kalerkantho


এ যেন ক্রো’র নিউজিল্যান্ড

১৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



এ যেন ক্রো’র নিউজিল্যান্ড

উইকেট দেখেই নিউজিল্যান্ডের কোচ মাইক হেসন বুঝে গিয়েছিলেন যে এখানে ছক ভাঙতেই হবে। গত পরশু নাগপুরে বিশ্ব টি-টোয়েন্টির সুপার টেন পর্বের উদ্বোধনী ম্যাচে সেই ছক ভাঙাটা দারুণ এক চমকই থেকে যায়নি শুধু, জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরুর আনন্দেও ভাসিয়েছে কিউইদের।

যে কারণে দুই পেসার ট্রেন্ট বোল্ট ও টিম সাউদিকে বসিয়ে তিনজন স্পিনার খেলানোর সিদ্ধান্তটি রীতিমতো ‘সিলেকশন মাস্টারস্ট্রোক’-এর মর্যাদাই পাচ্ছে। একই সঙ্গে এ সিদ্ধান্ত সদ্য প্রয়াত মার্টিন ক্রোকেও নিয়ে আসছে আলোচনায়। নিয়ে এসেছেন আসলে অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক ইয়ান চ্যাপেলই। এবার ভারতের মাটিতে কিউইদের তিন স্পিনার খেলানোর ব্যাপারটি যে তাঁকে ১৯৯২-র বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক ক্রো’র নেওয়া যুগান্তকারী এক সিদ্ধান্তের কথাই মনে করিয়ে দিয়েছে, ‘১৯৯২ সালে মার্টিন ক্রো ছিলেন ভাবনা-চিন্তায় সেই সময়ের চেয়েও এগিয়ে থাকা একজন। যিনি স্পিনার দীপক প্যাটেলকে দিয়ে বোলিং ওপেন করিয়েছিলেন। ওই সিদ্ধান্ত নিয়ে অনেক সাফল্যও পেয়েছিলেন তিনি। ওই সিদ্ধান্তের পর এবার আরেকটি দারুণ কৌশল দেখলাম, যেটি এখন সবাই প্রয়োগ করতে চাইবে। ’

তিন স্পিনার মিলে ভারতের ৯ উইকেট তুলে দিয়েছেন। তবে ১১ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ভারতের ব্যাটিং লাইনে ধস নামানোয় নেতৃত্বটা দিয়েছেন ২৪ বছর বয়সী বাঁহাতি স্পিনার মিচেল স্যান্টনারই।

অবশ্য লেগস্পিনার ইশ সোধি (৩/১৮) এবং অভিজ্ঞ অফস্পিনার নাথান ম্যাককালামও (২/১৫) কম যোগ্য সঙ্গত দেননি। তিনজনে মিলে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের ঘূর্ণিপাকে ফেলতে পারার আনন্দই খেলে গেছে স্যান্টনারের কণ্ঠে, ‘উইকেট দেখেই আমরা বুঝে গিয়েছিলাম যে এখানে স্পিন ধরবে। এবং সত্যিই আমরা উইকেট থেকে দারুণ সহায়তাও পেয়েছি। অবশ্য আমাদেরও সৌভাগ্য যে আমরা স্পিনাররা কাজটি করে দিতে পেরেছি। ’ সেই সঙ্গে কিউইদের জয়ের নায়ক আরো যোগ করেছেন, ‘তিনজন স্পিনার খেলানোর সিদ্ধান্তটি নির্বাচকদের। আর স্পিনাররা ৯ উইকেট নিয়ে দেওয়ার পর সেটিকে কিছুতেই আপনি খারাপ সিদ্ধান্ত বলতে পারেন না। ’

পেসার বসিয়ে স্পিনার খেলানোর ব্যাপারটিকে ‘সাহসী সিদ্ধান্ত’ আখ্যা দেওয়া হেসনও বলছিলেন, ‘এখানে (নাগপুরে) লড়াই করতে গেলে যে প্রথাগত পথ ধরলে হবে না, সেটি আমরা বুঝেছিলাম। ’ তবে এই জয়ে কিউইদের কাছে প্রত্যাশার পারদও চড়তে দিচ্ছেন না হেড কোচ, ‘এই গ্রুপ থেকে সেমিফাইনালে যাওয়াটা অবিশ্বাস্যরকমের কঠিন কাজই হবে। আর এখনই সেরকম কিছু বলে দেওয়াটা ঠিকও নয়। কারণ এটি অনেক লম্বা টুর্নামেন্ট। ’ এএফপি, পিটিআই


মন্তব্য