kalerkantho

সোমবার। ২৩ জানুয়ারি ২০১৭ । ১০ মাঘ ১৪২৩। ২৪ রবিউস সানি ১৪৩৮।


প্রোটিয়াদের কাঁপিয়ে দিয়েছিল আফগানিস্তান

২১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



প্রোটিয়াদের কাঁপিয়ে দিয়েছিল আফগানিস্তান

২২৯ করেও অবিশ্বাস্য হার! আত্মবিশ্বাসই নড়ে গিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকার। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেই হারের ‘হ্যাংওভারেই’ কিনা গতকাল ২০৯ করেও আফগানিস্তানের সঙ্গে ধুঁকছিল ফাফ দু প্লেসিসের দল। তবে অপেশাদার আফগানরা প্রোটিয়াদের কাঁপিয়ে দিলেও শেষ পর্যন্ত হেরে গেছে ৩৭ রানে। ইনিংসের একেবারে শেষ বলে তারা গুটিয়ে যায় ১৭২ রানে।

মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়েতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ১০ ওভারে দক্ষিণ আফ্রিকা করেছিল ২ উইকেটে ৯২। জবাবে প্রথম ১০ ওভারে ২ উইকেটে ১০৩ করে প্রোটিয়াদের ভয় পাইয়ে দিয়েছিল আসগর স্টানিকজাইয়ের দল। কিন্তু ক্রিস মরিস ৪ উইকেট নিয়ে হতে দেননি আফগান রূপকথা।

২০৯ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৯ বলে ৩ বাউন্ডারি ৫ ছক্কায় ৪৪ করেছিলেন মোহাম্মদ শেহজাদ। ক্রিস মরিস তাঁকে বোল্ড করলেও রানের চাকা সচল রেখেছিলেন নূর আলী জাদরান (২৪ বলে ২৫), গুলবদিন নাইব (১৮ বলে ২৬), সামিউল্লাহ শেনওয়ারিরা (১৪ বলে ২৫)। তবে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারানোয় আর পেরে ওঠেনি শেষ পর্যন্ত। তা ছাড়া ১৭তম ওভারে ডি ভিলিয়ার্স যেমন ঝড় তুলে ২৯ রান নিয়েছিলেন শেষদিকে এমন কেউ ছিল না আফগানিস্তানের। মরিস ২৭ রানে ৪টি আর ২টি করে উইকেট নেন কাগিসো রাবাদা ও কাইল অ্যাবট। প্রথম ম্যাচে ২ ওভারে ৩৩ রান দিয়ে বাদ পড়া ডেল স্টেইনের জায়গায় সুযোগ পেয়ে ডেভিড ওয়াইজ ৪ ওভারে ৪৭ রানে ছিলেন উইকেটহীন।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে কুইন্টন ডি ককের ৩১ বলে ৪৫, ফাফ দু প্লেসিসের ২৭ বলে ৪১, এবি ডি ভিলিয়ার্সের ২৯ বলে ৬৪তে ৫ উইকেটে ২০৯ রানের পাহাড় গড়ে প্রোটিয়ারা। রশিদ খানের করা ১৭তম ওভারে ২৯ রান নেন ডি ভিলিয়ার্স (৬, ৪, ৬, ৬, ৬, ১)! তবে এবি ডি ভিলিয়ার্সের ২৯ বলে ৬৪ রানের ঝড়ের পরও ম্যাচসেরা হয়েছেন ক্রিস মরিস। ক্রিকইনফো


মন্তব্য