kalerkantho


পাকিস্তানকে বিদায় করে দিল অস্ট্রেলিয়া

২৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



পাকিস্তানকে বিদায় করে দিল অস্ট্রেলিয়া

পাকিস্তানকে হারিয়ে টুর্নামেন্টে সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখল অস্ট্রেলিয়া। কাল মোহালিতে ২১ রানে হারিয়েছে তারা পাকিস্তানকে।

প্রথমে ব্যাট করে স্টিভেন স্মিথের অর্ধশতকে (৬১) ১৯৩ রান তোলে অস্ট্রেলিয়া। জবাবে শুরুতে দৃঢ়তা দেখিয়েও শেষ পর্যন্ত ১৭২ রানে অল আউট শহীদ আফ্রিদির দল। এই হারে ২০০৯-এর চ্যাম্পিয়নদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এবারের আসর থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে। অস্ট্রেলিয়ার শেষ চারে ওঠা-না ওঠা এখন নির্ভর করছে ভারতের বিপক্ষে তাদের শেষ ম্যাচে। দুই ম্যাচ জেতা ভারতীয়দের সামনেও একই সমীকরণ।

পাকিস্তান বাংলাদেশের বিপক্ষে পাওয়া একটা জয় পুঁজি করেই দেশে ফিরছে। অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের আগে বাংলাদেশ ছাড়া আর কোনো দলের বিপক্ষে ১৬০-এর বেশি রানও তুলতে পারেনি তারা। কাল অস্ট্রেলীয়দের ছুড়ে দেওয়া ১৯৪ রানের লক্ষ্য তাই বড় চ্যালেঞ্জ হয়েই দাঁড়ায় তাদের সামনে। তার ওপর জেমস ফকনারের দুর্দান্ত বোলিং লড়াইটা আরো কঠিন করে তোলে ব্যাটসম্যানদের জন্য।

জয় শেষ পর্যন্ত ফকনারের। ২৭ রান দিয়ে ক্যারিয়ার সেরা ৫ উইকেট তুলে নিয়েছেন তিনি। শেষ ২ ওভারেই ফিরিয়েছেন পাকিস্তানের ৪ ব্যাটসম্যানকে। ম্যাচের শুরুতে অস্ট্রেলিয়াকেও নড়বড়ে দেখিয়েছে। ওয়াহাব রিয়াজের বলে ওসমান খাজা ও ডেভিড ওয়ার্নার দ্রুত ফিরে গেছেন। ৭.২ ওভারে ৫৭ রান তুলতে তাদের ওপরের দিকের তিন ব্যাটসম্যান নেই। একটা প্রান্ত আগলে রেখে ম্যাচটা নিজেদের দিকে ঘুরিয়ে নিয়েছেন স্মিথ। ৪৩ বলে ৬১ রান করে অপরাজিত ছিলেন অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক। পরে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (১৮ বলে ৩০) ও শেন ওয়াটসন (২১ বলে ৪৪) তাঁকে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন।

জবাবে পাকিস্তানের শুরুটাও ছিল মারকুটে। কিন্তু শারজিল খান ১৯ বলে ৩০ করে ফেরার পর সেই ছন্দটা নষ্ট হয়ে যায়। ওয়ানডাউনে নামা খালিদ লতিফ বলে বলে রান তুলেছেন। উমর আকমল, শহীদ আফ্রিদি ও শোয়েব মালিকের সঙ্গে তাঁর জুটি বড় হতে হতেও হয়নি। আকমল ২০ বলে ৩২ করে আউট, আফ্রিদি করেছেন ১৪ রান, লতিফের ৪১ বলে ৪৬। তিনি আউট হওয়ার পর শোয়েব মালিক ইনিংসটাকে টেনে নিতে চেয়েছেন। কিন্তু অন্যপ্রান্তে ততক্ষণে ধ্বংসযজ্ঞ শুরু করে দিয়েছেন জেমস ফকনার। ইমাদ ওয়াসিম, সরফরাজ আহমেদ, ওয়াহাব রিয়াজদের উইকেট একের পর এক তিনি তুলে নিয়েছেন, অন্যদিকে তরতরিয়ে বেড়েছে রান রেট। মালিক ২০ বলে ৪০ করেও তার সঙ্গে পাল্লা দিতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেটে ১৭২ রানে থেমেছে তাদের ইনিংস। ক্রিকইনফো


মন্তব্য