প্লাংকেট। থিসারা পেরেরা এরপর ম্যাথুজকে সঙ্গ দিচ্ছিলেন। মঈন আলীর ১ ওবারে ২১ রান নিয়ে ৩০ বলে ৬১ রানের লক্ষ্যমাত্রাকে তারা ২৪ বলে ৪০-এও নামিয়ে এনেছিলেন। কিন্তু কাপুগেদেরা (২৭ বলে ৩০) লড়াইটা চালিয়ে যেতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত পারেননি ম্যাথুজও। ৫৪ বলে ৭৩ রান করেও অপরাজিত, কিন্তু দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেননি। শেষ ওভারে ১১ রানের জায়গায় মাত্র ১ রান নিয়ে ১৬১-তেই থেমে গেছে শ্রীলঙ্কা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

ইংল্যান্ড : ২০ ওভারে ১৭১/৪ (বাটলার ৬৬*, রয় ৪২, রুট ২৫, মরগান ২২; ভানদেরসে ২/২৬, হেরাথ ১/২৭)।

শ্রীলঙ্কা : ২০ ওভারে ১৬১/৮ (ম্যাথুজ ৭৩*, কাপুগেদেরা ৩০, পেরেরা ২০; জর্ডান ৪/২৮, উইলি ২/২৬, প্লাংকেট ১/২৩)

ফল : ইংল্যান্ড ১০ রানে জয়ী।


মন্তব্য