kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


গেতাফেকে গোলবন্যায় ভাসাল বার্সেলোনা

১৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



গেতাফেকে গোলবন্যায় ভাসাল বার্সেলোনা

আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে যাওয়া, লিওনেল মেসির পেনাল্টি মিস—গেতাফের বিপক্ষে বার্সেলোনার ম্যাচের প্রথম মিনিট দশেকেই এত কিছু! তবে শেষ পর্যন্ত ৬-০ গোলের স্কোরলাইনে নিশ্চয়ই বলে দিতে হয় না কতটা দাপট নিয়েই খেলেছে কাতালানরা। ৭০ শতাংশ বলের দখল রেখে, গোলমুখে ১৬টি শট নিয়ে (যার ৯টিই ছিল লক্ষ্যে) গেতাফেকে রীতিমতো উড়িয়ে দিয়েছে বার্সেলোনা।

বড় জয়ে অভীষ্ট লক্ষ্য অর্থাৎ স্প্যানিশ লা লিগার শিরোপার পথে আরো এক ধাপ এগিয়ে গেলেন মেসি-নেইমাররা। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে নরউইচের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছে ম্যানচেস্টার সিটি।

ন্যু ক্যাম্পে ম্যাচের অষ্টম মিনিটেই ইহোর্দি আলাবার ক্রসকে ভুল ঠিকানায় পাঠিয়ে দেন গেতাফের মিডফিল্ডার হুয়ান রোদ্রিগেস। মিনিট দুয়েক বাদে নেইমারকে ফাউল করায় পেনাল্টি পায় বার্সেলোনা, যদিও মেসির শট ঠেকিয়ে দেন ভিসেন্তে গুইতা। লুই সুয়ারেস বিশ্রামে, তাতে এমএসএনের ত্রয়ী ভাঙলেও বিকল্প হিসেবে আসা মুনির এল হাদিদির গোল করতে ভুল হয়নি। ম্যাচের ১৯ মিনিতে মুনির, ৩২ মিনিটে নেইমার এবং ৪০তম মিনিটে মেসি গোল করলে প্রথমার্ধেই নির্ধারিত হয়ে যায় ৩ পয়েন্টের গন্তব্য। বিরতির পর নেইমার আরো একটি এবং আর্দা তুরানও একটি গোল করেন। তাতেই ৬-০ গোলের বড় জয় পায় লুই এনরিকের শিষ্যরা।

ইতালিয়ান সিরি ‘এ’তে চলতি মৌসুমে টানা ১৯ ম্যাচ অপরাজিত জুভেন্টাস। পরশু নিজেদের মাঠে সাসুউলোকে ১-০ গোলে হারিয়ে টানা পঞ্চম শিরোপার পথে আরো এক ধাপ এগিয়ে গেছে তুরিনের ক্লাবটি। সিরি ‘এ’-র পয়েন্ট টেবিলে দ্বিতীয় স্থানে থাকা নাপোলির চেয়ে এখন ৬ পয়েন্ট এগিয়ে তারা। সাসুউলোর বিপক্ষে জয়সূচক গোলটি করেছেন পাওলো দিবালা। তবে গোল নয়, জুভেন্টাসের রেকর্ডময় রাত এদিন গোল না খাওয়ার হিসাবে। সিরি ‘এ’তে টানা ১০ ম্যাচ গোল না খাওয়ার রেকর্ড এখন সাদা-কালোদের। এসি মিলানের সঙ্গে এর আগে ৯ ম্যাচ ক্লিন শিটও ছিল তাদের।

এবারের ১০ ম্যাচের সবকয়টিতেই গোলপোস্টের নিচে ছিলেন জিয়ানলুইজি বুফন। মিনিটের হিসাবে অপরাজিত তিনি ৯২৬ মিনিট। ৬৭ মিনিটের সময়েই তিনি ছাড়িয়ে যান দিনো জফের ৯০৩ মিনিটের রেকর্ড। আর ৪ মিনিট পোস্টটা অক্ষত রাখতে পারলেই সবচেয়ে বেশি সময় ক্লিন শিট রাখা মিলান গোলরক্ষক সেবাস্তিয়ান রসিকেও ছাড়িয়ে যাবেন তিনি। পরশুর ম্যাচেও দুটি অসাধারণ সেভ ছিল তাঁর, দুটিই দ্বিতীয়ার্ধে, দুইবারই গোলবঞ্চিত করেছেন সাসুউলো স্ট্রাইকার নিকোলা সেনসোনকে। জুভেন্টাস সুযোগ তৈরি করে ম্যাচের শুরুতেই, ২৫ গজ দূর থেকে নেওয়া দিবালার শট ফিরিয়ে দেন সাসুউলো  গোলরক্ষক আন্দ্রেয়া কনসিগলি। কিন্তু ৩৬ মিনিটের সময় আর পারেননি, বক্সের কোণ থেকে নেওয়া আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারের বাঁকানো শট ঠিকই আশ্রয় নেয় জালে। লিগে দিবালার এটি ১৪তম গোল। সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে ২২ বছর বয়সী স্ট্রাইকার। শীর্ষে থাকা গনসালো হিগুয়েইন ২৬ গোল নিয়ে অবশ্য বেশ এগিয়ে। গোল ডটকম


মন্তব্য