kalerkantho


আজ জিতলেই সেমিতে গেইলরা

২৫ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



আজ জিতলেই সেমিতে গেইলরা

অন্য গ্রুপ থেকে ইতিমধ্যেই সেমিফাইনালে উঠে বসে আছে নিউজিল্যান্ড। এবার তাদের মতোই টানা তিন ম্যাচ জিতে ‘এ’ গ্রুপ থেকে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে চায় ওয়েস্ট ইন্ডিজও। কিন্তু নাগপুরে আজ তাদের মুখোমুখি হতে যাওয়া দক্ষিণ আফ্রিকাও জিততে মরিয়া থাকবে স্বাভাবিক। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২২৯ রান করেও হারের যন্ত্রণায় বিদ্ধ প্রোটিয়াদের শেষ চারে যেতে জয়ের বিকল্পও নেই। কারণ যেখানে তিন ম্যাচের দুটোতে জিতে ইংলিশদের সংগ্রহ ৪ পয়েন্ট, সেখানে আজ তৃতীয় ম্যাচের আগে ফাফ দু প্লেসির দলের জয় কেবল আফগানিস্তানের বিপক্ষে। এ অবস্থাটা তাদের জন্য কঠিনও, কারণ তারা সামনে পাচ্ছে আত্মবিশ্বাসী ক্যারিবীয়দেরই।

প্রথম ম্যাচে ক্রিস গেইলের বিস্ফোরক সেঞ্চুরিতে যারা ইংল্যান্ডের ১৮৩ রানের বিশাল সংগ্রহও অনায়াসেই পাড়ি দিয়েছে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ফিল্ডিংয়ের সময় হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে ড্রেসিংরুমে চলে যাওয়া গেইলকে নির্দিষ্ট সময় পরই তাই ব্যাটিংয়ে নামতে হতো এবং পেছাতে পেছাতে তাঁকে ৬ নম্বরেই চলে যেতে হয়েছিল। যদিও পরে ব্যাটিংয়ে নামার প্রয়োজন হয়নি। ওপেনিংয়ে নেমে ৬৪ বলে অপরাজিত ৮৪ রানের ইনিংসে গেইলের ব্যাটিংয়ের প্রয়োজনীয়তাও আর অনুভব করতে দেননি আন্দ্রে ফ্লেচার। ৭ উইকেটের সেই জয়ের পর আজ আবার ওপেনিংয়ে ফিরছেন গেইল এবং আগের ম্যাচে ফ্লেচারের সাফল্যে আজ সম্ভবত ব্যাটিং অর্ডারে একটু পিছিয়েই যেতে হচ্ছে জনসন চার্লসকে। ওপেনিং সঙ্গী হিসেবে আবার ফ্লেচারকে ফিরে পাওয়া প্রসঙ্গে গেইল যেমন বলছিলেন, ‘ওর সঙ্গে এর আগে বহুবারই ইনিংস ওপেন করা হয়েছে আমার। সুতরাং আমি জানি ও কী ধরনের খেলোয়াড়। ও ভীষণ বিপজ্জনক ব্যাটসম্যান এবং দলকে বড় সংগ্রহও গড়ে দিতে সক্ষম। ’

দুজনের কাছ থেকেই যদি ক্যারিবীয়রা ধুন্ধুমার ব্যাটিং পেয়ে থাকে, তাহলে শেষ চারে যাওয়ার পথও মসৃণ হবে তাদের। তবে ওপেনিংয়ে তারা ব্যর্থ হলেও ক্যারিবীয়দের ব্যাটিং লাইনে বিধ্বংসী ব্যাটিং জানা ব্যাটসম্যানের অভাব নেই। তাই আজই শেষ চার নিশ্চিত করার লক্ষ্যের কথা দারুণ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বলতে পারলেন অধিনায়ক ড্যারেন সামি, ‘শিরোপা জিততে আমাদের ছয়টি পদক্ষেপ (ছয়টি ম্যাচ) ফেলতে হবে। এর মধ্যে দুটো ফেলা (দুটো ম্যাচ জেতা) হয়ে গেছে। আগামীকাল (আজ) লক্ষ্যের দিকে আরেক পদক্ষেপ এগোবার পালা এবং আমাদের সেই পদক্ষেপটি এবার দক্ষিণ আফ্রিকা। ’ কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকাও নিশ্চয়ই পাল্টা আক্রমণ করতে মুখিয়ে থাকবে। আর টি-টোয়েন্টির চাহিদা মেটানোর মতো বিস্ফোরক ব্যাটসম্যানের তো অভাব নেই তাদেরও। তবু এই ম্যাচের আগে তাদের জন্য বড় ধাক্কা হয়েই এসেছে জেপি দুমিনির ইনজুরি। হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে পড়ে এই ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়েছেন এ অলরাউন্ডার। তাঁকে হারানোর ক্ষতি স্বীকারেও আপত্তি ছিল না প্রোটিয়া কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর, ‘জেপি আমাদের জন্য অনেক বড় খেলোয়াড় নিঃসন্দেহে। ওকে না পাওয়াটা তাই বড় ধাক্কাই, যা দলের ভারসাম্যকেও নষ্ট করবে। ’ এএফপি, এপি


মন্তব্য