kalerkantho


জামালের ‘জেগে ওঠার’ ম্যাচ আজ

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

১৫ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



জামালের ‘জেগে ওঠার’ ম্যাচ আজ

টানা দুই ম্যাচ হারার পর শেখ জামাল ধানমণ্ডির তৃতীয় ম্যাচ নাকি ‘জেগে ওঠার’ ম্যাচ! অধিনায়ক ওয়েডসন অ্যানসেলমে আজ মালয়েশিয়ার সেলাঙ্গোর ক্লাবের সঙ্গে ম্যাচটিকে এভাবেই ব্যাখ্যা করেছেন। আর তাতে জয়ের স্বপ্ন দেখছেন কোচ শফিকুল ইসলাম মানিকও।

তবে গত দুই ম্যাচের পারফরম্যান্সে স্বপ্নের কোনো ইঙ্গিত ছিল না। সিঙ্গাপুরের তামপাইনস রোভার্সের কাছে ৪-০ গোলে হেরে আসার পর তারা দেশের মাঠে ২-০ গোলে হেরেছে ফিলিপাইনের সেরেস লা সালের সঙ্গে। ‘দুই ম্যাচের পারফরম্যান্সে খেলোয়াড়রাও অনুতপ্ত। অনেক প্রতিকূলতার মধ্যে তাদের খেলতে হয়েছে। আশা করি, এই ম্যাচে তারা শতভাগ দিয়ে জেতার চেষ্টা করবে’, বলেছেন কোচ শফিকুল ইসলাম মানিক। গত ৮ ফেব্রুয়ারি বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ফিলিপাইনের দলটির বিপক্ষে তাঁর দল দাপট দেখাতে না পারলেও কয়েকটি দুর্দান্ত সুযোগ পেয়েছিল। এর মধ্যে দুটি চমত্কার সুযোগ নষ্ট করেছেন অধিনায়ক নিজেই। তা স্বীকার করেই ওয়েডসন অ্যানসেলমে এই ম্যাচে সবাইকে জেগে ওঠার আহ্বান জানিয়েছেন, ‘গত ম্যাচে ডিফেন্স ও মিডফিল্ড ভালো খেললেও ফরোয়ার্ডে আমরা সুযোগ নষ্ট করেছি। এই ম্যাচটা আমাদের জেগে ওঠার ম্যাচ, ভালো খেলে ম্যাচ বের করে আনতে হবে। ’ শেখ জামালের মূল ভরসাই আসলে তিন বিদেশি ফরোয়ার্ড ওয়েডসন-এমেকা-ল্যান্ডিং। গত দুই মৌসুম ধরে তাঁরাই গোল বের করেছেন আর তাতে জিতেছে শেখ জামাল।

মালয়েশিয়ার সালাঙ্গোর ক্লাবের এটা পঞ্চম মিশন এএফসি কাপে। ২০০৬ সালে সর্বোচ্চ কোয়ার্টার ফাইনালে খেলার অভিজ্ঞতা আছে তাদের। গতবার গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেওয়া এশিয়া অঞ্চলের পরিচিত এই ক্লাব দলের এবার প্রথম দুই ম্যাচে সংগ্রহ মাত্র ১ পয়েন্ট। প্রথম ম্যাচে সেরেসে লা সালের সঙ্গে ড্র করলেও তারা নিজেদের মাঠে দ্বিতীয় ম্যাচে হেরে গেছে তামপাইনস রোভার্সের কাছে।   তাই এই ম্যাচ জেতার জন্য মালয়েশিয়ান দলটির মরিয়া হওয়ার বার্তা দিয়েছেন কোচ জয়নাল আবেদিন বিন হাসান, ‘দুই ম্যাচে আমাদের সংগ্রহ মাত্র ১ পয়েন্ট, তবে এখনো গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগ আছে। পরের চারটি ম্যাচই আমাদের জিততে হবে। দলটা নতুন এবং ব্যস্ত সূচির কারণে সেরা পারফর্ম করাও কঠিন। এই ম্যাচ জেতার জন্য আমার খেলোয়াড়দের মানসিকভাবে আরো শক্তিশালী হতে হবে। ’ আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ম্যাচটি হবে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে।


মন্তব্য