kalerkantho


টেন্ডুলকারকে কুর্নিশ কোহলির!

২১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



টেন্ডুলকারকে কুর্নিশ কোহলির!

বিশ্বকাপ মানেই ভারতের কাছে পাকিস্তানের হার। ইডেনে পাকিস্তানের জয়ভাগ্যও কাজে এলো না এই সত্যের কাছে।

বিরাট কোহলির অপরাজিত ৫৫ রানের ইনিংসে ভর করে ভারত ৬ উইকেটে হারিয়েছে পাকিস্তানকে। হাফসেঞ্চুরির পর কোহলির দুই হাত ছড়িয়ে উদ্যাপনের ছবিটাই যেন শনিবারের ইডেনের পোস্টার হয়ে রইল।

পাকিস্তানের বিপক্ষে অনেকগুলো মনে রাখার মতো ইনিংসই আছে কোহলির, তবু ইডেনে হাফসেঞ্চুরির পর অমন উদ্যাপনের কারণ হিসেবে ভারতীয় ক্রিকেটের নতুন পোস্টারবয় জানালেন মাস্টার ব্লাস্টারের উপস্থিতিকেই, ‘তাঁকে দেখেই ক্রিকেট খেলা শুরু করেছি আমি। তাই তাঁর সামনে, ৬৭ হাজার দর্শককে সাক্ষী রেখে এমন একটা কিছু করে দেখানোটা উদ্যাপন করা তো সত্যিই অসাধারণ অনুভূতি। ’ ম্যাচশেষে কোহলি রীতিমতো বাকরুদ্ধ, ‘ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না মনের অবস্থাটা। মাঠে আমার ভাই আছে, এখানে টেন্ডুলকারও আছে। বছরের পর বছর ধরে দেখেছি লোকে টেন্ডুলকারের নামে জয়ধ্বনি দিচ্ছে। আমি তাঁর সামনে এমন একটা কিছু করতে পারছি এবং তিনি হাসছেন! তাঁকে দেখে বড় হয়ে ওঠা একজন তরুণ ক্রিকেটারের এ অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। আমি খুবই কৃতজ্ঞ, আমার জন্য খুবই আবেগমাখা একটা মুহূর্ত।

’ ভারতের জয়ের কারণ কোহলি হলে পাকিস্তানের হারের কারণ স্নায়ুর চাপ। ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথ মানেই স্নায়ুর চাপের খেলা এবং পাকিস্তানের বিশ্বজয়ী অধিনায়ক ইমরান খান মনে করেন চাপেই হেরে বসেছে আফ্রিদির দল, ‘চাপের মুখে বেশ কিছু ভুল করল আফ্রিদি, ইডেনের পিচটা বুঝতে পারেনি। এখানে স্পিনাররা সহায়তা পেত, সেখানেই প্রস্তুতি ম্যাচে ৪ উইকেট নেওয়া বাঁহাতি স্পিনার ইমাদ ওয়াসিমকে খেলাল না। ভারতের ২৩ রানে ৩ উইকেট পড়ে যাওয়ার পরও স্পিনার আনল না। উইকেটের জন্য একটুও ঝাঁপাল না, একটুও লড়ল না, সহজেই হেরে গেল। ’ পাকিস্তানকে লড়তে না দেখার দুঃখ নিয়েই ইডেন ছেড়েছেন ইমরান। আনন্দবাজার


মন্তব্য