kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


তাসকিনের অ্যাকশন ঠিক বলছেন স্ট্রিকও

ধর্মশালা থেকে প্রতিনিধি   

১৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



তাসকিনের অ্যাকশন ঠিক বলছেন স্ট্রিকও

তাসকিন আহমেদকে নিয়ে কথা হয় অনেক। আরাফাত সানিকে নিয়ে খুব একটা না।

‘আজ ও পরীক্ষা দিতে চেন্নাই গেছে। আইসিসির সঙ্গে আমাদের যে আলোচনা হয়েছে, সে অনুযায়ী কাল ম্যাচের আগেই ফিরে আসবে’—ব্যস, এইটুকুনই বললেন বাংলাদেশের বোলিং কোচ হিথ স্ট্রিক। বাঁহাতি ওই স্পিনার যে বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষায় উতরাতে পারবেন না, সেটি কি তাহলে একরকম মেনেই নিয়েছে বাংলাদেশ ক্যাম্প!

আরাফাতের অভিযুক্তের তালিকায় পড়া মোটেই চমকের না। তবে পেসার তাসকিনের অ্যাকশন প্রশ্নবিদ্ধ হওয়াটা একেবারে ‘বিনা মেঘে বজ পাত’-এর মতো। এ নিয়ে বাংলাদেশ দলে শুধু অবাক হওয়ার অনুভূতি নেই, রীতিমতো ক্ষুব্ধ তাঁরা। ঘটনার পরপরই আইসিসির কর্মকাণ্ড প্রশ্নবিদ্ধ করেন কোচ চন্দিকা হাতুরাসিংহে। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের পর অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা এসে বলে যান, তাসকিন-আরাফাত দুজনের জন্যই নাকি খেলতে নেমেছিল বাংলাদেশ। আর ওমানের বিপক্ষে ম্যাচের আগে হিথ স্ট্রিক প্রবলভাবে ঢাল হয়ে দাঁড়ান তাসকিনের।

‘ওর সঙ্গে যা হলো, সে কারণে তাসকিন অবশ্যই হতাশ। তবে ও এবং আমি নিশ্চিত যে, এখান থেকে ও বেরিয়ে আসতে পারবে। তাসকিনের সঙ্গে কাজ শুরু করার পর থেকে এখনকার সময় পর্যন্ত ফুটেজ দেখেছি। ওর অ্যাকশনে কোনো পরিবর্তন আমি দেখিনি। কোচিং স্টাফের সদস্য এবং আরো কয়েকজন আমরা তা পর্যবেক্ষণ করেছি। আমাদের বিশ্বাস, ওর অ্যাকশন ঠিকই আছে’—ধর্মশালা স্টেডিয়ামের সংবাদ সম্মেলন কক্ষে কাল জোর গলায় বলেন স্ট্রিক। আর এটি যে কেবল বলার জন্যই বলা না, তাও উল্লেখ করেন তিনি, ‘শুধু তাসকিনকে সমর্থন জানানোর জন্য আমি এমন বলছি না। বলছি বিশ্বাস থেকে। এই বিশ্বকাপে আমাদের হয়ে ও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে যাচ্ছে। ’

নিজের অ্যাকশন প্রশ্নবিদ্ধ হওয়ায় শুরুতে কিছুটা মুষড়ে পড়েছিলেন তাসকিন। ব্যাপারটি একেবারে অপ্রত্যাশিত যে! তবে আবার নাকি আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছেন এই পেসার। এর কারণটা জানান বাংলাদেশের বোলিং কোচ, ‘নিজের বোলিংয়ের ফুটেজ দেখে তাসকিন এখন সন্তুষ্ট। আমার মতে, ওর ডেলিভারি অ্যাকশন পুরোপুরি বৈধ। এখন আমাদের একটি প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যেতে হবে। পরীক্ষা দিতে হবে ওকে। আশা করি, এরপর ব্যাপারটি মিটে যাবে। ’

এই ‘অহেতুক ঝামেলা’য় এখন বাংলাদেশ দল। নইলে তো এখন কেবলই ওমানের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে মনোযোগী হওয়ার কথা। এমনিতে এমন প্রতিপক্ষের খুব ঝামেলায় ফেলার কথা না। কিন্তু এখানে জয়-পরাজয়ে যেহেতু ঝুলে আছে বিশ্বকাপ-ভাগ্য, একটু চাপ না থেকে পারে! ওদিকে আবার বৃষ্টির কারণে এই ম্যাচ নিয়েও আছে অনিশ্চয়তা। হিথ স্ট্রিক অবশ্য আবহাওয়ায় নিয়ে বেশি না ভেবে প্রতিপক্ষেই দিচ্ছেন মনোযোগ, ‘আমাদের জন্য শেষ ম্যাচটি গুরুত্বপূর্ণ। ছেলেরা তাতে খেলার জন্য মুখিয়ে রয়েছে। আশা করছি, কাল বৃষ্টি হবে না। তবে সেটি তো আর আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। ’

বাংলাদেশের বোলিং কোচ ধর্মশালা স্টেডিয়ামে এসেছিলেন কাল একমাত্র ক্রিকেটার মুস্তাফিজুর রহমানকে নিয়ে। ঝুম বৃষ্টিতে বাকি সবাই হোটেল প্যাভিলিয়নের আরামদায়ক আলস্যে। বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজের খেলার সম্ভাবনা একরকম নেই বলে জানিয়ে দেন তিনি। তাতে বাংলাদেশের বোলিং লাইনের অস্বস্তি আরো বাড়ছে।

আজ তাসকিন আহমেদের ঝোড়ো গতির বুনো বোলিং বাংলাদেশ ক্যাম্পে ফেরাতে পারে স্বস্তি। আর সেটি যে পারবেন এই পেসার—জাতীয় দলের অধিনায়ক, কোচ, বোলিং কোচ সবাই ধরছেন সে বাজি।

অতএব, ওমান সাবধান!


মন্তব্য