kalerkantho

শনিবার । ২১ জানুয়ারি ২০১৭ । ৮ মাঘ ১৪২৩। ২২ রবিউস সানি ১৪৩৮।


ব্রাজিলকে রুখে দিলেন সুয়ারেস

২৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ব্রাজিলকে রুখে দিলেন সুয়ারেস

শেষ হলো ৬৪০ দিনের নির্বাসন। গত বিশ্বকাপে ব্রাজিলেই নিষিদ্ধ হয়েছিলেন ইতালির জর্জিও কিয়েল্লিনিকে কামড়ে। শাস্তি কাটিয়ে লুই সুয়ারেস আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতামূলক ফুটবলে গতকাল ফিরলেন সেই ব্রাজিলে। ফিরে আবারও ‘কামড়’! তবে এবার কোনো ফুটবলারের গায়ে নয়, বসালেন ব্রাজিলিয়ানদের হূদয়ে। রেসিফেতে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে ২৬ মিনিটে ২-০ গোলে এগিয়ে জয়ের স্বপ্নই দেখছিলেন নেইমাররা। কিন্তু এদিনসন কাভানির লক্ষ্যভেদের পর ৪৮ মিনিটে সুয়ারেসের গোলে ২-২ সমতায় শেষ হয় ম্যাচটি। তাই বুক ভাঙে ব্রাজিলিয়ানদের।

এমনিতে নেইমার আর সুয়ারেস দারুণ বন্ধু। বার্সেলোনায় একজন গোল করলে সমান আনন্দে ভাসেন আরেকজন। সেই দুই বন্ধু মুখোমুখি হওয়ায় ধরেছিলেন মজার বাজি। হারলে বার্গার খাওয়াতে হবে! ড্র হওয়ায় সেই বার্গার আর খাওয়াতে হলো না কাউকে। তবে দুইবার এগিয়েও ড্র হওয়াটা মানতে পারছিলেন না নেইমার। ম্যাচ শেষে রেফারি আর উরুগুয়ের খেলোয়াড়দের সঙ্গে জড়িয়েছিলেন তর্কে। তখনই এগিয়ে আসেন সুয়ারেস। ব্যাপারটা অপ্রীতিকর হওয়ার আগেই নেইমারকে শান্ত করেন, জড়িয়ে ধরেন বুকে। ‘ড্রাকুলা’ খেতাব পেয়ে যাওয়া সুয়ারেস যে ভালো মানুষ হয়েই ফিরেছেন তাতে আর সন্দেহ থাকার কথা নয় কারো।

চোটের জন্য খেলতে পারেননি উরুগুয়ের দুই ডিফেন্ডার ডিয়েগো গোদিন আর হোসে গিমেনেস। নিষেধাজ্ঞার কারণে ম্যাক্সি পেরেইরাও না থাকায় নড়বড়ে ছিল রক্ষণভাগ। এতটাই যে ৪২ সেকেন্ডে উরুগুয়ের কেউ বল ছোঁয়ার আগেই এগিয়ে যায় ব্রাজিল। উইলিয়ানের দারুণ ক্রসে কোনোরকমে শুয়ে পা বাড়িয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন বায়ার্ন মিউনিখের ডগলাস কোস্তা। কিছুক্ষণ পর ডি বক্সে বুক দিয়ে বল নামিয়ে লক্ষ্যভ্রষ্ট শটে একটা সুযোগ মিস করেন নেইমার। ২৬ মিনিটে আর ভুল নয়। নেইমারেরই ডিফেন্সচেরা পাস ডি বক্সে স্লাইড করেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি উরুগুয়ের আলভারো পেরেইরা। এগিয়ে আসা গোলরক্ষক ফের্নান্দো মুসলেরাকে বোকা বানিয়ে ব্রাজিলকে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন চীনের ক্লাব ফুটবলে নাম লেখানো ২৮ বছর বয়সী মিডফিল্ডার রেনাতো অগাস্তো।  

৩১ মিনিটে গোল করে উরুগুয়েকে ম্যাচে ফেরান এদিনসন কাভানি। আলভারো পেরেইরার ক্রসে ডি বক্সে হেড নিয়েছিলেন কার্লোস সানচেস। সে সময় কাভানির ধারেকাছেও ছিলেন না ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার দাভিদ লুইজ। সুযোগটা কাজে লাগাতে ভুল করেননি কাভানি। বিরতির এক মিনিট পরই সমতা ফেরান সুয়ারেস। বাঁ প্রান্ত থেকে বল পাওয়া সুয়ারেসের কাছে যাওয়ার সময় পাননি লুইজ। তার আগেই নেওয়া দুরন্ত শটটি ক্লিয়ার করার সুযোগ ছিল গোলরক্ষক আলিসন বেকারের। কিন্তু তাঁর হাত ছুঁয়ে বল জড়ায় জালে। এরপরই ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে পৃথিবীর মায়া কাটানো সাবেক ফিজিও ওয়াল্টার ফেরেইরার ছবি আঁকা টিশার্ট দেখিয়ে গোলটা তাঁকে উৎসর্গ করেন সুয়ারেস। নিজের ক্যান্সারের চিকিৎসা বন্ধ করে যে সুয়ারেসকে বিশ্বকাপে ফিট করার কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন তিনি।

এই ড্রতে ৫ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে লাতিন অঞ্চলে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় স্থানটা পাকাপোক্ত করেছে উরুগুয়ে। সমান ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ইকুয়েডর। ব্রাজিল, প্যারাগুয়ে, আর্জেন্টিনার পয়েন্ট সমান ৮। তবে গোল ব্যবধানে ব্রাজিল তিন, প্যারাগুয়ে চার আর আর্জেন্টিনা আছে পাঁচে।

এদিকে কনকাকাফ অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে অঘটনের শিকার হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। গুয়াতেমালার মাঠ থেকে ইয়ুর্গেন ক্লিন্সমানের দল ফিরেছে ০-২ গোলে হেরে। এএফপি


মন্তব্য