তাসকিন-আরাফাতের জন্য খেলতে নেমেছিল-334985 | খেলা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বুধবার । ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৩ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৫ জিলহজ ১৪৩৭


তাসকিন-আরাফাতের জন্য খেলতে নেমেছিল বাংলাদেশ

ধর্মশালা থেকে প্রতিনিধি   

১২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



তাসকিন-আরাফাতের জন্য খেলতে নেমেছিল বাংলাদেশ

ছবি : মীর ফরিদ, ধর্মশালা থেকে

বৃষ্টিটা বিরক্ত করছে ভীষণ। পিছু নিয়েছে সেই এশিয়া কাপের ফাইনাল থেকে। কাল আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচেও হানা আবার। তবে বাংলাদেশ দল কেবল বৃষ্টিতে ত্যক্ত নয়, বিরক্ত অন্য এক কারণেও। সন্দেহজনক বোলিং অ্যাকশনের কারণে আগের ম্যাচে যে অভিযুক্ত দুই বোলার তাসকিন আহমেদ ও আরাফাত সানি! এটি নিয়ে নিজের ক্ষুব্ধতা আগের দিন লুকাননি চন্দিকা হাতুরাসিংহে। কাল কোচের মতো বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা পাশে দাঁড়ান ওই দুজনের। বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়া ম্যাচটি তাসকিন-আরাফাতের জন্যই যে খেলতে নেমেছিল দল!

‘আমরা এ ম্যাচটি খেলতে নেমেছিলাম তাদের দুজনের জন্য। ওদের পূর্ণ সমর্থন দিচ্ছি। ওদের দুজনের জন্য আমরা এই ম্যাচ খেলতে নামছি। আর ওরা যে ফিরে আসবে, এই আত্মবিশ্বাস আমাদের পুরোমাত্রায় রয়েছে’, বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়া ম্যাচের পর সংবাদ সম্মেলনে এসে বলেছেন মাশরাফি। দুই অভিযুক্তের মধ্যে আরাফাতকে আজই চেন্নাই পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে অ্যাকশনের পরীক্ষা দেওয়ার জন্য। তাসকিন যাবেন কাল ওমানের বিপক্ষে ম্যাচের পর। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের একাদশে তাসকিন থাকলেও আরাফাত ছিলেন না। তবে তাঁকে আগে চেন্নাইয়ে পাঠানো কিংবা কাল একাদশে না থাকার সঙ্গে ওই অ্যাকশন নিয়ে অভিযোগের কোনো সম্পর্ক নেই বলে অধিনায়কের দাবি, ‘আজ সানি হয়তো বা স্কোয়াডে ছিল না। ওকে কম্বিনেশনের জন্য বাইরে রাখা হয়েছে। আর তাসকিন একেবারে তৈরি ছিল।’

ওই দুজনের জন্য যেমন পরিস্থিতি স্বস্তির না, বাংলাদেশ ক্যাম্পেও বইছে না ফুরফুরে হাওয়া। গতকালের ম্যাচ ভেসে যাওয়ার পর ওমানের বিপক্ষে এখন জিততেই হবে। তবে এ নিয়ে বাড়তি চাপ নিচ্ছেন না মাশরাফি, ‘দুই দলের জন্য চাপ তৈরি হয়ে গেছে। দুই দলেরই তিন পয়েন্ট। তবে রান রেটে আমরা এগিয়ে আছি। কিন্তু আমরা যেভাবে খেলে আসছি সেভাবে খেলতে পারলে আমরা ভালো করব। আত্মবিশ্বাস নিয়ে খেলতে পারব।’ আর আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে জয়েও যে ওমানের বিপক্ষে ম্যাচের লক্ষ্যে পরিবর্তন আসত না, সেটিও মনে করিয়ে দেন তিনি, ‘আজকের ম্যাচে জিতলেও আমাদের সামনের ম্যাচে জিততে হতো। যেটা ভালো হয়েছে, একটু খেলা হয়েছে, ব্যাটসম্যানরা আত্মবিশ্বাস পেয়েছে। একেবারে না খেলার থেকে একটু খেলা আমাদের জন্য ভালো হয়েছে। ব্যাটসম্যানরা ব্যাটিং করতে পেরেছে। আমি মনে করি, এটা সামনের ম্যাচে কাজে লাগবে।’ আলাদা করে উচ্ছ্বাস ঝরেছে তামিমের ব্যাটিং নিয়ে, ‘তামিম খুব ডাকাবুকো ব্যাটিং করেছে। দেখে মনে হয়েছে, যেকোনো পজিশনে, যেকোনো পরিস্থিতিতে ও ব্যাটিং করতে পারবে। এ রকম ব্যাটিং অন্যদের উজ্জীবিত করবে।’

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ হলো না। ওমানের বিপক্ষে ম্যাচেও রয়েছে অভিন্ন শঙ্কা। আকাশের দিকে চেয়ে মাশরাফির এখন একটাই প্রার্থনা, ‘আমরা বৃষ্টি আসলে চাইনি। এটা এশিয়া কাপের ফাইনালে আমাদের বিরক্ত করেছে। এই ধরনের ম্যাচে বৃষ্টি হলে সব সময় কঠিন হয়ে যায়। আমরা সব সময় চাই ২০ ওভারের ম্যাচটি খেলতে এসেছি, ওটাই যেন খেলতে পারি। আশা করছি পরবর্তী ম্যাচটি যেন ২০ ওভারে হয়।’ সামনের ম্যাচের প্রতিপক্ষ সম্পর্কে তেমন ধারণা নেই বলেও স্বীকার করে নেন অধিনায়ক, ‘ওমানের সঙ্গে কোনো খেলা হয়নি আমাদের। তবে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ওদের পুরো ম্যাচটাই দেখেছি। ওরা দল হিসেবে অনেক ভালো। তবে আমরা যদি নিজেদের খেলা খেলতে পারি, সমস্যা হবে না। অন্য সব বড় দলগুলোর সঙ্গে আমরা  যেভাবে খেলি সেভাবেই ওদের বিপক্ষে পরিকল্পনা করছি।’

বৃষ্টি সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের সুযোগটা দিলেই হয়!

মন্তব্য