kalerkantho


আজও উঠবে গেইল-ঝড়!

২০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



আজও উঠবে গেইল-ঝড়!

আরো একটা ম্যাচে ক্রিস গেইলের ধুন্ধুমার ব্যাটিং দেখতে যাঁরা মুখিয়ে আছেন, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এই ‘ব্যাটিং দানবের’ পরিসংখ্যানে চোখ বুলিয়ে এলে তাঁরা কিছুটা আশাহতই হবেন। ৫ ম্যাচ খেলেছেন, সাকুল্যে রান ৭৬, সর্বোচ্চ ৬৩ অপরাজিত—সেই ম্যাচেও ক্যারিবীয়দের হারতে হয়েছিল ৫৭ রানের বড় ব্যবধানে।

হবে না কেন, গেইলের পর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ যে শিবনারায়ন চন্দরপলের, ৭! আর সেটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেই ২০০৯ সালে। আজও গেইল-ঝড়ের সমূহ সম্ভাবনা বা আশঙ্কা থাকলেও লঙ্কানদের ভীত ভাবার তাই কোনো কারণ নেই। গেইল ও ক্যারিবীয়দের এ পর্যন্ত তারা ভালোভাবেই সামলেছে, জিতেছে ৮ ম্যাচের ৬টিতেই।

তবে এটাও ঠিক যে গেইল এক বছরের বেশি সময় কোনো আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি না খেলে, ম্যাচের আগের রাতেও পার্টিতে মজে থেকে ইংলিশদের ১৮৪ রানও মামুলি বানিয়ে দিতে পারেন। তাহলে তিনি কেন লঙ্কানদের বিপক্ষে আগের সব হিসাব-নিকাশ পালটে দিতে পারবেন না! খাতার অঙ্ক তাই যা-ই বলুক, এই ম্যাচেও চোখ থাকবে ৬ ফুট ২ ইঞ্চি উচ্চতার এ ব্যাটসম্যানের দিকেই। আর বেঙ্গালুরুর চিন্নাসোয়ামি স্টেডিয়ামের উইকেটে ১৯০-এর কম নাকি কোনো স্কোরই না। উইকেটও তাই গেইলের দিকে তাকিয়ে। আর এই বিশ্বকাপে শুরুর ম্যাচেই সেঞ্চুরি করে গেইল যেমন আত্মবিশ্বাসে ফুটছেন, দল হিসেবে লঙ্কানরা ততটাই ব্যাকফুটে। লাসিথ মালিঙ্গাকে হারিয়ে আফগানিস্তানের বিপক্ষে জিততেও তাদের ঘাম ঝরাতে হয়েছে।

আজ ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখোমুখি হওয়ার আগে অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজকেও তাই অনুপ্রাণিত করতে হচ্ছে সতীর্থদের, ‘কার বিপক্ষে খেলছি, এটা কোনো বিষয় নয়। গুরুত্বপূর্ণ হলো ইতিবাচক থাকা। ’ পালটা শিবির থেকে স্বাভাবিকভাবেই হুমকি আসছে, কোচ ফিল সিমন্স যেমন বলছেন, ‘আমরা যদি ১৫ ওভার ব্যাট করতে পারি তাহলে ধরে নিন আমরা লক্ষ্যের কাছাকাছি পৌঁছে গেছি, সেটা আগে ব্যাট করে হোক কিংবা পরে। ’

বিশ্বকাপে এখনো পর্যন্ত নিউজিল্যান্ডের দুটি ম্যাচ ছাড়া সবকয়টিতে ব্যাটসম্যানরাই পার্থক্য গড়ে দিয়েছেন। পরশু ব্যাটে-বলের সেই ঠোকাঠুকিতে হেরেই হূদয় ভেঙেছে দক্ষিণ আফ্রিকানদের। আজ তাই দ্বিতীয় ম্যাচে আফগানদের বিপক্ষে তাদের ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই। ক্রিকইনফো


মন্তব্য