kalerkantho


চ্যাপেল-শোয়েবও তাসকিনের পাশে

২২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



চ্যাপেল-শোয়েবও তাসকিনের পাশে

প্রতিবাদে সোচ্চার গোটা দেশ। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি) বসে নেই।

তারাও তাসকিন আহমেদের নিষেধাজ্ঞা চ্যালেঞ্জ করে বসেছে। বাংলাদেশ দল থেকেও কড়া ভাষায় এর প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। তবু যেন একটা কিছুর শূন্যতা থেকেই যাচ্ছিল। আর সেটি হলো বহির্বিশ্বেও নিজেদের অবস্থানের পক্ষে জনমত তৈরি হওয়া। সেই শূন্যতাও কাল পূরণ হয়ে গেল। কারণ দুই বোলারের নিষিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় যে ইয়ান চ্যাপেলের মতো ক্রিকেট ব্যক্তিত্বও সহমর্মী হয়ে পাশে দাঁড়িয়ে গেলেন, যিনি নিজেও নানা সময়ে বাংলাদেশকে নিয়ে কটু মন্তব্য করতে পিছপা হননি। এবার অস্ট্রেলিয়ার সাবেক এ অধিনায়ক ব্যতিক্রম। তিনি যখন ঘটনার ‘টাইমিং’ নিয়ে প্রশ্ন তুললেন, তখন শুধুই তাসকিনের পিঠে সমর্থনের হাত বুলিয়ে যাওয়াকেও কর্তব্য বলে মনে করলেন শোয়েব আখতার। বাংলাদেশের তরুণ এ পেসারকে ‘বিশ্ব ক্রিকেটেরই সম্পদ’ বলে উল্লেখ করে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাঁর দ্রুত প্রত্যাবর্তনও কামনা করেছেন ‘রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস’ খ্যাত পাকিস্তানের সাবেক এ ফাস্ট বোলার।

তাসকিনকে দ্রুত ফেরানোর জন্য বিসিবি যখন নানামুখী তত্পরতায় ব্যস্ত, তখন চ্যাপেলের চাছাছোলা মন্তব্যের ঝাঁজ গিয়ে লাগছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির গায়েও। বিশেষ করে টুর্নামেন্ট চলার সময় বাংলাদেশের দুই বোলারকে নিষিদ্ধ করার মতো ঘটনাকে ‘অযৌক্তিক’ বলেও মনে হয়েছে তাঁর। ক্রিকেটের সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ইএসপিএন-ক্রিকইনফোর ‘ম্যাচ ডে’ নামের আলোচনা অনুষ্ঠানের বিশেষজ্ঞ এ সাবেক ক্রিকেটার কোনো রাখঢাক না করেই বলে ফেলেছেন, ‘এই সিদ্ধান্তের পেছনে যুক্তিটা কী, সেটাই তো আমি বুঝলাম না। বাংলাদেশের প্রতি খুব রূঢ় এক সিদ্ধান্তই হয়ে গেল এটি। ’ এটিকে বাজে সিদ্ধান্ত বলতেও ছাড়েননি ইয়ান চ্যাপেল, ‘টুর্নামেন্টের মাঝপথে এ রকম কিছু হওয়াটা সত্যিই খুব বাজে সিদ্ধান্ত। বাংলাদেশের জন্য তাই আমার সমবেদনাই রইল। এই সময়ে গুরুত্বপূর্ণ দুজন বোলারকে হারানোর ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়াটা সত্যিই খুব মুশকিল। ’

সেই মুশকিল আরো বেড়েছে পেটের পীড়ায় আক্রান্ত হওয়া তামিম ইকবালও গত রাতে অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে খেলতে না পারায়। একাদশ গঠনে এমন ঝামেলার দিনেই বেঙ্গালুরুতে দলের সঙ্গে থাকা তাসকিনকে নিয়ে টুইট করেছেন শোয়েব আখতার। একসময়ের এ গতিমানব তাঁর টুইটার বার্তায় লিখেছেন, ‘তাসকিনের জন্য সত্যিই খুব খারাপ লাগছে। আশা করছি, শিগগিরই আইসিসির ছাড়পত্র নিয়ে ও মাঠে ফিরবে। কারণ ও বিশ্ব ক্রিকেটেরও সম্পদ। ’ যা এই দুঃসময়েও তাসকিনের কাছে দারুণ অনুপ্রেরণাদায়ক কিছুই হওয়ার কথা। ক্রিকইনফো, টুইটার


মন্তব্য