kalerkantho

26th march banner

মুখোমুখি প্রতিদিন

এখন শ্যুটিং নিয়েই ভাবছি না

মেয়েদের অন্যতম শীর্ষ শ্যুটার শারমিন আক্তার রত্না এখন জাতীয় দলেই নেই। শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে এবারের এসএ গেমসে তিনি খেলতে পারেননি। এখন অপেক্ষায় আছেন নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আবার নতুন করে খেলায় ফেরার। কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে সে প্রসঙ্গেই কথা বলেছেন তিনি

১৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



এখন শ্যুটিং নিয়েই ভাবছি না

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : জাতীয় দলের ক্যাম্পে আবার আপনাকে কবে দেখা যাবে?

শারমিন আক্তার : আমি কী করে বলব? আমি তো আর নিজের ইচ্ছায় খেলার বাইরে নেই। আমাকে খেলতে দেওয়া হচ্ছে না। নিষেধাজ্ঞা যখন কাটবে তখনই আবার খেলা নিয়ে ভাবব।

প্রশ্ন : তার মানে এখন অনুশীলনও করছেন না?

শারমিন : না, সুযোগ নেই তো। আমাদের ক্লাবের নিজস্ব রেঞ্জ নেই। অনুশীলন করতে হলে ফেডারেশনের রেঞ্জই ভরসা। কিন্তু তারা কি দেবে! জাতীয় দলের ক্যাম্পে থাকলেই কেবল অনুশীলনের সুযোগ পেতে পারি।

প্রশ্ন : এমন অবস্থায় খেলার প্রতি আগ্রহ ধরে রাখাটাও তো কঠিন?

শারমিন : আমার মনের অবস্থা কী, তা আর  আমি এখন বলতে চাই না। জাতীয় দলে আমি সেই ২০০৫ সাল থেকে। বলতে পারেন জীবনের সোনালি সময়টাই আমি শ্যুটিংয়ের পেছনে দিয়েছি। দেশের হয়ে আমার অর্জন তো কম না। কিন্তু এখন আমি কোথাও নেই। মনে হলে কষ্ট তো লাগেই।

প্রশ্ন : তার মানে ক্যাম্পে ফেরার জন্য মুখিয়ে আছেন?

শারমিন : আমি এ ব্যাপারেও কিছু বলতে চাই না। সময় আসুক তখনই বোঝা যাবে আমার আগ্রহটা কোন জায়গায় আছে। এই মুহূর্তে আমি বেশি দূরের কিছু ভাবতেই পারছি না। আগামী মে মাসে নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার কথা। এরপরে কি খেলা আছে, আমি ঠিক জানিও না। তবে নিশ্চয় ক্লাবের হয়ে খেলব, জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ দিয়েই হয়তো ফেরার সম্ভাবনা।

প্রশ্ন : ফর্মের তুঙ্গে থাকা সেই শারমিনকে আবার কবে দেখা যাবে?

শারমিন : সেটা তো দেশের হয়ে খেলার কথা বলছেন, তাই না! আবার আমি কবে জাতীয় দলে ফিরব, সেটাই তো নিশ্চিত না। আগে জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ খেলি। সেখানে পারফর্ম করার ব্যাপার আছে। ভালো করতে পারলেই হয়তো আবার ডাকবে। তার আগে আমি কিছুই বলতে পারব না।

প্রশ্ন : আগের এসএ গেমসে আপনার রেকর্ডসহ সোনা ছিল, এবারের আসরে কেউই তো সেরকম পারফরম্যান্স দেখাতে পারেননি...

শারমিন : যার যেমন সামর্থ্য সে অনুযায়ীই তো খেলবে। আমি ওদের পারফরম্যান্সে মোটেও অবাক হইনি। তারা দেশে যেমন স্কোর করে গেছে, সেখানেও তা-ই হয়েছে। রেজাল্টও হয়েছে সে অনুযায়ী।

প্রশ্ন : আব্দুল্লাহেল বাকী, শোভন চৌধুরীর পারফরম্যান্স নিয়ে কী বলবেন?

শারমিন : দেখুন, বাকীর ওপর প্রত্যাশার চাপ অনেক বেশি ছিল। সেটাই ওর পারফরম্যান্সে প্রভাব ফেলেছে। অন্যদিকে চাপ না থাকার সুবিধা পেয়েছে শোভন।


মন্তব্য